ডা. আদনান সিরাজী

ডা. আদনান সিরাজী

ইন্টার্ন চিকিৎসক, খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল


০৬ জুন, ২০১৮ ০৩:৪০ পিএম

ঢামেকে বছরে ৬৮ হাজার অপারেশন

ঢামেকে বছরে ৬৮ হাজার অপারেশন

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি ডিপার্টমেন্ট এ প্রায় সকল প্রকার সার্জারি হয়। মোট ডাক্তারের সংখ্যা ১০০ জন। গত এক বছরে অপারেশন হয়েছে ৬৮০০০ এর মত। ছুটিছাটা বাদ দিয়ে ২৭০ দিন কর্মদিবস থাকলে প্রতিদিন অপারেশন হয়েছে প্রায় ২৫০টা। তার মানে, প্রতিটা সার্জন দিনে অপারেশন করেছেন ২.৫টার মত। 

 

অন্যদিকে সার্জারির আউটডোরে মোট রোগী দেখা হয়েছে প্রায় ৬ লক্ষ। প্রতিদিন প্রায় ২২০০ এর মত। একজন ডাক্তার দেখেছেন প্রতিদিন ২২ টা রোগী। এবার হিসাব করি টাকার অংক। বলাবাহুল্য, ঢামেক হাসপাতালে আউটডোরে ডাক্তার দেখানোর ফি মাত্র ১০ টাকা। একই রোগী কোন প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানে গেলে বছরে মোট খরচ পড়ত ৬ লক্ষ * ৩০০ টাকা= ১৮ কোটি টাকা।


ঢামেকে মেজর ও মাইনর অপারেশনে খরচ খুবই নগণ্য। প্রাইভেট ক্লিনিকে প্রতিটা অপারেশনে ১০ হাজার টাকা খরচ হলে মোট খরচ আসত ৬৮ হাজার * ১০ হাজারে ৬৮ কোটি টাকা।

সুতরাং গত বছর ঢামেকের সার্জারি ডিপার্টমেন্টের ডাক্তাররা সেবা দিয়েছেন ৮৬ কোটি টাকার। অন্যদিকে তারা বেতন পেয়েছেন ৫০ হাজার *১০০ *১২ মাসে ৬ কোটি টাকা।
লাখ লাখ গরীব মানুষকে সুচিকিৎসা দিয়ে তারা তাদের আয়ের মাত্র ১০ শতাংশ পান বেতন হিসেবে। অথচ লোকজন কিছু ঘটলেই ডাক্তারদের গায়ে হাত তোলে, হাসপাতাল ভাংচুর করে। অথচ পরিসংখ্যান বলে যে, ৯৯% সুচিকিৎসা হলেও বছরে প্রায় ১০০০ জন রোগী ভুল চিকিৎসায় মারা যাওয়ার কথা।

 

কিন্তু ২-৪ জন মারা গেলেই শুরু হয়ে যায় আমাদের হিংস্রপনা। অথচ আমরা একবারও ভাবি না যে, একজন ডাক্তার ৭ দিন অসুস্থ থাকলে তিনি প্রায় ১৪০ জন রোগীর চিকিৎসা ও ১৫ জন রোগীর অপারেশন করতে পারবেন না। একমাত্র পাষণ্ড, অমানুষ ও অকৃতজ্ঞ ব্যক্তির পক্ষেই কেবল সম্ভব এসব সরকারি ডাক্তারদের গায়ে হাত তোলা ও ভাংচুর করা।

 

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি