০৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০৪:০১ পিএম

চিকিৎসকরা এখন প্রশাসকও: স্বাস্থ্য ডিজি

চিকিৎসকরা এখন প্রশাসকও: স্বাস্থ্য ডিজি
অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম।

মেডিভয়েস রিপোর্ট: বর্তমান সরকারের সময়ে দেশের স্বাস্থ্যসেবা অনেক দূর এগিয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম।

বৃহস্পতিবার (১ সেপ্টেম্বর) কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আয়োজিত চিকিৎসক-শিক্ষকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন।

অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম বলেন, ‘বর্তমান সরকারের সময়ে আমাদের স্বাস্থ্য সেবা অনেক দূর এগিয়ে গেছে। ডাক্তাররা এখন শুধু ডাক্তারই না, তারা এখন প্রশাসকও। একজন ডাক্তারকে যদি যোগ্য প্রশাসক করতে হয়, তাদের ট্রেনিং বাদে দক্ষ করে গড়ে তোলা যাবে না। কারণ, স্বাস্থ্য প্রশাসন খুবই সেনসিটিভ বিষয়।’

তিনি বলেন, কুমিল্লা মেডিকেল শিক্ষার মান বরাবরই ভালো ছিল। কুমিল্লা মেডিকেলের শিক্ষার্থীরা অনেক ভালো করছেন। দেশি-বিদেশি সব শিক্ষার্থীই অত্যন্ত মেধাবী।

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার বলেন, ‘আমাদের মেডিকেল কলেজগুলোতে বেসিক সাবজেক্টে সংকট আগে থেকেই ছিল। আমরা কিছু উদ্যোগ নিয়েছি। আশা করছি আর সংকট থাকবে না। আমাদের চিকিৎসা ও সেবার মান নিয়ে যদি প্রশ্ন আসে, সেটি আমাদের জন্য দুর্ভাগ্যজনক। কারণ, এখানে সরকার অনেক গুরুত্ব দিয়ে থাকে। আমরা প্রতি বছর ৪০ থেকে ৪৫ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করি স্বাস্থ্য খাতে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের চিকিৎসকদের অনেক দায়িত্ব। যত রোগীই আসুক, তাদের প্রত্যেককেই সেবা দেওয়ার চেষ্টা করতে হবে। কারণ, যারা সরকারি হাসপাতালে আসেন, তাদের অধিকাংশই গরিব। তারা আমাদের কাছে আসেন যেন কম পয়সায় সেবা পান। যদি আসরা সেবা না দিই, তাহলে বেসরকারিভাবে সেবা নিতে গিয়ে নিঃস্ব হবেন।’

ড. আনোয়ার হোসেন বলেন, অনেকেই আবার সরকারি হাসপাতালে আসেন মানসম্মত চিকিৎসার প্রত্যাশা থেকে। তারা ভাবেন, বড় বড় চিকিৎসকরা এখানেই থাকেন, বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে তারাই সেবা দেন। সুতরাং তাদের চাওয়া পাওয়াটাকে অবশ্যই গুরুত্ব দিতে হবে। এক্ষেত্রে যারাই সেবা নিতে আসেন, সর্বোচ্চ সেবা দেবেন।

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  ঘটনা প্রবাহ : কুমিল্লা
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
এক দিনে চিরবিদায় পাঁচ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক
করোনা ও বার্ধক্যজনিত অসুস্থতা

এক দিনে চিরবিদায় পাঁচ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক