ডা. মো. তাহমিদুল ইসলাম

ডা. মো. তাহমিদুল ইসলাম

সহকারী কমিশনার এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, যশোর

( ৩৭তম বিসিএস প্রশাসনে মেধা তালিকায় তৃতীয়)

সাবেক সহকারী সার্জন (৩৫তম বিসিএস )

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (২০০৮-০৯)


০৮ মে, ২০২০ ০১:২৬ এএম

মাস্ক নিয়ে যে বিষয়গুলো সবার জানা উচিত

মাস্ক নিয়ে যে বিষয়গুলো সবার জানা উচিত
করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে সব শ্রেণি ও পেশার মানুষই মাস্ক ব্যবহার করছেন। ফাইল ছবি

করোনাভাইরাসের সংক্রমণে যেমন হ্যান্ড স্যানিটাইজারের চাহিদা বেড়েছে, পাশাপাশি বেড়েছে মাস্কের চাহিদাও। করোনাভাইরাস দুর্যোগের আগে মাস্ক শুধু চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরাই পরতেন। কিন্তু বাইরে বের হওয়া প্রায় সবাই এখন মাস্ক পরছেন। 

যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) অবলম্বনে আসুন জেনে নিই মাস্ক নিয়ে কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য।

সার্জিক্যাল মাস্ক: সার্জিক্যাল মাস্কের সামনে হালকা নীল আর পেছনে সাদা রংয়ের অংশটি থাকে। WHO অনুযায়ী হালকা নীল রংয়ের অংশটি সামনে, সাদা অংশটি পেছনে মুখের সঙ্গে লাগিয়ে পরতে হবে। যদিও অনলাইনে অনেকে বলে থাকেন সুস্থ অবস্থায় সাদা অংশ সামনে পরতে হবে, কিন্তু এটি সঠিক নয়।
নিয়ম অনুযায়ী, একটি সার্জিক্যাল মাস্ক ২ ঘণ্টার বেশি পরা উচিত নয়, কিন্তু পরিস্থিতি বিবেচনায় একবার পরে অন্তত ২৪ ঘণ্টার চেয়ে বেশি ব্যবহার করা উচিত হবে না।

কাপড়ের মাস্ক: কটন বা পপলিন কাপড় দিয়ে মাস্ক তৈরি করা যেতে পারে। কাপড় ভাঁজ করে দু’পাশে দুটো ফিতে আলাদা করে সেলাই করে নিতে হবে। এই মাস্ক একবারের বেশি ব্যবহার করা উচিত নয়।

N95, R95, KN95 বা সমমানের মাস্ক: মাস্কগুলো সিরিয়ালি নাম্বারিং করতে হবে। ব্যবহারের পরে যাতে রাখা যায় এজন্য প্রত্যেক মাস্ক এর জন্য একটি করে ব্যাগ বা বক্স নির্ধারণ করতে হবে। প্রতিদিন ব্যবহার করে নির্ধারিত ব্যাগ বা বক্সে রাখতে হবে এবং সূর্যের আলোতে/ খোলা জায়গায় (সূর্যের আলো নিয়ে মতান্তর আছে, উজ্জ্বল খোলা জায়গায় রাখাই ভালো) ৭২ ঘণ্টা/ ৯৬ ঘণ্টা রেখে দিতে হবে এবং মাস্কটি ব্যবহারের পঞ্চমদিন থেকে আবার ব্যবহার করা যাবে। এরপর পরবর্তী মাস্ক ব্যবহার করতে হবে এবং সেটিও একইভাবে রেখে দিয়ে পঞ্চমদিন থেকে আবার ব্যবহার করতে হবে। এভাবে অন্তত পাঁচটি মাস্ক লাগবে রোটেশন করে ব্যবহার করতে। 

উল্লেখ্য, একটি মাস্ক পাঁচবারের বেশি ব্যবহার করা উচিত নয়। 

 FFP1,FFP2,FFP3 মাস্কঃ ব্যবহার এবং সংরক্ষণের নিয়ম N95 এর মত।

মাস্ক কোনটা ভালো?

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে আমেরিকায় তৈরি N95 সবচেয়ে কার্যকর (৯৫%)। N95 এর সমমান - চীনে তৈরি KN95, রাশিয়ায় তৈরি R95, ইউরোপে তৈরি FFP2, FFP3 এগুলাও কার্যকর (৯০-৯৫)%। এরপর ধারাবাহিকভাবে FFP1 (৯০%), সঠিকভাবে তৈরি কাপড়ের মাস্ক এবং সার্জিক্যাল মাস্ক (৫০-৭০)%।

মাস্ক ব্যবহারের সাধারণ কিছু নিয়মাবলী

১। মাস্ক পরার আগে - অ্যালকোহল বেজড হ্যান্ডওয়াশ অথবা পানি ও সাবান দিয়ে ভাল করে হাত ধুয়ে নিতে হবে।

২। মাস্ক পরার পর - মাস্ক যেন নাক, মুখ ভালোভাবে ঢাকে তা দেখতে হবে। পরার পর মাস্কে হাত দেয়া যাবে না। মাস্কে হাত দিলে মাস্কে আটকে থাকা জীবাণুরা হাতে লেগে যাবে। সেই হাত থেকেই নাক-মুখের মাধ্যমে অসুখ ছড়িয়ে যেতে পারে।

৩। মাস্ক খোলার সময় - মাস্কের উপরের তলে হাত দিয়ে বা সামনের দিকে ধরে বা টেনে মাস্ক খোলা যাবে না। এতে মাস্কের জীবাণু হাতে লেগে যাবে। আবার হাতে থাকা জীবাণু পুরোটাই লেগে যাবে মাস্কে। পেছন দিক থেকে মাস্কের দড়ি বা ইলাস্টিক ব্যান্ড টেনে মাস্ক খুলতে হবে। একে হাতের জীবাণু দড়িতে লাগলেও তা মুখের কাছাকাছি এসে সংক্রমণ ঘটাতে পারবে না। মাস্ক খোলার পর অবশ্যই ভালো করে ফের সাবান ও হ্যান্ডওয়াশ দিয়ে হাত-মুখ ধুতে হবে।

৪। হাঁচি- কাশিতে মাস্ক বেশি ভিজে গেলে মাস্ক পরিবর্তন করা ভালো।

৫। মাস্ক পরে পানি বা অন্য কিছু খেতে চাইলে মাস্কের দড়ি বা ইলাস্টিক টেনে একপাশ খুলতে হবে এবং খাবার পরে স্যানিটাইজ করা পরিষ্কার টিস্যু দিয়ে মুখ মুছে আবার মাস্ক পরতে হবে, মাস্কের কাপড়ে হাত দেয়া যাবে না।

৬। মাস্ক একবার খুলে কোথাও রেখে পরা উচিত নয়। একেবারে বাসায় এসেই মাস্ক খোলা উচিত।

দাফন করা যাবে পারিবারিক কবরস্থানে

মৃত দেহে তিন ঘণ্টা সক্রিয় থাকে করোনাভাইরাস

দাফন করা যাবে পারিবারিক কবরস্থানে

মৃত দেহে তিন ঘণ্টা সক্রিয় থাকে করোনাভাইরাস

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত