ঢাকা      বুধবার ২২, অগাস্ট ২০১৮ - ৬, ভাদ্র, ১৪২৫ - হিজরী



যোবায়ের মাহমুদ

শিক্ষার্থী, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ। 


প্রফ পরীক্ষা মানেই দুশ্চিন্তা!

পরীক্ষা এলেই ভালো লাগে, এমন কেউ সম্ভবত নেই।  মেডিকেল কলেজে পরীক্ষা মানেই ঝামেলা।  এবং যার সামনে পরীক্ষা, শুধু সে-ই ব্যাপারটা অনুভব করতে পারে।  আবার, পরীক্ষাটার নাম যদি 'প্রফ' হয়, তখন আপনাকে খুব মনোযোগ দিয়ে 'দুশ্চিন্তা' করতে হবে!

কখনো কখনো আমরা ভাবি, 'আচ্ছা, আমরা কবে বড় হবো? কলেজের সবচাইতে জুনিয়র ট্যাগ থেকে কবে মুক্তি পাবো? কবে?'
কিন্তু প্রফ যখন দরজায় কড়া নাড়ছে; রাত পেরিয়ে সকাল এলেই ছুটতে হবে প্রথম পরীক্ষাটায় এ্যাটেন্ড করার জন্য, ঠিক সেই সময়ে আমাদের মনে হয়, 'ধুর! এইসব পরীক্ষা কেন আসে? পরীক্ষা না দিলে হয় না?'

এই কারণেই বলছি, আমরা সবাই আসলে বড় হতেই চাই।  মনেপ্রাণে চাই।  কিন্তু বড় হওয়ার সময় যখন আসে, তখন-ই বুকের ভেতর একটু করে দ্বিধা জাগে, আসলেই কি আমরা এতো বড় হয়েছি? আসলেই?

হ্যাঁ।  বড় হয়ে গিয়েছ।  অনেক বড়।
একটা প্রফ দেবার মত বড়।  একটা ঝড় সামলানোর মত বড়।  এতখানি স্ট্রেস নেবার মত বড়।

যদি খুব বড় রকমের কপাল খারাপ না হয়, আকাশের অবস্থা কেমন থাকে সেটা বলা না গেলেও পরীক্ষার হলের পরিবেশ মোটামুটি ভালোই থাকবে, এটা অবশ্যই বলে দেওয়া যায়।  কাজেই নিজে যতখানি পারা যায়, ততখানি আগে লিখে ফেলা ভাল।  তবে কোন এক গ্রুপের প্রশ্ন অনেক ভালো করে লিখে, অন্য গ্রুপের জন্য কম সময়ে তাড়াহুড়ো যেন না করতে হয়, সেটা অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে।  প্রতি গ্রুপে প্রশ্নের সংখ্যা হিসেব করে, প্রত্যেক প্রশ্নের জন্য একটা এভারেজ টাইম ডিস্ট্রিবিউশন মাথায় রাখাটা খুব জরুরি।

আগামীকাল সকাল থেকেই ফার্স্ট প্রফ শুরু হতে যাচ্ছে।  এখন থেকে হিসেব করলেও একদম কাটায় কাটায় বারো ঘন্টা।  উদ্বিগ্ন সব হৃদয়ের জন্য শুভকামনা। অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে উৎসারিত দু'আ।

আল্লাহ তা'য়ালা আমাদের কষ্টগুলোকে কবুল করে নিন।  আমাদের কষ্টগুলোর উত্তম বিনিময় দিন।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 




জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর