২৭ নভেম্বর, ২০২০ ০৬:৪৭ পিএম

৪৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ১৩টি হাসপাতালে হবে অক্সিজেন প্লান্ট

৪৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ১৩টি হাসপাতালে হবে অক্সিজেন প্লান্ট

মেডিভয়েস ডেস্ক: হাসপাতালগুলোতে রোগীদের অক্সিজেনের চাহিদা মেটানোর লক্ষ্যে ৪৩ কোটি ৪২ লাখ ২৯ হাজার ৯৩৬ টাকার প্রশাসনিক অনুমোদন দিয়েছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ। এই টাকা ব্যয়ে দেশের ১৩টি হাসপাতালে স্থাপন করা হবে অক্সিজেন প্লান্ট।

অক্সিজেন প্লান্ট স্থাপনের শর্তাবলী জানিয়ে বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠানকে ইতোমধ্যে একটি চিঠিও দিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

গত ২৫ নভেম্বর মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের নির্মাণ অধিশাখার উপসচিব মোহাম্মদ শাহাদাত খন্দকার স্বাক্ষরিত একটি চিঠি প্লান্ট বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠানকে দেয়া হয়েছে।

অক্সিজেন প্লান্ট স্থাপনের শর্তাবলী সংক্রান্ত ওই চিঠিতে বলা হয়, এর অর্থ ব্যয় পিপিএ-২০০৬, পিপিআর-২০০৮ এবং আর্থিক ক্ষমতা অর্পণ-২০১৬ বিদ্যমান সকল বিধিবিধান যথাযথভাবে পালন করতে হবে। দ্রুত সময়ে অক্সিজেন সরবরাহ নিশ্চিত করতে হবে এবং নির্ধারিত হারে মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) ও কর (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) কর্তন করতে হবে।

এছাড়া কার্যাদেশ প্রদানের আগের সব কাগজপত্র পুনঃপরীক্ষা করতে হবে এবং কাজটি সম্পাদনে কোনও ত্রুটি বা অনিয়ম হলে বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠান সেজন্য দায়ী থাকবে।

যেসব হাসপাতালে অক্সিজেন প্লান্ট স্থাপন করা হবে সেগুলো হলো- বগুড়া ২৫০ শয্যার মোহাম্মদ আলী জেনারেল হাসপাতাল, ঠাকুরগাঁও ২৫০ শয্যার সদর হাসপাতাল, গাইবান্ধা ২০০ শয্যার সদর হাসপাতাল, নড়াইল ১০০ শয্যার সদর হাসপাতাল, ঝিনাইদহ ১০০ শয্যার সদর হাসপাতাল, ঝালকাঠির ১০০ শয্যার সদর হাসপাতাল, পিরোজপুর ১০০ শয্যার সদর হাসপাতাল, রাজবাড়ী ১০০ শয্যার সদর হাসপাতাল, দিনাজপুর ২৫০ শয্যার সদর হাসপাতাল, লালমনিরহাট ১০০ শয্যার সদর হাসপাতাল, লক্ষ্মীপুর ১০০ শয্যার সদর হাসপাতাল, বান্দরবান ১০০ শয্যার সদর হাসপাতাল ও খাগড়াছড়ি ১০০ শয্যার সদর হাসপাতাল। প্রতিটি অক্সিজেন প্লান্ট স্থাপনে ব্যয় হবে তিন থেকে প্রায় চার কোটি টাকা।

মেডিকেল শিক্ষার্থী-চিকিৎসকদের পরীক্ষা

সংক্রমিতদের মৌখিক পরীক্ষায় নমনীয় মেডিকেলগুলো

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি