০২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩ ০৫:১৯ পিএম

পাবনায় ইন্টার্ন নার্সের ওপর হামলার প্রতিবাদে কর্মবিরতি অব্যাহত

পাবনায় ইন্টার্ন নার্সের ওপর হামলার প্রতিবাদে কর্মবিরতি অব্যাহত
বাংলাদেশ ডিপ্লোমা স্টুডেন্ট নার্সেস ইউনিয়ন পাবনা জেলা শাখার সভাপতি জাহিদ হাসান সাংবাদিকদের বলেন, ‘নার্সদের নিরাপত্তার স্বার্থে আট দফা দাবি আমাদের যৌক্তিক দাবি। এই দাবি না মানা পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে।’

মেডিভয়েস রিপোর্ট: পাবনা জেনারেল হাসপাতালে এক ইন্টার্ন নার্সকে মারধরের ঘটনার প্রতিবাদে নার্সদের কর্মবিরতি অব্যাহত আছে। আজ বৃহস্পতিবার (২ জানুয়ারি) কাজে যোগদান না করে দুপুরে শহরে বিক্ষোভ মিছিল করে ইন্টার্ন নার্সরা।

পাবনা জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স আতিকুর রহমান মেডিভয়েসকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

ইন্টার্ন নার্সরা ৮ দফা দাবি জানিয়ে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের কাছে স্মারকলিপি দেন। এদিকে মারধরের ঘটনার দুই দিন পর আজ দুপুরে অভিযুক্ত দালাল সাদ্দাম হোসেনের (৩০) নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা চার থেকে পাঁচজনকে আসামি করে মামলা করেছেন মারধরের শিকার ইন্টার্ন নার্স রাজা হোসেন (২৫)। তবে এ ঘটনায় পুলিশ এখনো কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

আন্দোলনরত ইন্টার্ন নার্সদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বুধবারের মতো আজ সকালেও তাঁরা হাসপাতালে এসে কাজে যোগ দেননি। এরপর তাঁরা হাসপাতালের বাইরে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তাঁরা শহরে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। শহর প্রদক্ষিণ শেষে তাঁরা জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে গিয়ে আট দফা দাবির বিষয়ে স্মারকলিপি দেন।

আট দফা দাবিগুলো হলো অভিযুক্ত সাদ্দাম ও তাঁর সহযোগীদের গ্রেপ্তার, হাসপাতালে নার্সদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা, নার্সদের কাজের স্বাধীনতা নিশ্চিত করা, দালাল চক্র বন্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ, নার্সদের সঙ্গে অন্য কর্মকর্তাদের ভালো ব্যবহার করা, নার্সদের অবহেলা না করে নার্স বলে সম্বোধন করা, দালালের মাধ্যমে ইসিজিসহ অন্য যেকোনো যন্ত্রপাতি হাসপাতালে প্রবেশ না করা, হাসপাতালের আয়া-ওয়ার্ড বয় ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীদের নির্দিষ্ট ড্রেসকোড (পোশাক) মেনে চলা।

স্মারকলিপি দিতে গিয়ে বাংলাদেশ ডিপ্লোমা স্টুডেন্ট নার্সেস ইউনিয়ন পাবনা জেলা শাখার সভাপতি জাহিদ হাসান সাংবাদিকদের বলেন, ‘নার্সদের নিরাপত্তার স্বার্থে আট দফা দাবি আমাদের যৌক্তিক দাবি। এই দাবি না মানা পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে।’

এ প্রসঙ্গে পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুদ আলম গণমাধ্যমকে বলেন, ‘নার্সদের দাবির বিষয়গুলো আমরা গুরুত্ব দিয়ে দেখছি। ঘটনায় দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য থানা-পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কৃপা সিন্দু বালা বলেন, মামলা হওয়ার পরই অভিযুক্ত ব্যক্তিকে ধরতে অভিযান শুরু হয়েছে। দ্রুতই তাঁকে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হবে।
এ প্রসঙ্গে হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ওমর ফারুক মীর বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে আমরা ইন্টার্ন নার্সদের সঙ্গে আলোচনা করছি। আশা করছি দ্রুত সমস্যার সমাধান হবে।’

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে সাদ্দাম হোসেন (৩০) নামের এক দালালের বিরুদ্ধে এক ইন্টার্ন নার্সকে মারধরের অভিযোগ ওঠে। মারধরের শিকার ইন্টার্ন নার্সের নাম রাজা হোসেন (২৫)। তিনি শহরের ইছামতী নার্সিং কলেজের ডিপ্লোমা ইন সায়েন্স অ্যান্ড মিডওয়াইফারি বিষয়ের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ইন্টার্ন করছেন রাজা। মারধরের ঘটনার প্রতিবাদে গতকাল দুপুরে কর্মবিরতি শুরু করেছিলেন ইন্টার্ন নার্সরা। পরে সন্ধ্যা সাতটার দিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অনুরোধে তাঁরা কর্মবিরতি প্রত্যাহার করে নেন। তবে সাদ্দাম হোসেনকে আটক করতে না পারায় গতকাল বুধবার সকাল থেকে তাঁরা আবার অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি শুরু করেন।

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস বিভিন্ন মেডিকেলের

বর্ধিত ভাতা পাচ্ছেন ৭ বেসরকারি মেডিকেলের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
এক দিনে চিরবিদায় পাঁচ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক
করোনা ও বার্ধক্যজনিত অসুস্থতা

এক দিনে চিরবিদায় পাঁচ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক