ঢাকা      বুধবার ১৮, জুলাই ২০১৮ - ৩, শ্রাবণ, ১৪২৫ - হিজরী

প্রতিদিন একটি আপেল কমাবে হৃদরােগ এবং স্ট্রোক ঝুঁকি

ব্রিটিশ মেডিক্যাল জার্নালে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা বলেছেন হৃদস্বাস্থ্যের জন্য আপেল ওষুধের মতােই উপকারী। তাছাড়া, এর কোনাে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও নেই।  তারা বলছেন, আপেল খেয়ে ডাক্তার দূরে রাখার এ মন্ত্র বিশেষত পঞ্চাশাের্ধদের জন্যই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, এ বয়সের মানুষদেরই হার্ট অ্যাটাক কিংবা স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি।

যুক্তরাজ্যের গবেষকদের নতুন এক গবেষণায় বলা হয়েছে, পঞ্চাশাের্ধ মানুষেরা প্রতিদিন একটি করে আপেল খেলে বছরে ৮ হাজার ৫শ’ জন হৃদরােগ এবং স্ট্রোক থেকে প্রাণে বাঁচতে পারে ।

পঞ্চাশাের্ধ মানুষদের জন্য কোলেস্টেরল কমানাের ওষুধ কিংবা দিনে একটি আপেল খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে গবেষকরা হার্ট অ্যাটাক এবং  স্ট্রোকে মৃত্যুর সাধারণ কারণগুলাের ওপর এর প্রভাব বিশ্লেষণ করেছেন বলে জানায় বিবিসি।

দেখা গেছে, ওই পরামর্শ মেনে চলা প্রতি ১০ জনে অন্তত ৭ জনের ক্ষেত্রে ওষুধ সেবনে বাঁচানাে সম্ভব ৯ হাজার ৪শ’ প্রাণ। আর দিনে একটি আপেলে বাঁচানাে সম্ভব ৮ হাজার ৫শ’ প্রাণ। হাজার হাজার রােগীর ওপর পরীক্ষামূলক চিকিৎসা এবং পর্যবেক্ষণের মধ্য দিয়ে এ তথ্য  বেরিয়ে এসেছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

থাই গুহায় শিশুদের সঙ্গে থাকা চিকিৎসকের দুঃসংবাদ!

থাই গুহায় শিশুদের সঙ্গে থাকা চিকিৎসকের দুঃসংবাদ!

থাইল্যান্ডে বেড়াতে গিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার একজন চিকিৎসক রিচার্ড হ্যারিস। এরই মধ্যে তিনি খবর…

আক্রান্ত মেডিকেল কলেজ

আক্রান্ত মেডিকেল কলেজ

১৮৪ বছরের পুরোনো এশিয়ার প্রাচীনতম কলকাতা মেডিকেল কলেজকে নিয়ে চলছে রাজনৈতিক স্বার্থের…

পরীক্ষা নিরীক্ষা ছাড়াই রোগ নির্ণয় করে চিকিৎসা দিবে স্মার্ট রোবট!

পরীক্ষা নিরীক্ষা ছাড়াই রোগ নির্ণয় করে চিকিৎসা দিবে স্মার্ট রোবট!

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন একটি ‘চ্যাট বট’ চালু করেছে ব্রিটিশ স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠান ব্যাবিলন হেলথ।…

বেশি সন্তান জন্ম দিলেই পুরস্কার

বেশি সন্তান জন্ম দিলেই পুরস্কার

চীনের উত্তর-পূর্বের লিয়াওলিং প্রদেশে জনসংখ্যার ঘাটতি মোকাবেলায় বেশি সন্তান জন্ম দিলে দম্পতিদের পুরস্কার দেওয়ার…

আরো সংবাদ














জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর