ঢাকা      সোমবার ২২, অক্টোবর ২০১৮ - ৬, কার্তিক, ১৪২৫ - হিজরী



মো: গোলাম মোস্তফা

চিকিৎসক ও লেখক


রোগ কথন

করোনারি হার্ট ডিজিজ

ইদানিং প্রায়ই দেখা যাচ্ছে করিম-রহিম অকালেই পরলোকগমন করছে মায়ের কোল খালি করে। বেশির ভাগ এক বা দুই সন্তানের জনক অথবা বিয়ের পিঁড়িতে বসার আগেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ছে।

মানুষ মরণশীল, প্রত্যেক প্রাণীকেই মৃত্যুর স্বাদ নিতে হবে। কিন্তু সেই মরণ যদি হয় অনাকাঙ্খিত বা অকাল মৃত্যু! যে চলে যাবে সেতো যাবেই, সাথে দিয়ে গেল দুর্দশা, কান্নাভরা, মায়াভরা বেদনা। যে পরিবার থেকে চলে গেল, সেই পরিবারটাই বুঝে এর মর্মবেদনা।

কেন এই অকাল প্রয়ণ? বাস্তবিক ভাবে সবারই কাছে কারণ অজানা। শুধু আমরা ডাক্তাররা কিছুটা বুঝি তার হৃদযন্ত্র ক্রিয়া বন্ধ হয়ে অক্কা পেয়েছে।

হ্যাঁ। বন্ধুরা আজকে জানাবো, লক্ষণ ও উপলক্ষণ বা পূর্বে কোন রোগ ছাড়াই মৃত্যুর কারণগুলো ও প্রতিকার।

রোগটির নাম করোনারি হার্ট ডিজিজ অর্থাৎ হঠাৎ করে হৃদপিন্ডের মাংস পেশীতে রক্ত ও অক্সিজেন সাপ্লাই কমে যাওয়া বা বন্ধ হয়ে যাওয়া বা হঠাৎ কার্ডিয়াক ডেথ। এর সাথে কমন আরো রোগগুলো হলো ইসকেমকিক হার্ট ডিজিজ, স্টাবল-আনস্টাবল এনজিনা, মাইয়োকার্ডিয়াল ইনফ্রাকশন, কার্ডিও ভাস্কুলার ডিজিজ।

মেকানিজম:
মূলত কারণ অথেরোসক্লেসিস। সাধারণত আমাদের হৃদপিন্ড থেকে রক্তবহনকারী ধমনীতে অতিরিক্ত ফ্যাট জমার ফলে ধমনীগুলো নেড়ো হয়ে যায় বা কমপ্লিট রক্ত চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে হৃদপিন্ডে রক্ত ও অক্সিজেন অভাব দেখা দেয় এবং হৃদপিন্ড তার কার্যক্ষমতা হারিয়ে ফেলে।

রোগটি বর্তমানে ড্যাঞ্জারাস জোনের ১ নম্বর পজিশনে আছে। প্রতিবছর প্রায় ৯ মিলিয়ন মানুষ মারা যায়।

লক্ষণ:
- হঠাৎ করে বুক ব্যথা, ব্যথাটা ট্যাভেলস হয়ে বাম কাঁধে, বাহুতে, ঘাড়ের পিছন হয়ে চোয়াল পর্যন্ত।
- শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে কষ্ট হওয়া
- বুক ধড়ফড় করা
- বুক জ্বালা পোড়া করা
- প্রচন্ড ঘাম দেয়া
- বিষন্ন ভাব
- বমিবমি ভাব বা বমি হতে পারে
- মাথা ঝিম ঝিম করা বা মাথা ঘুরা
- শরীরের তাপমাত্রা কমে ও বেড়ে যেতে পারে। ইত্যাদি উপসর্গ দেখা দিতে পারে।

 যাদের এরূপ হঠাৎ মৃত্যু হয়:
- অতিরিক্ত রক্ত চাপ (হাই ব্লাড প্রেসার)
- ডায়াবেটিস
- ধুমপান 
- অতিরিক্ত মেদবহুল
- শারিরিক পরিশ্রমের অভাব
- যারা শুধু শুয়ে বসে দিন কাটায়
- অতিরিক্ত ফ্যাট খাবার
- নিদ্রাহীনতা
- দুশ্চিন্তা
- শারিরিক ব্যায়ামের অভাব
- অতিরিক্ত এলকোহল পান
- সম্পর্ণ ডায়েট ককন্ট্রোল 
- কিডনি জনিত রোগ
- পারিবারিক ভাবে
- হাই ব্লাড ক্লোস্টোরল, ইত্যাদি।

Investigation:
- ECG
- Echocardiography
- Coronary angiogram
- Intra vascular ultrasound
- MRI
- Chest x-ray
- Blood for Lipid profile
- RBS
- S.Creatinine

Medication:

- Nidocard spray(Nitroglycerine)- Dialates arterioles reducing afterlood,immediately relif pain.

- Carva 75mg(Aspirin)- Anti-platelet and inhibitis aggregation.

- Anclog 75mg(Clopidogrel)-Activation of glycoprotein GP iib/iiia complex preventing Fibrongen Binding platelet adhesion and aggregation, relif pain.

- Bisocor 5mg(Bisolol)-Beta -B 1 Receptor Blockers.
or calcium channel Blockers

- Rosuva 10mg (Rosuvastatin)-Statins.

- Morphine (Morphine sulphate)-Opiods Receptor Blocking(Acts CNS and smooth muscles)

- Seclo 20mg(Omeprazole)-Proton pump inhibitors.

- Syrup Asynta(Potassium Bicarbonate+Sodium Alginate)-H2 Antagonist.

রেফারেন্স: ডেভিডসন্স গুরু, লিপিনকরট, পিএম আই ডি।

অকাল মৃত্যু প্রতিরোধের উপায়:
- প্রতিদিন কমপক্ষে ১ ঘন্টা শারিরীরিক ব্যায়াম করতে হবে।
- ধুমপান ও এলকোহল পরিহার করতে হবে।
- অতিরিক্ত ফ্যাট জাতীয় খাবার খাওয়া পরিহার করতে হবে।
- উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রনে রাখতে হবে।
- ডায়াবেটিস কন্ট্রোল রাখতে হবে।
- শাক সবজি ও ফলমূল জাতীয় খাবার বেশি খেতে হবে।
- অতিরিক্ত তৈল, মসলা, লবন জাতীয় খাবার কম খেতে হবে।
- অল্প অল্প খাবার বার বার খেতে হবে।
- ডায়েট কন্ট্রোল করতে হবে।
- পর্যাপ্ত ঘুমাতে হবে।
- মাংস, পোলাও, বিরিয়ানি, মিষ্টি জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলতে হবে।
- খাবার সঙ্গে সঙ্গে ঘুমানো থেকে বিরত থাকুন, কমপক্ষে খাবার দুঘন্টা পর ঘুমাতে হবে।
- ডাল, বাদাম জাতীয় খাবার প্রতিদিন অল্প অল্প খেতে পারলে ভাল।
- মাসে একবার আপনার ব্লাড পেসার মাপবেন। বছরে দুইবার আপনার ব্লাড লিপিড প্রোফাইল ও গ্লুকোজ চেক করবেন। সেই অনুযায়ী খাবার রুটিন তৈরি করে নিবেন।
- আদর্শ খাবার সময়- সকালের নাস্তা সকাল ৮-৯টা, দুপুরের ১২-১টা ও রাতের ডিনার রাত ৭-৮টা।
- আঁশ জাতীয় খাবার বেশি খেতে হবে।
- প্রতিদিন কমপক্ষে ৩ লিটার পানি পান করুন।

বি:দ্র: বুক ব্যথা দেখা দিলে দ্রুতই নিকটস্থ সরকারি হাসপাতাল অথবা হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দেখাবেন। কোন অবহেলা করবেন না।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


স্বাস্থ্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

মুলারিয়ান এজেনেসিস: প্রকৃতির অবিবেচক খেয়াল ও প্রমিতির কান্না

মুলারিয়ান এজেনেসিস: প্রকৃতির অবিবেচক খেয়াল ও প্রমিতির কান্না

প্রমিতি, বয়স- ১৬। এইচএসসি ১ম বর্ষে পড়ে। প্রাণবন্ত, উচ্ছ্বল প্রজাপতির মতো। যখন কথা…

বউয়ের জন্য আমার পুলাডার আজ এই অবস্থা!

বউয়ের জন্য আমার পুলাডার আজ এই অবস্থা!

বউয়ের হাওয়া ভাল না, বিয়ের তিনমাস না যেতেই স্বামী অসুস্থ! মন্টু মিয়ার…

প্রি মিনস্ট্রুয়াল সিনড্রোম

প্রি মিনস্ট্রুয়াল সিনড্রোম

আচ্ছা! প্রি মিনস্ট্রুয়াল সিনড্রোম নিয়ে একটু কথা বলি। প্রায় আশিভাগ মেয়েই এই…

ভাগ্যের নির্মম পরিহাস

ভাগ্যের নির্মম পরিহাস

২০১০ সালের জুন মাসে ঘটে যাওয়া নিমতলী ট্র্যাজেডির কথা কি মনে আছে?…

মাথা ব্যথার সাথে বমি মারাত্মক রোগের লক্ষণ!

মাথা ব্যথার সাথে বমি মারাত্মক রোগের লক্ষণ!

একজন ভদ্রলোক (বয়স ৩৫ এর কাছাকাছি) আমাদের ওয়ার্ডে ভর্তি পেটে ব্যথা এবং…

ডায়াবেটিক রোগীর চিকিৎসায় সহায়তা করে গ্লুকোমিটার

ডায়াবেটিক রোগীর চিকিৎসায় সহায়তা করে গ্লুকোমিটার

কয়েকদিন আগে এডমিশন নাইট ডিউটিতে একজন রোগী আসলো অজ্ঞান অবস্থায়। রোগী পার্টি…



জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর