২৯ মে, ২০২০ ০৫:১০ পিএম

কোয়ারেন্টাইন: নতুন ১৪টি মিলিয়ে জেলা-উপজেলায় প্রস্তুত ৬২৯ প্রতিষ্ঠান

কোয়ারেন্টাইন: নতুন ১৪টি মিলিয়ে জেলা-উপজেলায় প্রস্তুত ৬২৯ প্রতিষ্ঠান
ছবি: ফোবসডটকম।

মেডিভয়েস রিপোর্ট: জেলা-উপজেলা পর্যায়ে কোয়ারেন্টাইনের জন্য ৬২৯টি প্রতিষ্ঠান প্রস্তুত রয়েছে বলে জানিয়েছেন  স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (মহাপরিচালকের দায়িত্বপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। আজ শুক্রবার (২৯ মে) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানান তিনি।

অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, এসব প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ৩১ হাজার ৯৯১ জনকে তাৎক্ষণিকভাবে সেবা দেয়া যাবে । 

এ সময় করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে সবাইকে ঘরে থাকার পাশাপাশি স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা মেনে চলার অনুরোধ জানান তিনি। 

লকডাউন উঠে যাওয়ার পরও সকলকে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বাব জানিয়ে অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা বলেন, ‘আপনার সুরক্ষা আপনার হাতে। নিজের এবং নিজের পরিবারের নিরাপত্তা বিবেচনায় সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।’ 

এ সময় বাইরে বের হলে সাবাইকে অবশ্যই মাস্ক পরে বের হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

বুলেটিনে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে একদিনে সর্বোচ্চ ২ হাজার ৫২৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত, নতুন করে মারা গেছেন আরও ১৫ জন। এ নিয়ে দেশে মোট ৪২ হাজার ৮৪৪ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে, মোট মারা গেছে ৫৮২ জন। ২৪ ঘণ্টায় নতুন ৫০৯ জনসহ মোট  ৯ হাজার ১৫ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।

তিনি বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় ১২ হাজার ৯৮২টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়।পরীক্ষা করা হয় ১১ হাজার ৩০১টি নমুনা। এ নিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো দুই লাখ ৮৭ হাজার ৬৭টি। নতুন নমুনা পরীক্ষায় আরও দুই হাজার ৫২৩ জনের দেহে করোনা শনাক্ত করা হয়েছে, যা একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড। নমুনা পরীক্ষার তুলনায় গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২২ দশমিক ৩৩ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২৩ জনসহ মোট মারা গেছেন ৫৮২, সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন নতুন ৫০৯ জনসহ মোট  ৯ হাজার ১৫ জন।

প্রসঙ্গত, দেশে প্রথম করোনাভাইরাসের রোগী শনাক্ত হয় গত ৮ মার্চ। এরপর থেকে ক্রমাগত বেড়ে চলেছে এর সংখ্যা। দেশে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৪২ হাজার ৮৪৪ জন। মারা গেছেন ৫৮২ জন। সুস্থ হয়েছেন নয় হাজার ১৫ জন।

এর আগে গত ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়ে করোনাভাইরাস। এরপর তা পৃথিবীজুড়ে মহামারীতে রূপ নেয়। এ ভাইরাসে বিশ্বজুড়ে আক্রান্ত হয়েছেন ৫৮ লাখ ১৪ হাজার ৮৮৫ জন। মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে তিন লাখ ৬০ হাজার ৪১২ জন। সুস্থ হয়েছেন ২৪ লাখ ১৯ হাজার ৬৭০ জন রোগী।

করোনা ভাইরাস থেকে সুরক্ষিত থাকতে গুরুত্বপূর্ণ নিয়ম গুলো মেনে চলুন। সর্দি কাশি জ্বর হলে হাসপাতালে না গিয়ে স্বাস্থ্য সেবা দানকারী হটলাইন গুলোতে ফোন করুন। আইইডিসিআর হটলাইন- 10655, email: [email protected]
  ঘটনা প্রবাহ : করোনাভাইরাস
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত