ডা. রাজিকুল ইসলাম

ডা. রাজিকুল ইসলাম

সহকারী রেজিষ্ট্রার

শিশু বিভাগ, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল


২৭ এপ্রিল, ২০১৮ ১১:২৪ এএম
হিংস্রতার শেষ কোথায় ?

রোগীর স্বজন কর্তৃক অধ্যাপক ডা. সানাউল হক লাঞ্ছিত

রোগীর স্বজন কর্তৃক অধ্যাপক ডা. সানাউল হক লাঞ্ছিত

প্রফেসর ডা.সানাউল হক স্যার। বিভাগীয় প্রধান, শিশু বিভাগ, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল। নিজ চেম্বারে আহত হলেন। রোগীর সাথে আগত আত্মীয় কর্তৃক প্রহৃত হলেন। স্যার গত ২৪শে এপ্রিল দেড় বছরের একটি বাচ্চাকে চেম্বারে দেখেন। Diagnosis-Very Severe Pneumonia.প্রেসক্রিপশন করে দ্রুত হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পরামর্শ দেন।

কিন্তু রোগীর অভিভাবক হাসপাতালে ভর্তি না করে বাচ্চাটিকে বাসায় নিয়ে যায়। গতকাল ২৬ তারিখে বিকালে মুমূর্ষু অবস্থায় বাচ্চাটিকে আবারো চেম্বারে নিয়ে আসা হয়। স্যার বাচ্চাটিকে দ্রুত হাসপাতালে রেফার্ড করেন। কিন্তু বাচ্চাটি হাসপাতালে পৌঁছার আগে মারা যায়। এজন্য রোগীর কল্যাণকামী কিছু শুভাকাঙ্খী স্যারের চেম্বার ভাংচুর করল এবং গায়ে হাত তুললো। আমি আপাত দৃষ্টিতে স্যারের কোন দোষ দেখছি না। তবে স্যার প্রথম দিনই তার প্রাইভেট কারে patient এবং patient’s guardian দেরকে হাসপাতালে পৌঁছে দিতে পারতেন!

আমি স্যারের ইউনিটের CA.খুব কাছ থেকে মানুষটিকে দেখে আসছি। ভাল মানুষের সব গুণে তিনি গুণান্বিত। সবার কাছে তিনি সমভাবে সমাদৃত। একজন মাটির মানুষ, একজন আদর্শবান ডাক্তার, একজন প্রফেসর আজ শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত হলেন।

প্রতিবাদের সব ভাষা আজ হারিয়ে ফেলেছি। মানুষরুপী জানোয়ারগুলোর হিংস্রতার শেষ কোথায়?

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত