২১ এপ্রিল, ২০২১ ১১:৫৫ পিএম

রোগীকে রেফার: তালায় দুই চিকিৎসকসহ সাত স্বাস্থ্যকর্মী লাঞ্ছিত

রোগীকে রেফার: তালায় দুই চিকিৎসকসহ সাত স্বাস্থ্যকর্মী লাঞ্ছিত
তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

মেডিভয়েস রিপোর্ট: রোগীকে রেফার করায় স্বজনদের হাতে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত হয়েছেন তালা উপজেলা হাসপাতালের দুইজন চিকিৎসক ও একজন নার্সসহ সাতজন স্বাস্থ্যকর্মী। মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, তালা উপজেলার হাজরাকাটি গ্রামের মো. সাহাবুদ্দিন সরদারের সন্তান সম্ভবা স্ত্রী দিনা বেগমের (৩০) মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) সন্তান ভূমিষ্ঠ হওয়ার তারিখ ছিল। ভোরে দিনার প্রসব বেদনা শুরু হলে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হয়।

রোগীর সার্বিক অবস্থা ঝুঁকিপূর্ণ থাকায় স্বজনদের বিষয়টি বারবার অবহিত করার পাশাপাশি ঝুঁকিপূর্ণ অপারেশন মর্মে লিখিত অনুমতিপত্র নেওয়া হয়। কিন্তু অপারেশন থিয়েটারে (ওটি) অস্ত্রোপচার শুরুর পূর্বেই রোগীর অক্সিজেন স্যাচুরেশন কমতে থাকলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাঁর উন্নতির জন্য বিভিন্ন চেষ্টা চালান।

তবে এতে কোনো কাজ না হওয়ায় রোগীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সাতক্ষীরা কিংবা খুলনা মেডিকেলে রেফার করেন তাঁরা। সেই অনুযায়ী এ্যাম্বুলেন্সেরও ব্যবস্থা করা হয়।

কিন্তু রোগীর স্বজনরা এতে বাঁধ সাধেন। রোগীকে কেন রেফার করা হচ্ছে—এমন প্রশ্ন তুলে হঠাৎই রোগীর স্বজন পরিচয়ে দুই যুবক অপারেশন থিয়েটারের ভেতর ঢুকেই কর্তব্যরত চিকিৎসক অতুল ঘোষ ও ফারহা ফেরদৌসকে মারধর করেন। কর্তব্যরত নার্সরা এগিয়ে আসলে তাদেরকেও মারধর করেন। বাকিদের নাম জানা যায়নি।

জানা গেছে, তখনও ওটির টেবিলে চিকিৎসাধীন রোগীকে বাঁচানোর চেষ্টা করছিলেন চিকিৎসক এবং অন্যান্যরা স্বাস্থ্যকর্মীরা।

ওই যুবকরা এ সময় ডা. ফারহা ফেরদৌসের চুলের মুঠি ধরে দেওয়ালে ধাক্কা মারেন। একজন বয়োজ্যেষ্ঠ আয়াকে বুকে লাথি মারলে তিনি ওটি থেকে ছিটকে বারান্দায় পড়ে যান। প্রায় দশ-পনেরো মিনিটের এই তাণ্ডবে অপারেশন থিয়েটারের পুরো ব্যবস্থাপনা ভেঙে পড়ে। 

এ সময় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে একটি ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয় এবং চিকিৎসকরা রোগীর চিকিৎসা দিতে বাধাগ্রস্ত হন। তারপরও শারীরিক এবং মানসিকভাবে বিধ্বস্ত স্বাস্থ্যকর্মীবৃন্দ রোগীর চিকিৎসা চালিয়ে যান এবং পরবর্তীতে রোগীকে এ্যাম্বুলেন্সে তুলে খুলনার উদ্দেশ্যে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে খবর পেয়ে পুলিশ সাথে সাথে হাসপাতালে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে।

এদিকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর সেখানে মারা যান রোগী। রাতে এ খবর ছড়িয়ে পড়লে রোগীর স্বজনেরা দ্বিতীয় দফায় হাসপাতালে হামলা চালায় বলে অভিযোগ উঠে। এ অবস্থায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিরাপত্তাহীন পরিবেশ তৈরি হয়েছে।

বিএমএর নিন্দা 

এ ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে সাতক্ষীরা জেলা বিএমএ নেতৃবৃন্দ। তারা বলেন, একটি সরকারি হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারের ভিতর ঢুকে চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও নিন্দা জানাচ্ছি। সেই সঙ্গে এই ধরনের হীনকর্মকাণ্ডে জড়িতদের কঠোর শাস্তি দাবি করছি এবং হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মীদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করার জন্য প্রশাসনের নিকট আবেদন জানাচ্ছি।

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  ঘটনা প্রবাহ : চিকিৎসক লাঞ্ছিত
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি