ডা. মাহফুজুর রহমান রাজ

ডা. মাহফুজুর রহমান রাজ

ডেন্টাল সার্জন, রাজশহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল,

সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান, বিডিএফ।


২৬ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৮:৩৪ পিএম

বেসরকারি চিকিৎসকদের বেতন কাঠামো: প্রাসঙ্গিক কিছু কথা  

বেসরকারি চিকিৎসকদের বেতন কাঠামো: প্রাসঙ্গিক কিছু কথা  
ছবি: প্রতীকী

বেসরকারি চিকিৎসকদের আমি মোটামুটি দুইটি ভাগে ভাগ করি।
ক. দেশের সকল বেসরকারি মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজসমূহে কর্মরত শিক্ষকবৃন্দ।
খ. দেশের সকল বেসরকারি হাসপাতাল ক্লিনিক নার্সিংহোম ইত্যাদিতে কর্মরত চিকিৎসকবৃন্দ। 

প্রথমটির ক্ষেত্রে দেখা যায় দেশের বর্তমানে সরকারি বহু মেডিকেল কলেজের তীব্র শিক্ষক সংকট রয়েছে। বিশেষ করে বেসিক সাবজেক্টের শিক্ষক নেই বললেই চলে। অনেক বিষয়ে উচ্চশিক্ষা গ্রহণকারীদের ছাড়াই লেকচারার দিয়ে চলছে শিক্ষাদান । 

সেখানে বেসরকারি মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজগুলোতে কী অবস্থা তা সহজেই অনুমান করা যায়। হাতেগোনা কিছু শিক্ষক নানান বিষয় নিয়ে শিক্ষা দান করছেন এবং দুর্বল বেতনকাঠামোর জন্য ভালো কেউ সেখানে চাকরি করতেও আগ্রহী না। ফলে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে সেখানকার ছাত্র-ছাত্রীরা। 

এদেশে যদি ভালো মানের চিকিৎসক তৈরি করতে হয় তাহলে অবশ্যই ভালো শিক্ষকের প্রয়োজন আছে আর ভালো শিক্ষক পেতে গেলে প্রয়োজন একটি গ্রহণযোগ্য বেতন কাঠামো। 

সমস্যার কেন্দ্রগুলো :
প্রতিটা মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজের মালিকদের প্রতিষ্ঠার মূল উদ্দেশ্য বাণিজ্যিক। এখানে কলেজের পরিবেশ, শিক্ষার মান, রোগী দেখার ব্যবস্থা কোন কিছু নিয়ে তাঁদের মাথাব্যাথা নেই। তাঁরা শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে নির্ধারিত টাকার থেকে এক টাকা কম নিতে চান না । কারণে-অকারণে নানান জরিমানা করা হয়, সেই সাথে আছে ইচ্ছাকৃতভাবে পরীক্ষায় কিছু ছেলেমেয়েকে ফেল করিয়ে তাদের থেকে টাকা পয়সা আদায় করা। সব টাকা শোধ না হলে ফাইনাল প্রফের অ্যাসেসমেন্ট পরীক্ষায় অংশ নেওয়া বা ফরম ফিলাপ করতে দেওয়া হয় না । 

টাকার প্রতি যত আগ্রহ তার সামান্য কিছু অংশ যদি শিক্ষার প্রতি থাকতো তাহলে সকলপক্ষ উপকৃত হতো। গ্রহণযোগ্য বেতন কাঠামো না হলেও অন্তত ভালো একটা বেতনের নিশ্চয়তা থাকত শিক্ষকদের ।

সবচেয়ে ভয়াবহ ব্যাপার এই সকল মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজের মালিকগণ মারাত্মক প্রভাবশালী, রাজনৈতিক এবং সামাজিকভাবে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গ। নামে-বেনামে অনেক উচ্চ পর্যায়ের ব্যক্তিরা এর সাথে জড়িত আছেন । 

সমাধান কোন পথে: 
বাংলাদেশ ডক্টরস ফোরাম (বিডিএফ) এক্ষেত্রে কী করতে পারে? বিষয়টি নিয়ে সোচ্চার হতে পারে। সরকারের উচ্চ পর্যায়ে নীতি নির্ধারকদের সাথে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে পারে। কিন্তু সর্ষের মধ্যে ভূতটি সব জায়গায় ম্যানেজ করে রাখবে। বিডিএফকে তাদের থেকে শক্তিশালী হতে হবে। কিন্তু এটা আসলে অসম্ভব।

এছাড়া আমাদের চিকিৎসকদের জাতীয় সংগঠন বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনকে (বিএমএ) সাথে নিয়ে প্রয়োজনে আরও কিছু সংগঠনকে সাথে নিয়ে সোচ্চার হতে হবে। নিজেদেরকে শক্তিশালী করে সরকারের নীতিনির্ধারকদের সাথে কথা বলে একটি বেতন কাঠামো করতে হবে।

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত