১৭ অক্টোবর, ২০২০ ০৯:৩৮ পিএম
ক্লিনিক্যাল একাডেমিক কার্যক্রম সচলের উদ্যোগ

পেশাগত পরীক্ষা আয়োজনে ঢামেকে একাডেমিক মেডিসিন ওয়ার্ড চালু

পেশাগত পরীক্ষা আয়োজনে ঢামেকে একাডেমিক মেডিসিন ওয়ার্ড চালু
ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল। ছবি: সাহিদ

মেডিভয়েস রিপোর্ট: আসন্ন এমবিবিএস কোর্সের পেশাগত পরীক্ষার পাশাপাশি রেসিডেন্সিসহ অন্যান্য কোর্সের ক্লিনিক্যাল ও একাডেমিক কার্যক্রম সচল করার লক্ষ্যে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (ঢামেকহা) বহির্বিভাগের তিনতলায় নন-কোভিড রোগীদের নিয়ে সীমিত পরিসরে চালু হয়েছে একাডেমিক মেডিসিন ইউনিটের কার্যক্রম। যেখানে সদ্য এমবিবিএস পরীক্ষার্থীসহ অন্যান্য শিক্ষার্থীরা সরাসরি ক্লিনিক্যাল প্র্যাকটিসের সুযোগ পাবেন।

গত ১২ অক্টোবর ঢামেকহা পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন স্বাক্ষরিত এক নোটিসে এ কথা বলা হয়েছে।

নোটিসে জানানো হয়, হাসপাতালের বহির্বিভাগের তৃতীয়তলায় অবস্থিত গ্যাস্ট্রোএন্টারোলজি, অনকোলজি, হেপাটোলজি, রেসপিরেটরি মেডিসিন, মানসিক রোগ বিভাগ ইত্যাদি পুরুষ ও মহিলা ওয়ার্ডে কোভিড-১৯ নেগেটিভ রোগীদের ভর্তি রেখে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের প্রশিক্ষণসহ চিকিৎসা প্রদানের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। 

এ বিষয়ে ঢামেক অধ্যক্ষ ইন্টারনাল মেডিসিন বিভাগের জ্যেষ্ঠ শিক্ষকবৃন্দ ও সাব-স্পেশালিটির জ্যেষ্ঠ চিকিৎসকদের সাথে আলোচনা করে কোভিড পরিস্থিতিতে প্রশিক্ষণ ও চিকিৎসা কার্যক্রম পরিচালনার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেন। 

সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, বহির্বিভাগ ভবনের তৃতীয়তলার ওয়ার্ডসমূহ তিনটি ইউনিটে ভাগ করে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে।

এ ছাড়াও আলোচনায় যেসব সিদ্ধান্ত হয়েছে সেগুলো হলো:


১. বহির্বিভাগ ভবনের তৃতীয়তলার ওয়ার্ডসমূহ তিনটি ইউনিটে ভাগ করা হয়।

২. বহির্বিভাগ ভবনের তৃতীয়তলার ওয়ার্ডসমূহ Academic Medical Unit হিসেবে বিবেচিত হবে।

৩. শুরুতে মেডিসিন বহির্বিভাগে আগত ভর্তিযোগ্য রোগীদের সকল প্রকার Screening test (RT PCR/Gene Xpert test. X-Ray, HRCT Scan, Biomedical test ইত্যাদি) সম্পন্ন করার পর Covid-19 Negative প্রমাণিত হলে আবাসিক চিকিৎসকের (মেডিসিন) মাধ্যমে উল্লেখিত ইউনিটসমূহে রোগীদের ভর্তি করা হবে। পরবর্তীতে ডিএমসিএইচ-২ তে ভর্তি থাকা Suspected Covid-19 রোগীদের কোভিড-১৯ নেগেটিভ নিশ্চিত হওয়ার পর অত্র ওয়ার্ডসমূহে আবাসিক চিকিৎসকের (মেডিসিন) সাথে সমন্বয় করে ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করা হবে। 

৪. Academic Medical Unit এ দায়িত্বপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার/সহকারী রেজিস্ট্রারগণ স্ব-স্ব ইউনিটে সংশ্লিষ্ট অধ্যাপকগণের সাথে সমন্বয় করে চিকিৎসা প্রদান ও ইন্টার্ন চিকিৎসকদের প্রশিক্ষণ প্রদান করবেন।

৫. রেসপিরেটরি মেডিসিন, গ্যাস্ট্রোএন্টারোলজি, হেপাটোলজি, ডার্মাটোলজি, মানসিক রোগ বিভাগ ও অনকোলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও অন্যান্য জ্যেষ্ঠ চিকিৎসকগণ সংশ্লিষ্টদের বিষয়ভিত্তিক রোগীদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা প্রদান ও ইন্টার্ন চিকিৎসকদের প্রশিক্ষণে সহায়তা করবেন। 

৬. ভবিষ্যতে উক্ত ওয়ার্ডসমূহে ভর্তি রোগীদের অন্যান্য প্রশিক্ষণার্থী চিকিৎসকদের (রেসিডেন্ট, ফেইজ-বি, অনারারি চিকিৎসক) প্রশিক্ষণ ও পরীক্ষা গ্রহণের জন্যও ব্যবহৃত হবে। 

৭. জরুরিভাবে রোগী ভর্তির ক্ষেত্রে প্যাথলজি বিভাগে স্থাপিত Gene Xpert Machine এর মাধ্যমে পরীক্ষা করে রোগী ভর্তি করা হবে।

উল্লেখ্য করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিয়মিত ওয়ার্ডগুলোতে কোভিড পজিটিভ রোগীদের চিকিৎসা দেয়ায় বেশ কিছু ওয়ার্ডে নন-কোভিড রোগী ভর্তি গত কয়েক মাস বন্ধ ছিল। যা স্বাভাবিক ক্লিনিক্যাল একাডেমিক কার্যক্রম পরিচালনার অন্তরায়। এই একাডেমিক ক্লিনিক্যাল ওয়ার্ড চালুর মাধ্যমে এই প্রতিবন্ধকতা অনেকাংশে কাটবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

মেডিভয়েস এর জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্ট গুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  ঘটনা প্রবাহ : ঢাকা মেডিকেল কলেজ
স্বাস্থ্য প্রশাসনে অন্য ক্যাডার

কর্মসূচিতে যাওয়ার হুমকি পেশাজীবী চিকিৎসক নেতাদের

জামাই-শ্বশুর মিলে ভুয়া চিকিৎসা

তৃতীয় শ্রেণি পাস করেই ‘বিশেষজ্ঞ’ চিকিৎসক

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত