ইমরান হোসেন

ইমরান হোসেন

শিক্ষার্থী, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ 


১২ এপ্রিল, ২০১৮ ১১:০৬ এএম

চিকিৎসাকে করে তুলি চিকিৎসা শাস্ত্রীয় শিল্পময়!

চিকিৎসাকে করে তুলি চিকিৎসা শাস্ত্রীয় শিল্পময়!

স্কয়ার হাসপাতালে একজন প্রসূতি নারীর মৃত বাচ্চা প্রসবের ঘটনা পরবর্তী ভাইরাল ভিডিওর দরুন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সবাই কমবেশি ব্যথিত।

প্রসূতি মহিলার অভিযোগগুলো খুব মনোযোগ দিয়ে শুনে যেটা মনে হল, ঘটনার সংক্ষেপ করলে যেটা দাঁড়ায়, যথাযথ কাউন্সিলিয়ের অভাব।

খুব স্বাভাবিকভাবেই প্রসবকালীন সময়ে একটি নবজাতকের মৃত্যু হতে পারে। কারণ পাতার পর পাতা লিখা যাবে। কিন্তু রোগীকে সেটা জানাতে হবে।

প্রসববেদনা না উঠলে আমরা যেসব পদ্ধতি অবলম্বন করি, তারমধ্যে একটি অমরা ছিদ্র করে দেয়া। অনেকসময় অক্সিটোসিন ইনজেকশন দেয়া হয়। বাচ্চার পজিশন দেখার জন্য, মাতৃদ্বারের অবস্থা দেখার জন্য মাতৃদ্বার কতটুকু প্রসারিত হয়েছে সেটা দেখা হয় প্রতি ৪ ঘণ্টা পরপর, যাকে আমরা পারভ্যাজাইনাল এক্সামিনেশন বলি।

তবে এসব কিছু প্রসূতি ও ফিটাসের ভালোর জন্যই করি। অনেক সময় মাতৃদ্বার যথেষ্ট পরিমাণ প্রসারিত না হলে, আমরা কেটে প্রসারিত করি, এটাকে এপিসিওটমি বলা হয়।
এসব কিছু প্রসূতি ও তার পরিবারের অনুমতি নিয়েই করা হয়।

ডাক্তারী এথিকসের পাতায় একটি কথা বারবার বলা হয়, রোগীকে কষ্ট দেয়া যাবে না। মেডিকেল ছাত্রদের পরীক্ষার সময় কোনো ছাত্র যদি রোগীকে কষ্ট দেয় বা কোনো রোগী যদি এমন অভিযোগ করেন বা শুধু মুখভঙ্গি দেখে স্যার যদি এটা বুঝতে পারেন রোগীর কষ্ট হচ্ছে, তবে সেই ছাত্র ফেইল করবে এটা সুনিশ্চিত। তাহলে প্র্যাকটিসের সময় কেন একজন ডাক্তার এই নিয়ম অনুসরণ করবেন না। রোগী এমন অভিযোগ কিভাবে করেন!

আমি ঐ মহিলার ভিডিওটি দেখেছি। দেখেছি মৃত বাচ্চা কোলে নিয়ে তাঁর হৃদয় নিংড়ানো আবেগমাখা কথাবার্তা। চিকিৎসা পেশার একজন হয়ে ব্যথিত হয়েছি। একজন মায়ের কান্না আহাজারি কানে বাজছে। তিনি হয়তো মেডিকেলীয় ব্যাপারস্যাপার বুঝবেন না, তাঁর বাচ্চার সমস্যাগুলোও জানেন না, কিন্তু তিনি হাতে পেয়েছেন একটি মরা ফুটফুটে শিশু।

চিকিৎসার পূর্বে আমাদের উচিত সচেতনভাবে একজন রোগীকে জানানো ও বুঝানো। তাহলে হয়তো একজন রোগীর অভিযোগ আশীর্বাদ হবে একদিন।

বাচ্চা মারা যাওয়া যে স্বাভাবিক এটা পৃথিবীর কোনো মাকে কোনো ভাষায়ই বুঝানো সম্ভব নয়। তবে কেন এমন হয় সেটা জানানো খুবই জরুরী।

আসুন চিকিৎসাকে করে তুলি, চিকিৎসা শাস্ত্রীয় শিল্পময়!

আরও পড়ুন-

মেডিকেল সাইন্সের মডিফিকেশন সময়ের দাবী

কনগ্রেচুলেশন্স: চাঁদের হাসি আনলেন যারা

একজন মেডিকেল শিক্ষার্থীর অব্যক্ত আকুতি

ঢাবি, ঢাবিয়ান ও চিকিৎসা

কাটা হাত প্রসঙ্গ : জয়তু চিকিৎসা বিজ্ঞান

মেডিভয়েসকে বিশেষ সাক্ষাৎকারে পরিচালক

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে শতাধিক করোনা বেড ফাঁকা

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা
পিতাকে নিয়ে ছেলে সাদি আব্দুল্লাহ’র আবেগঘন লেখা

তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না
জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের সিসিউতে ভয়ানক কয়েক ঘন্টা

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না