অধ্যাপক ডা. মুজিবুল হক

অধ্যাপক ডা. মুজিবুল হক

স্কিন অ্যান্ড সেক্সুয়াল মেডিসিন স্পেশালিস্ট

এফসিপিএস, এফআরসিপি (যুক্তরাজ্য), ডিডিভি (অস্ট্রিয়া)

 


৩০ জুলাই, ২০২০ ১১:০০ এএম

স্বাস্থ্যে দুর্নীতি নির্মূল হলে আমলাদের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হবে মানুষ 

স্বাস্থ্যে দুর্নীতি নির্মূল হলে আমলাদের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হবে মানুষ 
ছবি: সংগৃহীত

বর্তমান স্বাস্থ্য খাতের দুর্নীতি নিয়ে জ্যেষ্ঠ আমলারা তদন্তে নামছেন। নিঃসন্দেহে তাঁদের অনেকেই দক্ষ ও সৎ। সঙ্গে সৎ চিকিৎসক (academic) আছেন। তবে আমলারা সর্বেসবা হওয়ায় এই চিকিৎসকদের থাকা না থাকা মূল‍্যহীন।

আমি মনে করি, এ কাজে চিকিৎসকদের বিশ্বাসযোগ‍্য মুখপাত্র বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) মহাসচিব ডা. ইহতেশামুল হক বা অভিজ্ঞতা সম্পন্ন, মন্ত্রণালয়ের আওতার বাইরের/অবসরপ্রাপ্ত স্বনাম ধন‍্য ডাক্তারের অন্তর্ভুক্তি এই মহান প্রয়াসকে প্রকৃত শক্তিশালী ও গ্রহণযোগ‍্য করতো।

বাংলাদেশের চার পাশের সব দেশেই স্বাস্থ্যের অভিভাবক মন্ত্রী অবশ্যই একজন ডাক্তার।

ভারত, পাকিস্তান, ভুটান, মালদ্বীপ, মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়া সর্বত্র স্বাস্থ্যের মূল চালক স্বাভাবিকভাবে একজন ডাক্তার। এই করোনাকালে একজন মন্ত্রী একান্ত প্রয়োজন। একজন ডাক্তার থাকলে এই করোনাকালে এত জীবন দান কিংবা প্রথম সারির যোদ্ধাদের রাস্তায় ছেড়ে দিতে পারতেন না।

মনে হয় যেই লাউ সেই কদুই হবে। কিংবা আরো খারাপ হবে। আসলে একজন সৎ দক্ষ ডাক্তার মন্ত্রী দরকার। এ দুনিয়ায় প্রায় সব দেশে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডাক্তার।

কেরানী আবজাল কোটিপতি! তার যে মেন্টর তাকে, ডাটে ফাটে ইমিগ্রেশন পার করিয়ে দিলো যে, সেই হলো মূল অপরাধী। সিনেমায় দেখা আসল বস যেনো দূর থেকে বাইনোকুলার দিয়ে দেখছে। দোষী সাব্ব্যস্ত কাউকে নির্বিঘ্নে ইমিগ্রেশন পার করানোর ক্ষমতা কার আছ?

অন্তত ডাক্তারের নাই। তা হলে আরও হাইআপ টি কিনি?

প্রথম কাজ হবে এটা উদঘাটন করা। দেখি হয় কিনা।

পাবনায় সিভিল সার্জনকে কাঁদানোর কেলেঙ্কারি মাছরাঙা টিভিতে দেখে ঘৃণায় অন্তরে নিজেও কাঁদি। আর বুঝি আসল দুর্বৃত্তরা কত শক্তিশালী।

যদিও এবারের একত্রিত চৌকস অতি শক্তিশালী। আমলারা প্রকৃত সততার সঙ্গে স্বাস্থ্যের দুর্নীতির শেকড় অনেকটা উপড়ে ফেলে, তবে শত শত মানুষ প্রকৃত শ্রদ্ধা দেখাবে অন্তর থেকে নিরব প্রার্থনা করে।

আর যেন মিঠুর মতো/তার লোকেরা আর সাস্থ্য মন্ত্রণলয়ের বারান্দায় বুক ফুলিয়ে হাটার সাহস না পায়। কেন পেতো?

তবেই জাতীর পিতার অদম্য কন্যা, আমাদের মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর প্রত্যাশাও পূরণ হবে।

এর পরপর বালিশ কেলেঙ্কারির দিকে একই রকম শক্তিশালী দলের আদ্যোপান্ত দুর্নীতি উৎঘাটন করতে না নামলে সরকারেরই বদনাম হবে। সত্য-মিথ্যার নানা গল্প ঘুরবে বাতাসে।

প্রাসঙ্গিক না হলেও একটি তথ্য উল্লেখ করি, ঢাকা মেডিকেলে এতো বছরে ৬০ হাজারেরও বেশি অস্ত্রোপচার হয়েছে। আদিকাল থেকে এই চরম দুর্নীতির দেশে একটি লোকও এজন্য কোনো ডাক্তারকে এক টাকা ঘুষ দিয়েছেন—কেউ বলতে পারবেন না?

বালিস কেলেঙ্কারির মতো আরো বহু ক্ষেত্র রয়েছে সেখানে শত হাজার কোটি টাকার অনিয়ম হয়েছে।

সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের গচ্ছিত অর্থ অভাবনীয়ভাবে বাড়ছে। অথচ ভারতসহ বহুদেশের কমছে। 

সব গুরুত্বপূর্ণ খরচ আর অপচয় নিয়ে নিশ্চুপ সকলে, নিশ্চুপ আমার স্ত্রীর অনেক পছন্দের মিথিলা/ফারজানা। সত্যি কিছু করুন। মানুষের এখন চোখ খোলা।

বিবেকানন্দ বলেছিলেন ‘চালাকি দ্বারা মহত্ত অর্জন করা যায় না।’
 

মেডিভয়েস এর জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্ট গুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
এ সপ্তাহে ৪২তম বিশেষ বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি 

আরও ২০০০ চিকিৎসক নিয়োগের প্রক্রিয়া চূড়ান্ত

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত