১২ জুলাই, ২০২০ ১০:২৮ এএম

করোনায় আক্রান্ত বলিউড সুপারস্টার অমিতাভ বচ্চন

করোনায় আক্রান্ত বলিউড সুপারস্টার অমিতাভ বচ্চন

মেডিভয়েস ডেস্ক: প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ভারতীয় চলচ্চিত্রের মেগাস্টার ও বলিউড সুপারস্টার অমিতাভ বচ্চন। এ অবস্থায় তাকে মুম্বাইয়ের নানাবতী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর কিছুক্ষণ পর ছেলে অভিষেক বচ্চনেরও করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর আসে। তবে, জয়া বচ্চন ও ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনের কোভিড–১৯ পরীক্ষার ফল এখনো আসেনি।

শনিবার (১২ জুলাই) রাতে অমিতাভের করোনা পরীক্ষার ফল পজিটিভ আসে। অমিতাভ বচ্চন নিজেই টুইট করে তাঁর কোভিড-১৯ রিপোর্ট পজিটিভ আসার খবর জানিয়েছেন।

টু্ইটার, ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রামে অমিতাভ লিখেছেন, ‘আমি করোনায় আক্রান্ত হয়েছি। হাসপাতালে ভর্তি হয়েছি। হাসপাতাল থেকে জানানো হয়েছে, পরিবারের সবাইকে করোনা পরীক্ষা করাতে হবে। ইতিমধ্যে আমার বাড়ির সবার নমুনা নেওয়া হয়েছে। পরীক্ষা হচ্ছে। তবে এখনো তাদের রিপোর্ট পাইনি।’

টুইটারে অমিতাভ জনসাধারণের কাছে আবেদন করেন, গত ১০ দিনে যাঁরা তাঁর সান্নিধ্যে এসেছেন, তাঁরা প্রত্যেকে যেন কোভিড–১৯ পরীক্ষা করান।

জানা গেছে, ভারতে করোনাভাইরাসের কারণে লকডাউনের পুরোটা সময় বাড়িতেই ছিলেন তিনি। ঘরে বসেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজের খবরাখবর জানিয়েছেন। নতুন-পুরোনো ছবি আপ করেছেন। করোনা নিয়ে কবিতা লিখে আবৃত্তিও করেছেন। এর মধ্যে একটি ভিডিও চিত্র ধারণ করা হয়েছে তাঁর বাড়িতে। অমিতাভসহ বলিউড, কলিউড ও টালিউডের বড় সব তারকাকে নিয়ে নির্মিত হয়েছে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘ফ্যামিলি’।

অমিতাভের লিভারের ৭৫ শতাংশ অকার্যকর হয়ে গেছে হেপাটাইটিস–বির মতো মারাত্মক ভাইরাসের আক্রমণে। এ রোগ তাঁর শরীরে বাসা বেঁধেছিল ৩০ বছরেরও আগে। ‘কুলি’ ছবির শুটিংয়ের সেটে তাঁর মারাত্মক একটি দুর্ঘটনা ঘটেছিল। তলপেটে মারাত্মক আঘাত পেয়ে প্লীহা ফুটো হয়ে যায়। রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। প্রাণের আশঙ্কা তৈরি হয়েছিল। সেই সময় তিনি দীর্ঘদিন হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। রক্তদাতাদের কাছ থেকে রক্ত নিতে হয়েছিল তাঁকে। সেই সময় একজন দাতার রক্তে হেপাটাইটিস–বির সংক্রমণ ছিল। তাঁর রক্ত নেওয়ার পর এই ভাইরাসের (রোগের) জীবাণু তাঁর শরীরে ঢুকে যায়, যদিও ওই সময় কিছুই বুঝতে পারেননি কেউ। পরে ২০০০ সালে অমিতাভকে চিকিৎসকেরা তা জানান।

তিনি প্রথমবারের মতো বুঝতে পারেন যে তাঁর লিভারের অবস্থা খুব সুবিধার নয়। তাঁর লিভারের ৭৫ শতাংশই নষ্ট হয়ে গেছে। অমিতাভ বচ্চন নিজেই জানিয়েছেন, তাঁর যকৃতের মাত্র ২৫ শতাংশ কাজ করছে। আর তার ওপর ভরসা করেই বেঁচে আছেন তিনি। গত বছরের অক্টোবরে হাসপাতালেও ছিলেন তিনি।

১৯৪২ সালের ১১ অক্টোবর ভারতের উত্তর প্রদেশের এলাহাবাদে জন্মগ্রহণ করেন অমিতাভ বচ্চন। তাঁর বাবা প্রখ্যাত কবি হরিবংশ রাই বচ্চন ও মা তেজি বচ্চন। ১৯৬৯ সালে ‘সাত হিন্দুস্তানি’ ছবির মাধ্যমে চলচ্চিত্রজগতে যাত্রা শুরু করেন অমিতাভ। দীর্ঘ চলচ্চিত্রজীবনে ‘আনন্দ’, ‘গুড্ডি’, ‘বাবুর্চি’, ‘জঞ্জির’, ‘সওদাগর’, ‘দিওয়ার’, ‘শোলে’, ‘দো আনজানে’, ‘অমর আকবর অ্যান্থনি’, ‘ডন’, ‘সুহাগ’, ‘লাওয়ারিশ’, ‘সিলসিলা’, ‘শাহেনশাহ’, ‘অগ্নিপথ’, ‘বুম’, ‘বাগবান’, ‘ব্ল্যাক’, ‘সরকার’, ‘নিঃশব্দ’, ‘পা’, ‘অরক্ষণ’, ‘সত্যাগ্রহ’সহ অসংখ্য ব্যবসাসফল ছবি উপহার দিয়েছেন বলিউডের ইতিহাসে অন্যতম সফল এই অভিনেতা।

বলিউডে এর আগে কণিকা কাপুর ও কিরণ কুমার করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

  ঘটনা প্রবাহ : করোনাভাইরাস
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
করোনা ছড়ায় উপসর্গহীন ব্যক্তিও
একদিনেই অবস্থান বদল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

করোনা ছড়ায় উপসর্গহীন ব্যক্তিও