ডা. রেজওয়ানুল ইসলাম মাকসুদ

ডা. রেজওয়ানুল ইসলাম মাকসুদ


মেডিকেল অফিসার,
সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল


২২ মে, ২০২১ ০৪:১৬ পিএম

চিকিৎসক-সাংবাদিক দূরত্বের নেপথ্যে

চিকিৎসক-সাংবাদিক দূরত্বের নেপথ্যে
ছবি: সংগৃহীত

একটু তিতা কথা বলি।

প্রিয় সাংবাদিক ভাইরা ,
আপনারা আপনাদের সহকর্মী রোজিনা আপাকে গ্রেপ্তার করায় প্রতিবাদ করলেন, পরদিন আপনারা কেউ কেউ কর্মবিরতি পালন করলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের প্রেস ব্রিফিং থেকে বের হয়ে গেলেন, যদিও ঘটনা বিচারাধীন (ভিডিও ফুটেজ ওনার বিরুদ্ধেই যায়)। শুনলাম নাকি আল্টিমেটামও দেয়া হইছে। ভাল, আমরাও মুক্ত সাংবাদিকতার পক্ষে। 

কথা হল এই আপনারাই দিনের পর দিন ডাক্তারদের বিরুদ্ধে যাচাই বাছাই না করে ভুল চিকিৎসার খবর ছেপেছেন। কোথাও ডাক্তার মার খেলে, মারা গেলে কোনদিন একটা লাইন লিখেন নাই। উল্টা আমরা ইমার্জেন্সি খোলা রেখে কর্মবিরতি দিলে খবর ছাপছেন আমরা রোগীদের জিম্মি করে আন্দোলন করি। এখন যদি বলি আপনারা দেশের জনগনকে জিম্মি করে আন্দোলন করেন! আপনারাতো কেবল একজন সহকর্মীর এমন লাঞ্ছনায় ক্ষুব্ধ। আর আমাদের কোনো না কোনো সহকর্মী প্রায় প্রতিদিনই কোথাও না কোথাও একই পরিস্থিতির শীকার হচ্ছেন, আহত, নিহত হচ্ছেন। পুলিশ সম্পুর্ণ আইন ভঙ্গ করে দাগী আসামীর মত ধরে নিয়ে যাচ্ছে। এখন ভাবুনতো আমাদের কেমন লাগে। আসলে কি যাতনা বিষে, বুঝিবে সে কিসে, কভু আশিবিষে...।

আপনারা এক অতিরিক্ত সচিবের কোথায় কতটা বাড়ি, ব্যালান্স (টাকা) রয়েছে ঘন্টার মধ্যে বের করে ফেললেন, কিন্তু সাংবাদিক রোজীনার স্বামীর স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের টেন্ডার পাওয়ার ঘটনা, তার পিছনে কিছু আছে কিনা তা নিয়ে কিছু বের করতে পারেন না!

এবার অন্য প্রসংগে আসি, স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের ঘটনা, ডাক্তারদের ইন্টারেস্ট অনেক বেশি এ ঘটনায়। তবে বেশিরভাগই দূর থেকে মজা দেখছে। কেউ কেউ মিওমিও করে একপক্ষ নিতে চাইলেও বাকিরা সাবধান করছেন। রাজায় রাজায় যুদ্ধ হয়, উলোখাগড়ার জীবন যায়! অথচ এ মন্ত্রনালয় আমাদের মন্ত্রনালয়, কথা ছিল আমরা সবাই চোখ বন্ধ করে মন্ত্রনালয়ের পক্ষ নিব, নিয়েছে কি? স্বাস্থ্য ক্যাডার অনেক বড় ক্যাডার। অনেক ডাক্তার সোশ্যাল মিডিয়ায় সুপরিচিত, কয়জন মন্ত্রনালয়ের পক্ষে কথা বলেছেন? এটাই প্রমাণ করে আমাদের অভিভাবকদের সাথে আমাদের সম্পর্কটা কেমন। এই সম্পর্ক অবনমনের দায়ভার কার? উন্নয়নের ইচ্ছা কি আমলাদের আছে।

সবশেষে একটা কথা বলি, ডাক্তারদের বিরুদ্ধে যে কোনো লেখায়, ডাক্তারদের আন্দোলনেও কিছু ডাক্তারকে পাবেন যারা বলেন, আমরাও ধোয়া তুলসিপাতা না, আমাদের আত্মসমালোচনা দরকার, জনগনের দুর্ভোগ যাতে না হয় সেদিকে সবার আগে খেয়াল রাখা দরকার। আমরা অনেক সময় তাদের সুশীল বলে গাল দেই। হার্টের রিং বাণিজ্য, কমিশন বাণিজ্য, নিম্নমানের সরঞ্জম ক্রয় এগুলো নিয়ে ডাক্তাররাই বেশি সরব ছিলেন এবং আছেন।

আজ পর্যন্ত পুলিশের অন্যায়ে কোনো পুলিশকে, আমলাদের অসৎ কর্মে কোনো আমলাকে, বর্তমান ঘটনায় কোন সাংবাদিককে আত্মসমালোচনা করতে দেখলাম না। আমার তাই মনে হল, ডাক্তারদের কেউ কেউ ডাক্তার হওয়ার বাইরেও মানুষ হয়েছে। আপনারা পুলিশ, আমলা, সাংবাদিকই হয়ে রইলেন। স্যাড।

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা
পিতাকে নিয়ে ছেলে সাদি আব্দুল্লাহ’র আবেগঘন লেখা

তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না
জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের সিসিউতে ভয়ানক কয়েক ঘন্টা

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না