৩০ মে, ২০২০ ০৬:৪৪ পিএম

তিন ঘণ্টা অপেক্ষাতেও নির্ধারিত হোটেলে থাকতে পারেনি নার্সরা

তিন ঘণ্টা অপেক্ষাতেও নির্ধারিত হোটেলে থাকতে পারেনি নার্সরা

মেডিভয়েস ডেস্ক: ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (ঢামেক) করোনা ইউনিটে কাজ করা শতাধিক নার্স রাতযাপনের জন্য নির্ধারিত হোটেলে গিয়ে তিন ঘণ্টা অপেক্ষার পর বাসায় ফিরতে বাধ্য হয়েছেন। করোনায় কাজ করা এসব নার্সদের থাকার ব্যবস্থা করার কথা ছিল হোটেলটিতে।

শুক্রবার (২৯ মে) রাতে এই ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগী নার্সরা।

সূত্রে জানা যায়, করোনায় কাজ করা নার্সদের থাকার জন্য ফকিরাপুলের আল হাসান ইন্টারন্যাশনাল নামের একটি হোটেল ভাড়া করেছিল ঢামেক হাসপাতাল কতৃপক্ষ। শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে কয়েক ঘণ্টা অপেক্ষার পর ফকিরাপুলের ওই হোটেলের গেইটের তালা খুললেও প্রায় তিন মাস বন্ধ হোটেলের কক্ষগুলো বসবাসের অনুপোযোগী হওয়ায় তাদের বাসায় ফিরতে হয়।

এবিষয়ে ভুক্তভোগী নার্সরা জানিয়েছেন, শনিবার সকাল থেকে দায়িত্ব পালন করতে হবে বলে শুক্রবার রাতেই তাদের হোটেলে চলে আসতে বলেছিলেন হাসপাতালের সেবা তত্ত্বাবধায়ক।  কিন্তু হোটেলের প্রধান ফট্ক খোলা হচ্ছিল না। অনেক অপেক্ষার পর খোলা হলেও সেখানে থাকার অবস্থা নেই। রুমগুলো ছোট, ভেন্টিলেশন নেই। দীর্ঘদিন বন্ধ থাকায় অপরিচ্ছন্ন ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ দেখে তারা বাসায় ফিরে গেছেন।

আল হাসান ইন্টারন্যাশনাল নামের হোটেলটির মালিক এই ঘটনার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে দায়ী করেছেন। মৌখিকভাবে হোটেল ভাড়া নেওয়ার কথা বলার পরে কোনো চুক্তি হয়নি, এমনকি তাদের সঙ্গে পরে আর কোনো যোগাযোগও করা হয়নি বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। তবে হাসপাতাল কতৃপক্ষ বলছে কিছুটা ভুল বোঝাবুঝির কারণে সাময়িক সমস্যা হয়েছে।

এদিকে এ ঘটনাকে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে  বাংলাদেশ নার্সেস অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান জুয়েল বলেন, এটি নার্সদের প্রতি অমানবিক অত্যাচার। সরকার টাকা দিচ্ছে, কিন্তু সব জায়গায় এ ধরনের অব্যবস্থাপনা খুবই দুঃখজনক। এ অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জন্য কতৃপক্ষের গাফলতি এবং অব্যবস্থাপনাকে দায়ী করেন তিনি।

উল্লেখ্য, ঢাকা মেডিকেলের করোনা ইউনিটে প্রায় সাড়ে সাতশ নার্স পাঁচটি দলে ভাগ হয়ে পালাক্রমে দায়িত্ব পালন করেন। একজন নার্স সাতদিন দায়িত্ব পালনের পর ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকবে। পরে আরও ছয় দিন ছুটি কাটিয়ে আবার কাজে যোগ দেবেন। এই নার্সদের মধ্যে ১৫৮ জন নতুন নিয়োগ পেয়েছেন। তাদের কিছু সংখ্যকসহ পুরোনো অনেকের থাকার জন্য এই হোটেল ভাড়া করেছিল ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

করোনা ভাইরাস থেকে সুরক্ষিত থাকতে গুরুত্বপূর্ণ নিয়ম গুলো মেনে চলুন। সর্দি কাশি জ্বর হলে হাসপাতালে না গিয়ে স্বাস্থ্য সেবা দানকারী হটলাইন গুলোতে ফোন করুন। আইইডিসিআর হটলাইন- 10655, email: [email protected]
  ঘটনা প্রবাহ : করোনাভাইরাস
করোনা ও বার্ধক্যজনিত অসুস্থতা

এক দিনে চিরবিদায় পাঁচ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি