ডা. সাইফুদ্দীন একরাম

ডা. সাইফুদ্দীন একরাম

মেডিসিন বিশেষজ্ঞ


২৪ জুন, ২০১৮ ১০:৪১ এএম
সুপারবাগ এলো কেমন করে?

অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধী ব্যাকটেরিয়ার আবির্ভাব

অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধী ব্যাকটেরিয়ার আবির্ভাব

১৯৫০-এর দশকে অ্যান্টিবায়োটিক প্রায় আনকোরা নতুন। কিন্তু তখনই অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধী ব্যাকটেরিয়ার আবির্ভাব শুরু হয়ে যায়। 

আসলে পেনিসিলিন বাজারে আসার প্রথম চার বছরের মধ্যেই অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধী ব্যাকটেরিয়ার সন্ধান পাওয়া গিয়েছিল। কিন্তু সে সময়ে একের পর এক নতুন অ্যান্টিবায়োটিক বাজারে আসছিল। 

ফলে ১৯৫০ থেকে ১৯৬০-এর দশকের শেষ পর্যন্ত অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধী ব্যাকটেরিয়া নিয়ে তেমন কোন দুশ্চিন্তা ছিল না। কিন্তু ১৯৬০-এর দশকের পরে আর তেমন কোন নতুন অ্যান্টিবায়োটিক আবিষ্কার হয়নি। 

ওষুধ কোম্পানিগুলোও ওই সময়ে অ্যান্টিবায়োটিকের চেয়ে অ্যান্টিভাইরাল ওষুধ আবিষ্কার করার দিকে বেশি নজর দেয়। ১৯৭০ সাল নাগাদ পেনিসিলিন প্রতিরোধী নিউমোনিয়াসহ অনেক যৌনরোগের প্রকোপ দুনিয়াজুড়ে ছড়িয়ে পড়ে। কিন্তু পরবর্তী ৩০ বছরে বস্তুত আর কোন নতুন অ্যান্টিবায়োটিক আবিষ্কৃত হয়নি। 

১৯৯৯ সালে অক্সাজোলিডিনোন গ্রুপের নতুন ধরণের অ্যান্টিবায়োটিক বাজারে এলো। তখন বলা হয়েছিল এই গ্রুপের অ্যান্টিবায়োটিক মাল্টি-রেজিস্ট্যান্ট ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে কাজ করবে। সুতরাং আর কি চিন্তা?

আরও পড়ুন-

►সুপারবাগ কী?

►অ্যান্টিবায়োটিকের স্বর্ণযুগ

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কৈফিয়তনামা

ভুল কাজ করে, ভুল কথা বলে সরকারকে বিব্রত করবেন না

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কৈফিয়তনামা

ভুল কাজ করে, ভুল কথা বলে সরকারকে বিব্রত করবেন না

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা
পিতাকে নিয়ে ছেলে সাদি আব্দুল্লাহ’র আবেগঘন লেখা

তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না
জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের সিসিউতে ভয়ানক কয়েক ঘন্টা

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না