২৯ জুন, ২০১৮ ১২:৪১ পিএম

ছয়মাস ধরে আইপিএইচের স্যালাইন বন্ধ

ছয়মাস ধরে আইপিএইচের স্যালাইন বন্ধ

মেডিভয়েস রিপোর্ট : কর্মকর্তাদের অবহেলা আর গাফিলতির কারণে গত ছয়মাস ধরে সরকারিভাবে স্যালাইন উৎপাদন বন্ধ রেখেছে জনস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট-আইপিএইচ। প্রতিষ্ঠানটির কিছু অসাধু কর্মকর্তাদের অবহেলার কারণেই নির্ধারিত সময়ে বিদেশ থেকে স্যালাইন উৎপাদনের কাঁচামাল না আনায় এ সংকট দেখা দিয়েছে।

স্যালাইন তৈরির অন্যতম উপাদান গ্লুকোজ এনহাইড্রোস, গ্লুকোজ মনোহাইড্রোস এবং স্টপার টিটি, পিভিসি শিট ইত্যাদি না থাকায় এ উৎপাদন বন্ধ রয়েছে।

আর গত ছয়মাস ধরে স্যালাইন উৎপাদন বন্ধ থাকায় সরকারি মেডিকেল কলেজগুলোতে দেখা দিয়েছে তীব্র সংকট।  স্যালাইন সরবরাহ বন্ধ থাকায় গরীব অসহায় রোগীদের বাইরে থেকে বেশি দামে স্যালাইন কিনতে হচ্ছে।  নতুন করে স্যালাইন তৈরি করতে আরো কয়েক মাস লাগতে পারে বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে মেডিভয়েস থেকে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক ডা.আবুল কালাম মো.আজাদের মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

ইতোমধ্যে বিভিন্ন সরকারি হাসপাতাল থেকে স্যালাইনের চাহিদা চেয়ে পাওয়া যায়নি বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের স্টোর কর্মকর্তা ডা. মশিউর রহমান মেডিভয়েসকে জানান, আইপিএইচের যে পরিমান স্যালাইন দেয়ার কথা সে পরিমান তারা কখনো দিতে পারেন না।  তারা আমাদের চাহিদার সাত থেকে আট ভাগ বেশি যোগান দেয় না। 

জানা গেছে, গত ১০ জুন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ১০০০ ব্যাগ ৫ শতাংশ গ্লু¬কোজ স্যালাইন (১০০০ এমএল), ১৫০০ ব্যাগ ৫ শতাংশ গ্লুকোজ স্যালাইন (৫০০ এমএল), ১০০০ ব্যাগ নরমাল স্যালাইন (১০০০ এমএল), ১৫০০ ব্যাগ কলেরা স্যালাইন (৫০০ এমএল) ও ৫০০ ব্যাগ হার্টম্যান সলিউশন (১০০০ এমএল) চাহিদা দেয়া হয়। চাহিদার বিপরীতে কোনো স্যালাইন সরবরাহ করতে পারেনি আইপিএইচ।

এছাড়া ১০০০ হাজার ব্যাগ অ্যাকোয়া স্যালাইনের (১০০০ এমএল) বিপরীতে ১০০ ব্যাগ, ১৫০০ ব্যাগ অ্যাকোয়ার (৫০০ এমএল) বিপরীতে ২০০ ব্যাগ, ১৫০০ ব্যাগ নরমাল স্যালাইনের (৫০০ এমএল) বিপরীতে ২০০ ব্যাগ, ৫০০ ব্যাগ বেবি স্যালাইনের (৫০০ এমএল) বিপরীতে ১০০ ব্যাগ সরবরাহ করা হয়েছে।  পাশাপাশি ২০০ ব্যাগ ৩ শতাংশ সোডিয়াম ক্লোরাইড স্যালাইনের চাহিদার বিপরীতে ১০০ ব্যাগ সরবরাহ করা হয়।

এছাড়া, ১৯ জুন স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে বিভিন্ন ধরনের স্যালাইনের চাহিদাপত্র দেয়া হলেও শুধু ৫০০ এমএল হার্টম্যান সলিউশন স্যালাইন ২০০ ব্যাগ এবং দুই ধরনের নরমাল স্যালাইন ১০০ ব্যাগ করে সরবরাহ করা হয়। এছাড়া, দেশের অধিকাংশ সরকারি হাসপাতালেই স্যালাইনের সংকট রয়েছে।

অথচ সরকার শুধু স্যালাইন বাবদ প্রতিবছর ৩০ থেকে ৪০ কোটি টাকা বরাদ্দ দেন জনস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটকে।

 

Add
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি