ছৈয়দ আহমদ তানশীর উদ্দীন

ছৈয়দ আহমদ তানশীর উদ্দীন

নার্স ও পুষ্টিবিদ,
বিএসসি ইন নার্সিং (চবি), এমপিএইচ ইন নিউট্রিশন (ইবি)।


০৫ মে, ২০২১ ১০:৫১ এএম

নিরাপদ মাতৃত্ব নিশ্চিতে মিডওয়াইফারিতে বিনিয়োগ জরুরি

নিরাপদ মাতৃত্ব নিশ্চিতে মিডওয়াইফারিতে বিনিয়োগ জরুরি
ছবি: প্রতীকী

ইন্টারন্যাশনাল কনফেডারেশন অব মিডওয়াইভস (আইসিএম) এই বছরের আন্তর্জাতিক মিডওয়াইফ (আইডিএম) দিবসটি ২০২১ সালের ৫ মে উদযাপন করছে। ‘Follow the Data: Invest in Midwife’ অর্থাৎ তথ্য- উপাত্ত অনুসরণ করুন: মিডওয়াইফারিতে বিনিয়োগ করুন এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে আজ বিশ্বব্যাপী একযোগে এটি পালিত হচ্ছে।

মিডওয়াইফ বা ধাত্রীরা যখন কোনো শিশুকে সুস্থভাবে জন্ম নিতে দেখেন তখন তারা খুবই আনন্দিত হন। নেদারল্যান্ডের একজন ধাত্রী বলেন, ‘একটা সুস্থসবল শিশুকে জন্ম নিতে সাহায্য করা ও দেখা সত্যিই আনন্দের।’ 

ইয়োলান্ডা কিলেন-ফান হুফ্ট নামে নেদারল্যান্ডেরই আর একজন ধাত্রী বলেন, ‘শিশুর জন্ম হল বড় বড় আনন্দগুলোর মধ্যে একটা, যা এক দম্পতি ও একজন স্বাস্থ্য কর্মী উপভোগ করতে পারেন। এটা এক বিস্ময়কর ব্যাপার!’ 

যৌন, প্রজনন, মাতৃ, নবজাতক, শিশু এবং কিশোর স্বাস্থ্যের উন্নতি করতে বিশ্বজুড়ে মিডওয়াইফদের গুরুত্বপুর্ণ ভূমিকা রয়েছে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় যেমন unfpa, who, icm সবাই একত্রে হয়েছে মিডওয়াইফ পেশায় বিনিয়োগ করার জন্য এবং এ পেশাটির অগ্রগতি প্রতিফলিত করতে বিশ্বজুড়ে মিডওয়াইফদের সঙ্গে যোগদান করি। এই বছরের থিম সময়োচিত, কারণ আইডিএম ২০২১ স্টেট অব দ্য ওয়ার্ল্ড মিডওয়াইফারি রিপোর্ট প্রকাশের সাথে মিলিত হবে ইউএনএফপিএ, ডব্লিউএইচও এবং আইসিএমসহ নেতৃত্বে সোডব্লিউএমআই। ২০২১ প্রসূতি এবং নবজাতকের স্বাস্থ্যের ফলাফলের উপর ধাত্রীদের প্রভাব এবং ধাত্রীদের বিনিয়োগের ক্ষেত্রে প্রত্যাবর্তনের উপর একটি হালকা প্রমাণ ভিত্তি এবং বিশদ বিশ্লেষণ সরবরাহ করে।

এই প্রস্তাবনার মাধ্যমে, আইসিএম মিডওয়াইফদের মানসম্পন্ন মাতৃ এবং নবজাতকের যত্নের উন্নতি, প্রতিরোধযোগ্য প্রসূতি ও নবজাতকের মৃত্যুর অবসান এবং এসডিজি ৩.১ অর্জনের মৌলিক হিসাবে কেন্দ্রের চলমান এবং ক্রমবর্ধমান প্রচেষ্টার নেতৃত্ব দেবে (বিশ্বব্যাপী মাতৃমৃত্যু অনুপাত হ্রাস করে একলক্ষ  জন্মের  ৭০ শতাংশ এরও কম হবে ২০৩০সালের  মধ্যে)। 

মিডওয়াইফ প্রসবের সময় এবং পরে, প্রতিরোধযোগ্য মৃত্যু বন্ধ এবং টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য (এসডিজি) ৩.১ অর্জনে মৌলিক স্তম্ভ: যার লক্ষ্য গর্ভাবস্থা এবং প্রসবকালীন জটিলতার কারণে বিশ্বব্যাপী মৃত্যুর পরিমাণ হ্রাস করা। যেমন: ২০০০ সালের মধ্যে ১০০,০০০ জীবিত জন্মের ক্ষেত্রে ৭০ শতাংশের কম মৃত্যু হার। 

এই বছরের প্রতিপাদ্যের জাতিসংঘের তহবিলের উপর জনসংখ্যা তহবিলের (ইউএনএফপিএ), ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশনের (ডাব্লুএইচও) সহ-নেতৃত্বাধীন স্টেট অব দ্য ওয়ার্ল্ড মিডওয়াইফারি (সোডাব্লুওয়াই) রিপোর্ট ২০২১ এর প্রবর্তনের সাথে একমত হবে। এবং মিডওয়াইভস আন্তর্জাতিক কনফেডারেশন (আইসিএম)  ইউএনএফপিএ, ডব্লিউএইচও এবং আইসিএমের সাম্প্রতিক সমীক্ষা অনুসারে, মিডওয়াইফগুলোতে বিনিয়োগ করা স্বাস্থ্য ফলাফলের উন্নতি করার একটি ব্যয়বহুল উপায়।

প্রতি পাঁচ বছরে মিডওয়াইফারী খাতে বিনিয়োগ  হস্তক্ষেপে সামান্য পরিমাণে বৃদ্ধির হার ২০২৫ সাল নাগাদ ২২% মাতৃমৃত্যু, ২৩% নবজাতক মৃত্যু এবং ১৪% জন্মসূত্রে বাঁচাতে পারে এবং প্রতি বছর ১.৩ মিলিয়ন জীবন বাঁচাতে পারে।

একইভাবে, প্রতি পাঁচ বছরে মিডওয়াইফারী খাতে বিনিয়োগ  হস্তক্ষেপের ২৫% বাড়ানো কভারেজ প্রতি বছর ২২.২ মিলিয়ন মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচতে পারে এবং সর্বজনীন (৯৯%) কভারেজটি বছরে ৪.৩ মিলিয়ন মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচতে পারে। 

মিডওয়াইফারী খাতে বিনিয়োগ উন্নত প্রজনন স্বাস্থ্য, সবার জন্য অধিকার এবং পছন্দগুলো নিশ্চিত করবে।

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি