ডা. রীপা চক্রবর্তী

ডা. রীপা চক্রবর্তী

এম এস সি পাব্লিক হেলথ (অন কোর্স)

লন্ডন স্কুল অফ হাইজিন এন্ড ট্রপিকাল মেডিসিন

লন্ডন, যুক্তরাজ্য।


০৩ অক্টোবর, ২০২০ ১২:৪৫ পিএম

করোনায় মুখ ও দাঁতের সমস্যায় করণীয়

করোনায় মুখ ও দাঁতের সমস্যায় করণীয়

দন্তসেবা ব্যবস্থায় জরুরি সমস্যা বলতে সেসব সমস্যাকে বোঝায়, যার জন্য তৎক্ষণাৎ চিকিৎসা গ্রহণ খুব প্রয়োজন হয়। এমন কিছু সমস্যা হলো, দাঁতের স্নায়ুর প্রদাহ থেকে তীব্র ব্যথা অনুভব, হঠাৎ আঘাত প্রাপ্ত হয়ে দাঁত ভেঙে বা পড়ে যাওয়া ও রক্তপাত, দাঁতের বা মুখের কোনো  ইনফেকশন থেকে তীব্র ব্যথা ও মুখ ফুলে যাওয়া, মাঁড়ি বা মুখের কোনো অংশ থেকে ক্রমাগত রক্তপাতসহ যেকোন প্রকার মারাত্মক ঘা বা ক্ষত সৃষ্টি হওয়াকে বোঝায়।

এ রকম কোনো সমস্যা যদি কারো দেখা দেয়, তাহলে তৎক্ষণাৎ নিকটস্থ ডেন্টাল সার্জনের পরামর্শের জন্য শরণাপন্ন হতে হবে ও প্রয়োজনে চিকিৎসা গ্রহণ করতে হবে।

করোনার এমন নাজুক পরিস্থিতিতে সাধারণ দন্ত সেবা যেমন ডেন্টাল চেকআপ, স্কেলিং-পলিশিং, ফিলিং, টুথ হোয়াইটিনিং, দাঁত তোলা, দাঁত বাধানো, রুট ক্যানেল চিকিৎসা, আঁকাবাঁকা দাঁতের চিকিৎসাসহ দাঁতের সৌন্দর্য বর্ধনের কাজ প্রভৃতির জন্য ডেন্টাল চেম্বারে যাওয়া পরিহার করতে হবে। পরামর্শের প্রয়োজন হলে নিকটস্থ কিংবা পরিচিত কোনো ডেন্টাল সার্জনের সাথে টেলি-কনসাল্টেশনের মাধ্যমে পরামর্শ ও প্রয়োজনে ব্যবস্থাপত্র গ্রহণ করতে হবে।

তাছাড়া দাঁত-মাঁড়ি সর্বোপরি মুখের সার্বিক যত্নে ভিটামিন সি-জাতীয় ফলমূল গ্রহণ করা, যত্ন সহকারে দাঁত মাজা ও মাউথ ওয়াশ ব্যবহারসহ নানা কার্বোনেটেড সফট ড্রিংক্স পরিহার করে নিজে নিরাপদ থাকুন, বাসায় থাকুন ও অপরকে নিরাপদে রাখুন।

দেহের অন্যান্য অঙ্গের চেয়ে মুখ নাক এসব করোনা ভাইরাসের বিশেষ আক্রমণস্থল হিসেবে বিবেচিত। দাঁতের চিকিৎসা করার সময় ডাক্তার ও রোগী উভয়েই ভাইরাল সংক্রমণের বিশেষ ঝুঁকিতে থাকেন।

করোনা ঝুঁকিতেও দাঁতের যেসব সমস্যায় অবহেলা নয়:

• মুখের ভেতরে বা দাঁতের অসহনীয় ব্যথা।
• দুর্ঘটনায় চোয়াল বা দাঁত ভেঙে যাওয়া।
• মাড়ি থেকে ঘন ঘন রক্তপাত।
• চোয়ালের কোনো অংশে ফুলে যাওয়া।
• দাঁত দিয়ে শক্ত কিছু ভাঙতে গিয়ে দাঁত ফেটে গেলে।
• মুখের কোনো অপারেশনের পরে ক্ষত শুকাতে অতিরিক্ত সময় নিলে আগের লাগানো আলগা দাঁত বা ডেঞ্চার ও ক্যাপ-ব্রিজ ইত্যাদিতে ফাটল ধরা বা নষ্ট হওয়া।
• বাঁকা দাঁত সোজা করার অর্থোডন্টিক কাজের জন্য মুখে লাগানো ব্রেস যদি মুখে কোনো অসুবিধা সৃষ্টি করে।

করোনা মহামারিতে হঠাৎ অসুস্থতা অনেককে আরও বিড়ম্বনায় ফেলছে। চাইলেই ডাক্তারের কাছে যাওয়া যাচ্ছে না। এ কারণে যেকোন সমস্যায় ঘরোয়া চিকিৎসার ওপর নির্ভর করতে হচ্ছে। এই সময় এ কারণে শরীরের ব্যাপারে বিশেষ যত্নশীল হওয়া দরকার। বিশেষ করে দাঁতের ব্যথায় যাতে না ভোগেন এজন্য সাবধান হওয়া দরকার।

এই সময় দাঁতের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় কিছু বিশেষজ্ঞ পরামর্শ: 

১. করোনাকালীন এই সময় যেহেতু বাড়িতেই বেশি সময় থাকছেন এজন্য দাঁত ভালো রাখতে সারাদিন কী খাচ্ছেন সে ব্যাপারে যত্নবান হোন।

২. সুস্থ দাঁতের জন্য দিনে দুবার ব্রাশ করুন।

৩. দাঁতের ফাঁক থেকে ময়লা খাদ্যকণা বের করে আনার জন্য ডেন্টাল ফ্লস ব্যবহার করা উচিত। বিছানার যাওয়ার আগে দিনে অন্তত একবার ফ্লস করতে ভুলবেন না।

৪. সকালে এবং রাতে হালকা গরম পানিতে লবণ মিশিয়ে কুলিকুচি করতে পারে।

৫. দাঁতে ফাটল হতে পারে এমন কাজ করা থেকে বিরত থাকুন। যেমন- বোতল বা চুলের পিন খুলতে দাঁত ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন।

৬. পরিষ্কার আঙুল দিয়ে দুই মিনিট ব্রাশ করার পরে মাড়ি ম্যাসাজ করুন। এতে রক্ত সঞ্চালন ভালো হবে।

৭. সকালে এবং রাতে জিহ্বা পরিষ্কার করতে ভুলবেন না। অনেক ওষুধের দোকানে জিহ্বা ক্লিনার পাওয়া যায়। এটা ব্যবহার করে জিহ্বা পরিষ্কার করতে পারেন। এতে মুখের মধ্যে ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস হবে।  সেই সঙ্গে দুর্গন্ধজনিত সমস্যা কমে যাবে।

৮. দাঁতের মধ্যে আটকে থাকা খাবার সরাতে কখনই টুথ পিক বা পিন ব্যবহার করবেন । এতে মাড়ির ক্ষতি হতে পারে। বরং ব্রাশ করে এবং ফ্লস করে তা পরিষ্কারের চেষ্টা করুন।

৯. শিশু ও বয়স্কদের দাঁতের সুরক্ষায় বেশি যত্নবান হতে হবে।

১০. মাড়ি ফুলে গেলে সরিষার তেল ও লবণ দিয়ে হালকা ম্যাসাজ করতে পারেন।

১১. প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন। ফাস্ট ফুড, অ্যালকোহল, সোডা, চকলেট, প্রক্রিয়াজাত খাবার এড়িয়ে চলুন।

১২. দাঁতে খুব বেশি সমস্যা অনুভব করলে ফোনে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। 

আমাদের প্রস্তুত হতে হবে যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলার; আর মানতে হবে সকল স্বাস্থ্যবিধি;তবেই আগামী দিনগুলোতে কিছুটা হলেও নিরাপদ থাকতে পারবো আমরা। একমাত্র স্রষ্টাই এখন আমাদের পরম সহায়।

  ঘটনা প্রবাহ : করোনাভাইরাস
স্বাস্থ্য প্রশাসনে অন্য ক্যাডার

কর্মসূচিতে যাওয়ার হুমকি পেশাজীবী চিকিৎসক নেতাদের

জামাই-শ্বশুর মিলে ভুয়া চিকিৎসা

তৃতীয় শ্রেণি পাস করেই ‘বিশেষজ্ঞ’ চিকিৎসক

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে