২৩ মে, ২০১৮ ০৮:১৩ পিএম

জরায়ু-মুখ ক্যান্সার ক্যান্সার প্রতিরোধে চিকিৎসকদের এগিয়ে আসার আহবান

জরায়ু-মুখ ক্যান্সার ক্যান্সার প্রতিরোধে চিকিৎসকদের এগিয়ে আসার আহবান

মেডিভয়েস রিপোর্ট: জরায়ু-মুখ ক্যান্সার ও স্তন ক্যান্সার প্রতিরোধে চিকিৎসকদের এগিয়ে আসার আহবান জানিয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া । বুধবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ে ৬ দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মসূচির সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ আহবান জানান।

এসময় তিনি আরো বলেন, প্রিভেনশন ইজ বেটার দ্যান কিউর। দেশের সকল নারীকে অত্যন্ত প্রয়োজনীয় এ চিকিৎসা সেবা কার্যক্রমের আওতায় আনতে আমরা উদ্যোগ নিয়েছি। এরই ধারাবাহিকতায় সার্ভিক্যাল এন্ড ব্রেস্ট ক্যান্সার স্ক্রিনিং ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে জাতীয় কেন্দ্র স্থাপন প্রকল্পের কার্যক্রম দেশব্যাপী ছড়িয়ে দেওয়ার আহবান জানান তিনি।

ইতিমধ্যে এই প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের মানুষদের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি শুরু হয়েছে, এছাড়া, জরায়ু-মুখ ক্যান্সার ও স্তন ক্যান্সার আগেভাগেই নির্ণয় করা সম্ভব হওয়ায় অনেক মা-বোনের জীবন রক্ষা পাচ্ছে।

এ কর্মসূচীতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়াও ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা, রংপুর, রাজশাহী দেশের ৮টি বিভাগের ৮টি মেডিক্যাল কলেজের ৮ জনসহ গাইনি বিভাগের ১৫ জন শিক্ষক, চিকিৎসক অংশগ্রহণ করেন।
ইস্টাবলিশমেন্ট অফ ন্যাশনাল সেন্টার ফর সার্ভিক্যাল এন্ড ব্রেস্ট ক্যান্সার স্ক্রিনিং এন্ড ট্রেনিং এট বিএসএমএমইউ-এর প্রকল্প পরিচালক অধ্যাপক ডা. আশরাফুন্নেসা বলেন, বাংলাদেশে ৩০ থেকে ৬০ বছরের ২৭ মিলিয়ন নারী রয়েছেন।

যাঁদের জরায়ু-মুখ ক্যান্সার ও স্তন ক্যান্সার প্রতিরোধে সার্ভিক্যাল এন্ড ব্রেস্ট ক্যান্সার স্ক্রিনিং ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে জাতীয় কেন্দ্র স্থাপন প্রকল্পের কার্যক্রমের আওতায় আনা জরুরি। ইতিমধ্যে এই প্রকল্প থেকে দেশের ১.৬ মিলিয়ন নারীকে এ সেবার আওতায় আনা সম্ভব হয়েছে।


অনুষ্ঠানে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ইন্টারন্যাশনাল এজেন্সি ফর রিসার্চ অন ক্যান্সার-এর হেড, স্ক্রিনিং গ্রুপ ডা. পার্থ বসু বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে সার্ভিক্যাল এন্ড ব্রেস্ট ক্যান্সার স্ক্রিনিং ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে জাতীয় কেন্দ্র স্থাপন প্রকল্পটি শুধু বাংলাদেশ নয়, এ প্রকল্পের কার্যক্রম বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত হচ্ছে এবং বিভিন্ন দেশে এ প্রকল্পটি চালু করার ক্ষেত্রে উদাহরণ হিসাবে ভূমিকা রাখবে।

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা
পিতাকে নিয়ে ছেলে সাদি আব্দুল্লাহ’র আবেগঘন লেখা

তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না
জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের সিসিউতে ভয়ানক কয়েক ঘন্টা

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না