১২ মে, ২০২০ ০৪:৫৩ পিএম
বাংলাদেশ নার্সেস এসোসিয়েশনের বাণী

করোনা প্রতিরোধে নার্সরা নির্ভীক সৈনিক : বিএনএ সভাপতি

করোনা প্রতিরোধে নার্সরা নির্ভীক সৈনিক : বিএনএ সভাপতি

মেডিভয়েস ডেস্ক: আজ আন্তর্জাতিক নার্সেস দিবস। বিশ্বব্যাপী চলমান করোনা মহামারিতে ভূমিকা রাখছেন নার্স যোদ্ধারা। প্রাণঘাতী এই ভাইরাসে প্রতদিনিই বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। দেশে আজ র্পযন্ত প্রায় দেড় হাজার চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মী আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে নার্সের সংখ্যা প্রায় পাঁচশ'। আক্রান্তদের মধ্যে কয়েকজনের মৃত্যু হয়েছে। 

গোটা বিশ্বের এমন পরস্থিতিতে আজ মঙ্গলবার (১২ মে) 'বিশ্ববাসীর স্বাস্থ্যরে জন্য নার্স গুরুত্বর্পূণ’ এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে পালিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক নার্স দিবস। এ দিবসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, রাষ্ট্রপতিসহ অনেকেই নার্সদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। 

দিবসটি উপলক্ষে নার্সদের সংগঠন বাংলাদেশ নার্সেস এসোসিয়েশনের সভাপতি ইসমত আরা পারভীন শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। নিম্নে তাঁর শুভেচ্ছা বাণী হুবহুব তুলে ধরা হলো:

‘আজ ১২ মে আন্তর্জাতিক নার্সেস দিবস ও নার্সিং পেশার প্রতিষ্ঠাতা ফ্লোরেন্স নাইটিঙ্গেল এর জন্ম বার্ষিকী। এ বছরের প্রতিপাদ্য ‘‘Nurses’ voice to Lead: Nursing the World to Health”। দিনটির তাৎপর্য তুলে ধরার জন্য সমগ্র বিশ্বের নার্সিং সমাজ দিনটিকে যথাযোগ্য মর্যাদার সাথে পালন করে থাকে। কিন্তু এ বছর করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে বিশ্বের ২১২ টি দেশ আক্রান্ত হয়ে মহামারী আকার ধারন করেছে যেখানে শুধুমাত্র জাতীয় পর্যায়  নয়, আজ আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য কাঠামোও হুমকির সম্মুখীন। বিশ্বে প্রতিনিয়ত হাজার হাজার মানুষ কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হচ্ছে, ফলে অনাকাঙ্খিত মৃত্যুর মিছিলের সারিও দীর্ঘ হচ্ছে। এমতাবস্থায় দিনটির প্রতি আড়ম্বর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে যথাযোগ্য মর্যাদা প্রদর্শন করতে না পারলেও মহীয়সী নারী ফ্লোরেন্স নাইটিঙ্গেল এর আদর্শকে শিরে ধারন করে আমাদের নার্সরা নানা প্রতিকূলতার মধ্যে থেকেও জীবনের ঝুকি নিয়ে করোনায় আক্রান্ত অসুস্থ রোগীকে সুস্থ করে তোলার জন্য দিনরাত নির্ভীক সৈনিকের মত দক্ষতা ও নিষ্ঠার সাথে নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছে। কেননা, আধুনিক নার্সিং পেশার প্রধান রুপকার ফ্লোরেন্স নাইটিংগেল তাঁর গবেষনা দ্বারা প্রমান করেছিলেন শুধুমাত্র চিকিৎসা সেবার মাধ্যমে রোগীর প্রকৃত আরোগ্যলাভ সম্ভব নয়। অতএব নার্সিং সেবা প্রদানের মাধ্যমে দ্রুত আরোগ্যলাভ সম্ভব এ চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে সমাজ জীবনের পরিবর্তিত চাহিদার সাথে ভারসাম্যপূর্ণ ভাবে নার্সিং পেশার বিকাশের লক্ষ্যে ঐকান্তিক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন’।

‘বিশ্বের অবিসংবাদিত নেতা জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের ভাবনা বাস্তবায়নে তাঁর সুযোগ্য উত্তরসূরী জননেত্রী গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘‘ডিজিটাল সার্ভিস রোডম্যাপ-২০২১-২২” বাস্তবয়নে বর্তমান সময়ের এই করোনা ক্রান্তিকালেও জনগনের স্বাস্থ্যকে সুরক্ষার জন্য ৫০৫৪ জন সিনিয়র স্টাফ নার্সকে নিয়োগ প্রদান করেছেন যাহা ইতিহাস নিরল। বর্তমান সরকারের বলিষ্ঠ নেতৃত¦ ও আন্তরিক পদক্ষেপে আমাদের নার্সিং সমাজ অনুপ্রানীত হয়ে জনগণের স্বাস্থ্য সুরক্ষার এই গুরু দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি স্বাস্থ্য সেক্টরে গুনগত মানের সেবা প্রদান করে নার্সিং সমাজকে আজ একটি মর্যাদাসম্পন্ন পেশা হিসাবে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরতে সক্ষম হয়েছে। ইতিপূর্বে বর্তমান সদাশয় নার্স বান্ধব জননেত্রী সেবার মানোন্নয়নের লক্ষ্যে ২০,০০০ নার্সের নিয়োগ, শিক্ষা ও সার্ভিসে অগ্রগতি সাধনের জন্য ২০১৯-২০ সনে পর্যায়ক্রমে ২৬৪ ও ৬৮ জন নার্সকে ২য় শ্রেনী থেকে ১ম শ্রেনীতে উন্নীত করে পদোন্নতি প্রদান, ভারত, যুক্তরাজ্য থাইল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া এবং নিপসম এবং বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সরকারী ও বেসরকারী পর্যায়ে নার্সগণ নার্সিংয়ে মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন করেছেন। স্পেশালাইজড নার্স তৈরীর লক্ষ্যে প্রতিবছর ১৪০ নার্সকে বৈদেশিক ট্রেনিং-এর পাশাপাশি দেশীয় পর্যায়েও ট্রেনিং-এর ব্যবস্থা রয়েছে’।

উল্লেখ্য যে, বর্তমান সরকার ১৭ জন নার্সকে থাইল্যান্ড ও দক্ষিন কোরিয়া থেকে পি এইচ ডি  ডিগ্রী অর্জনের ব্যবস্থা করেছেন। এ সব উন্নয়নমূলক কার্যক্রম ও পরিকল্পনা বাস্তবায়নে বলিষ্ঠ বর্তমান সরকারেরই অবদান এবং এ ধারা স্বাস্থ্য সেবাকে সমুন্নত ও অব্যাহত রাখতে সর্বদা সচেষ্ট থাকবে।

‘আমি দৃঢ়তার সাথে বিশ্বাস করি যে, এই দিনের তাৎপর্য্য নার্সদেরকে অধিক কর্মোদ্যমী এবং জনগণের স্বাস্থ্য সেবায় আরো বেশী দায়িত্বশীল ও দক্ষ হয়ে উঠতে অনুপ্রেরণা যোগাবে। আমি সর্বস্তরের নার্সদেরকে তাদের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টার জন্য আন্তরিক অভিনন্দন জানাই এবং তাদের উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করি’

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি