১৯ অক্টোবর, ২০২০ ০২:২৫ পিএম

পেশাগত পরীক্ষায় অটোপ্রমোশনের দাবিতে মেডিকেল শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

পেশাগত পরীক্ষায় অটোপ্রমোশনের দাবিতে মেডিকেল শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

মেডিভয়েস রিপোর্ট: প্রাণঘাতী করোনা পরিস্থিতিতে ১ম, ২য়, ৩য় পেশাগত পরীক্ষা (প্রফ) বাতিল করে অটোপ্রমোশন এবং সেশনজট মুক্ত শিক্ষাবর্ষের দাবিতে বিক্ষোভ-মানববন্ধন করছে মেডিকেল ও ডেন্টাল শিক্ষার্থীরা।

আজ সোমবার (১৯ অক্টোবর) সকাল ১০টায় বাংলাদেশ মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিল (বিএমডিসি) কার্যালয়ের সামনে এই কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। এতে সারাদেশের বিভিন্ন মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরা অংশ নেয়।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা জানায়, এমবিবিএস/বিডিএস শিক্ষাব্যবস্থা একটি দীর্ঘমেয়াদী কোর্স। একজন শিক্ষার্থীর ছয় বছর লেগে যায় এমবিবিএস সম্পন্ন করতে। এখন কোভিড-১৯ এর জন্য আমরা আরো পিছিয়ে পড়েছি। ইতিমধ্যে ১ম, ২য়, ৩য় পেশাগত পরীক্ষার শিক্ষার্থীরা মে-২০২০ এর পরীক্ষা মহামারী করোনার কারণে সময় মত অনুষ্ঠিত না হওয়ায় ৮ মাস পিছিয়ে গিয়েছি এবং যার ফলে আমরা ভয়াবহ এক সেশনজটের আশঙ্কা করছি।

তারা বলেন, শিক্ষার্থীদের অনিশ্চিত ভবিষ্যতের কথা ভেবে জেএসসি এবং এইচএসসির মত বিশাল পাব্লিক পরীক্ষাগুলোর পরীক্ষার্থীদেরও অটোপ্রমোশন দেওয়া হচ্ছে। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে সেশনজট এড়াতে অনলাইন ক্লাসের মাধ্যমে পরবর্তী সেমিস্টারের ক্লাস শুরু করা হচ্ছে। যেখানে শীতকালীন করোনার সম্ভাব্য ভয়াবহ পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে সব জায়গায় শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য এবং শিক্ষাজীবনের কথা ভেবে আমাদের তিন দফা দাবি মেনে দেওয়া জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষার্থী জানান, এইচএসসির ফলাফল যদি পরীক্ষা ছাড়াই দিয়ে দিতে পারে তবে প্রফ কেন নয়? সব ব্যাচের আইটেম সব শেষ। শুধু প্রফ এক্সামটাই বাকি ছিলো। আইটেমের ভিত্তিতেই ফলাফল নির্ধারণ করা যাবে। এমনিতেই এমবিবিএস ৬ বছরের। এর মধ্যে আরো সেশনজটে পরে শিক্ষাবর্ষ অনিশ্চিত করতে চাই না। তাই, প্রফ নিয়ে সিদ্ধান্ত চাই না। অটো প্রমোশন চাই।

তিন দফা দাবিগুলো হলো:

১. করোনা মহামারিতে প্রফ নয়, প্রফের বিকল্প চাই।
২. অনতিবিলম্বে সেশনজট দূরীকরণের পরবর্তী ফেজের অনলাইন ক্লাস শুরুর নির্দেশ দেওয়া হোক।
৩.পরীক্ষা ও ক্লাস সংক্রান্ত সকল আদেশের ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার ভিওিতে মেডিকেল শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য ঝুঁকির কথা বিবেচনা করতে হবে।

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি