ডা. মো. শফিউর রহমান

ডা. মো. শফিউর রহমান

প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর (এমপিএইচ),
ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব প্রিভেনটিভ অ্যান্ড স্যোশাল মেডিসিন (নিপসম) 


১০ ডিসেম্বর, ২০২১ ০৮:২৮ পিএম

চিকিৎসক: অন্যকে বাঁচিয়ে রাখতেই যার বেঁচে থাকা

চিকিৎসক: অন্যকে বাঁচিয়ে রাখতেই যার বেঁচে থাকা
এই জগতে আমরা খারাপ থাকি, অন্যকে ভালো রাখতে। আর বেঁচে থাকি অন্যকে বাঁচিয়ে রাখতে! প্রতীকী ছবি

সরকারি চাকরি আর খুব বেশি দিন নাই। ইচ্ছা ছিল এই ক’টা দিন নীরবে-নিভৃতে ঝামেলাহীন কাটিয়ে দিবো। কোন নতুন ঝামেলা বা নতুন কাজের মধ্যে নিজেকে জড়াবো না। কিন্তু একাডেমিক কাউন্সিলের সকল ফ্যাকাল্টির সম্মতিক্রমে কাঁধে আজ নতুন দায়িত্ব আসলো—ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব প্রিভেনটিভ অ্যান্ড স্যোশাল মেডিসিনে (নিপসম) এমপিএইচ’র প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর (পিসি)।

দায়িত্বপূর্ণ কাজের অনেক বড় পরিধি। আল্লাহ সহায়।

এই ছোট জীবনে অনেক অনেক অভিজ্ঞতা! 

২০১১ সালে এখানে শিক্ষক হিসেবে কোর্স ইনচার্জ হবার পর একজন শিক্ষার্থী আমার কাছে একটি আবদার নিয়ে আসে। আমি অবশ্য ছেলেটিকে খুব পছন্দ করতাম। 

ছাত্র হিসেবে সে বেশ ভালো করতো। প্রায় সব পরীক্ষাতেই বেশ ভালো নম্বর পেয়েছিল। তবে একটি একটা কোর্সে এর ব্যত্যয় ঘটে। 

রেজাল্টের আগে একদিন সে কথা তাকে বলতেই সে খুব বিষণ্ন চেহারা নিয়ে এসে বললো, ‘স্যার, আর দুটো নম্বর বাড়িয়ে দেয়া যায়!’ 

আমি কিছুটা অবাক হয়ে জিজ্ঞেস করলাম, কেন কিছুটা বেশি নম্বর চাইছো। 

ও যেটা বললো, তার সারমর্ম হলো অনেকটা এমন—ছেলেটা একটা কল সেন্টারে পার্ট-টাইম চাকরি আর ক্লিনিকে কাজ করে নিজের পরিবারের খরচ চালায়। এক বেসরকারি সংস্থা থেকে ওকে একটা বৃত্তি দেয়, যার জন্য ওকে একটা ন্যূনতম গ্রেড ধরে রাখতে হয়। এই কোর্সে দুই নম্বর কম পেলে ফাইনালে ওর গ্রেড কমে যাবে, তখন ও আর বৃত্তিটা পাবে না।

ডাক্তার হওয়ার পরও কি অসহায়ভাবে কাটে এক-এক জনের জীবন!

নম্বর আমি তাকে বাড়িয়ে দেইনি, কিন্তু তার পড়াশোনার খরচ চালানোর ব্যাপারে আমি অন্যভাবে তাকে সহযোগিতা করেছিলাম। 

আজ কাঁধে আসলো প্রায় ৩০০ জন ছাত্রের দেখ-ভালের দায়িত্ব।

এই জগতে আমরা খারাপ থাকি, অন্যকে ভালো রাখতে। আর বেঁচে থাকি অন্যকে বাঁচিয়ে রাখতে! 

‘আমি মরলে আমার কাছের মানুষদের কী হবে?’—এই সামান্য কথাই আমাদেরকে মরতে দেয় না। আমরা বেঁচে থাকি পরিবারের টানে, নাড়ীর টানে, ভালোবাসার টানে, মায়ার টানে।

দিন শেষে নিজের জন্য বেঁচে থাকি না। এদিক থেকে চিন্তা করলে আমরা কেউই জীবিত না। চারিদিকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা একেকটা লাশ। কবরবিহীন অস্থায়ী লাশ!

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা
পিতাকে নিয়ে ছেলে সাদি আব্দুল্লাহ’র আবেগঘন লেখা

তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না
জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের সিসিউতে ভয়ানক কয়েক ঘন্টা

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না