২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০৫:১০ পিএম

অতিরিক্ত বেতন আদায়: ৯৬ মেডিকেলকে আইনি নোটিস

অতিরিক্ত বেতন আদায়: ৯৬ মেডিকেলকে আইনি নোটিস

মেডিভয়েস রিপোর্ট: শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ষাট মাসের অধিক বেতন আদায় বন্ধে সারাদেশে ৯৬টি মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজকে আইনি নোটিস পাঠিয়েছে বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন (বিপিএমডিএসএ)। গতকাল বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার এ এইচ ইমাম হাসান সংগঠনটির পক্ষে এ নোটিস পাঠান। 

অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা মো. সুরুজ ইসলাম আজ শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মেডিভয়েসকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, করোনাকালীন প্রায় ৭ মাস ধরে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রম চললেও মেডিকেল ও ডেন্টাল শিক্ষার্থীদের পেশাগত পরীক্ষা থেমে রয়েছে। এতে সৃষ্ট সেশন জটের কারণে যাতে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বাড়তি বেতন আদায় করা না হয়, সেজন্যই মূলত এই লিগ্যাল নোটিস।

মো. সুরুজ ইসলাম বলেন, ২০১৪-১৫ ও ২০১৮-১৯ এর প্রজ্ঞাপনে মেডিকেল ও ডেন্টাল শিক্ষার্থীদের জন্য ৬০ মাসের বেতন নির্ধারণ করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। কিন্তু মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা উপেক্ষা করে দেশের অনেক মেডিকেল কলেজে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত বেতন দাবি করা হয়েছে। শিক্ষার্থীরা পরিশোধে অস্বীকৃতি জানালেও জরিমানার ভয়ে অনেককে দিতে হয়েছে। তবে সব মিলিয়ে তাদের কোর্সের ৬০ মাসের অধিক বেতন যাতে না দিতে হয়, সেজন্য ৯৬ বেসরকারি মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজেকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে ২৬টি ডেন্টাল কলেজ ও ৭০ মেডিকেল কলেজ।

তিনি আরও বলেন, গত ২১ সেপ্টেম্বর কয়েকটি প্রতিষ্ঠানে পাঠানো হয়েছে। ২৪ সেপ্টেম্বর বাকি প্রতিষ্ঠানগুলোতে পাঠানো হয়েছে।

নোটিসে ৬০ মাসের বেশি বেতন আদায় বন্ধের আহ্বান জানানোর কথা উল্লেখ করে সুরুজ ইসলাম বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা উপেক্ষা করে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত বেতন আদায় করা হলে পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

অতিরিক্ত বেতন আদায় বন্ধে কাজ করে যাওয়া বিপিএমডিএসএ’র দাবিগুলো হলো: 

১. এমবিবিএস কোর্সে ৬০ মাসের বেশি বেতন নেওয়া যাবে না এবং বিডিএস কোর্সে ৪৮/৬০ মাসের বেশি বেতন নেওয়া যাবে না। কোনো শিক্ষার্থী কোন প্রফে পিছিয়ে গেলে অথবা অকৃতকার্য হলেও তাদের কাছ থেকে অতিরিক্ত বেতন নেওয়া যাবে না, 

২. প্রফেশনাল পরীক্ষাভিত্তিক বেতন প্রক্রিয়া চালুকরণ এবং 

৩. বৈশ্বিক মহামারী করোনা চলাকালীন মাসগুলোতে কলেজ বেতন পুনঃনির্ধারণ এবং হোস্টেল ফি পূর্ণ মওকুফ।

স্থগিত হয়ে যাওয়া এমবিবিএস ও ডেন্টাল চূড়ান্ত পর্বের পরীক্ষা নেওয়ার বিষয়ে সম্প্রতি ঘোষণা দেয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন অনুষদ। এর পরিপ্রেক্ষিতে ফরম পূরণ করে পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের লক্ষ্যে শিক্ষার্থীদের নোটিস দেয় কলেজ কর্তৃপক্ষ। শিক্ষার্থীরা জানিয়েছে, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা ও অধিদপ্তরের হুঁশিয়ারি উপেক্ষা করে দেশের অনেক মেডিকেল কলেজে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ষাট মাসের বেশি বেতন আদায় করা হচ্ছে। তারা বলেন, গত ডিসেম্বরে সর্বশেষ টিউশন ফি দেওয়ার কথা থাকলেও তাদের কাছ থেকে এরই মধ্যে মার্চ পর্যন্ত টাকা আদায় করেছে কোনো কোনো মেডিকেল। কোথাও কোথাও অতিরিক্ত টিউশন ফিসহ করোনায় বন্ধ থাকার পরও হোস্টেল ফি প্রদানেরও নোটিস দেওয়া হয়েছে। তবে তা অস্বীকার করে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সরকারি কোনো আইনের ব্যত্যয় ঘটান না তারা।

মেডিভয়েস এর জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্ট গুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  ঘটনা প্রবাহ : আইনি নোটিস
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি