১৪ মে, ২০২০ ১২:০২ পিএম
মেডিভয়েসকে বিশেষ সাক্ষাৎকার

চিকিৎসকদের ওই কষ্ট ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না: সৌম্য সরকার

চিকিৎসকদের ওই কষ্ট ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না: সৌম্য সরকার
জাতীয় দলের তারকা ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার। ফাইল ছবি

করোনাভাইরাস মহামারীতে গোটা বিশ্ব এখন থমকে আছে। প্রতিদিন আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে। করোনার এই সংকটের মুহূর্তে খেলাধুলাহস বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মেডিভয়েসের সঙ্গে খোলামেলা কথা বলেছেন জাতীয় দলের তারকা ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন আব্দুল্লাহ আল-মামুন

মেডিভয়েস: করোনার এই সংকট মুহূর্তে আপনার দিনকাল কেমন যাচ্ছে?

সৌম্য সরকার: এই তো ভাই যাচ্ছে, যতটা সম্ভব পারছি বাসাই সময় কাটাচ্ছি। কিছুটা সময় ফিটনেসের কাজ করি, মুভি দেখি, খাই এভাবেই চলে যাচ্ছে সময়।

মেডিভয়েস: ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও খেলাধুলার ব্যস্ততার কারণে পরিবারকে সেভাবে সময় দেয়ার সুযোগ হয়ে ওঠে না, এখন কি পরিবারকে সময় দেয়ার বেস্ট টাইম?

সৌম্য সরকার: না ভাই, এটা তো..। পরিবারকে সব সময় সময় দিতে মন চায়। কিন্তু এরকমভাবে মানসিক টেনশনে থেকে যে কখনও বাইরে বের হওয়া যাবে না। পরিবারের কিছু প্রয়োজন হলে সেই জিনিসটা এনে দিতে পারছি না। কোথায়ও ঘুরতেও নিয়ে যেতে পারছি না। তো এটাতো বেস্ট সময় বলা যায় না।    

মেডিভয়েস: করোনার এখনও প্রতিষেধক বের হয়নি, জীবনের ঝুঁকিয়ে নিয়ে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা প্রতিনিয়ত যেভাবে সেবা দিয়ে যাচ্ছেন, তাদের মধ্যে অনেকে মারাও গেছেন, অনেকে আক্রান্ত। চিকিৎসকদের এই লড়াই নিয়ে যদি কিছু বলেন।

সৌম্য সরকার: অবশ্যই। তারা যেভাবে পরিশ্রম করে যাচ্ছেন তাদেরকে ধন্যবাদ দিয়ে শেষ করা যাবে না। তাদের ওই কষ্ট ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না। যারা এই সংকটে বলতে গেলে যুদ্ধ করে যাচ্ছেন তাদের জন্য সব সময় স্যালুট থাকবে

মেডিভয়েস: করোনায় কেউ আক্রান্ত হলে বা মারা গেলে খোঁজও নেয়া হচ্ছে না। এ ব্যাপারে যদি কিছু বলেন?

সৌম্য সরকার: আসলে অমানবিক না ভাই, সবার নিজেরই একটা ইয়ে আছে, সবারই বাঁচার ইচ্ছা আছে। যেখানে গেলে আক্রান্ত হওয়ার চান্স বেশি, অবস্থা খারাপ হতে পারে। অবশ্যই কেউ চাইবে না, জেনেশুনে আমি খারাপের পথে যাই বা আক্রান্ত হই। হ্যাঁ, এখন যদি এমন হয়, যেমন ডক্টর তাদের সেবা করতেই হবে এবং পুলিশ ওনাদেরকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষার করার জন্য বাইরে যেতেই হবে, এটা অন্য বিষয়। আমরা সবাই বলছি ঘরে থাকুন, সুস্থ থাকুন। তাহলে আমরাই যদি আবার বাইরে যাই, আক্রান্ত হই তখন কী বলব! এখনতো সময়টা ওইটা না।

একটা মানুষ মারা গেলে অবশ্যই সেখানে আমাদের যাওয়া উচিত। কিন্তু এখন আমরা পরিস্থিতির স্বীকার। আমরা যদি ওখানে যাই, আমরা নিজেই জানি আমরা ওখানে গেলে আক্রান্ত হয়ে যাব। তাহলে তো ওখানে কেউ যাবে না। সত্যিকার অর্থে সময়টা আমাদের প্রতিকূলে।

মেডিভয়েস: করোনায় ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক সব খেলাই বন্ধ, এমন পরিস্থিতিতে ফিটনেস ধরে রাখা কতটা চ্যালেঞ্জিং?

সৌম্য সরকার: একটুতো চ্যালেঞ্জিংই, কারণ বাসার ভেতরে কতোটা প্রাকটিস করা সম্ভব। যতটুকুই সম্ভব হয় ততটুকুই করার চেষ্টা করছি। তো অবশ্যই সবসময় অপেক্ষা করছি, কবে মাঠে যেতে পারব। কবে আমার অনুশীলনে নামতে পারব। দেখি কত দ্রুত যাওয়া যায়। ফিটনেসটা বাসার ভিতরে গ্লোব হয়ে যাবে।

মেডিভয়েস: বিশ্লেষকরা বলছেন করোনা পরবর্তী সময়ে বলে মুখের লালা ব্যবহারের যে প্রচলিত রেওয়াজ আছে তা উঠে যেতে পারে। এ ব্যাপারে আপনার কী মত?

সৌম্য সরকার:  হাসি) ভাই এটা তো এখন বলতে পারছি না। এটাতো এখন কতদিন লাগবে, কী হবে। আরও কী হবে, যদি ভ্যাকসিন তৈরি হয়ে যায় ভাইরাসটা যখন সম্পূর্ণরুপে চলে যাবে তখন বলা যাবে।

মেডিভয়েস: এই মুহূর্তে আপনি কী করছেন, আর ভক্ত-সমর্থকদের কী পরামর্শ দেবেন?

সৌম্য সরকার: বলতে পারেন গৃহবন্দি অবস্থা আছি। কোথাও বের হচ্ছি না। অবশ্যই একটানা এতদিন বাসায় থাকা কষ্টের, তবে করোনামুক্ত থাকতে চাইলে বাসায় থাকবে হবে। বাসায় থাকতে পারলে নিজে সেভ থাকব, পরিবারকে সেভ রাখতে পারব। প্রয়োজন ছাড়া বাইরে যাওয়া থেকে বিরত থাকুন। বাসার ভেতরে সময় কাটানোর একটা ওয়ে বের করে নিন। যাতে সময়টা ভালো কাটে, সবাই এক সঙ্গে ভালো থাকতে পারবে।

এছাড়া বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে যেসব নিয়ম মেনে চলার কথা বলছে সেগুলো ফলো করা উচিত। বাসায় থাকা, সামিজক দূরত্ব বজায় রাখা। প্রার্থনা করা যেন যতদ্রুত সম্ভব এই সংকট থেকে আমরা পরিত্রাণ পেতে পারি।

  ঘটনা প্রবাহ : করোনাভাইরাস নিয়ে তারকা ভাবনা
সিন্ডিকেট মিটিংয়ে প্রস্তাব গৃহীত

ভাতা পাবেন ডিপ্লোমা-এমফিল কোর্সের চিকিৎসকরা

প্রস্তুতির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

অক্টোবর-নভেম্বরে ২য় ধাপে করোনা সংক্রমণের শঙ্কা

সিন্ডিকেট মিটিংয়ে প্রস্তাব গৃহীত

ভাতা পাবেন ডিপ্লোমা-এমফিল কোর্সের চিকিৎসকরা

প্রস্তুতির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

অক্টোবর-নভেম্বরে ২য় ধাপে করোনা সংক্রমণের শঙ্কা

সিন্ডিকেট মিটিংয়ে প্রস্তাব গৃহীত

ভাতা পাবেন ডিপ্লোমা-এমফিল কোর্সের চিকিৎসকরা

প্রস্তুতির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

অক্টোবর-নভেম্বরে ২য় ধাপে করোনা সংক্রমণের শঙ্কা

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
আন্তর্জাতিক এওয়ার্ড পেলেন রাজশাহী মেডিকেলের নার্স
জীবাণু সংক্রমণ প্রতিরোধে অসামান্য অর্জন

আন্তর্জাতিক এওয়ার্ড পেলেন রাজশাহী মেডিকেলের নার্স