ডা. তারাকী হাসান মেহেদী

ডা. তারাকী হাসান মেহেদী

মেডিকেল অফিসার, বিসিএস (স্বাস্থ্য)।


২৮ মার্চ, ২০১৮ ১০:৪৫ এএম

বিসিএস পরীক্ষায় বসার যোগ্যতা

বিসিএস পরীক্ষায় বসার যোগ্যতা

বিসিএস এ প্রিলিমিনারি, লিখিত ও মৌখিক এই তিন ধাপে নিরীক্ষণ ও মূল্যায়ন হয়। বিসিএস এর যেকোনো ব্যাচ এর বিজ্ঞপ্তি থেকে নিয়োগ পর্যন্ত কম বেশি ২ বছর লেগে যায়। তাই পুরো সময়টাতে যথেষ্ট মানসিক শক্তি না থাকলে, ভেঙ্গে পড়ার সম্ভাবনা থাকে। নিজেকে সাপোর্ট দিতে হবে নিজেকেই। বিসিএস এর জন্য আপনার একাগ্রতা, একান্ত ইচ্ছাই পারে আপনাকে এগিয়ে নিতে। তাই বিসিএস পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার আগে জেনে নিন কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য।

বিসিএস প্রশ্নোত্তর:

১. আমি এবার অনার্স বা এমবিবিএস ফাইনাল পরীক্ষা দিলাম, রেজাল্ট হয় নি। তাহলে কি বিসিএস দিতে পারব?

- জ্বি হ্যা, পারবেন।

বিধি অনুসারে, কেউ যদি স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় হতে এমন কোন পরীক্ষায় অবতীর্ণ (appear)হন, যেটা পাশ করলে তিনি বিসিএস পরীক্ষা দেওয়ার যোগ্যতা অর্জন করবেন। তাহলে তিনি বিসিএস পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

তবে, এক্ষেত্রে আবেদন পত্র জমাদানের শেষ তারিখের মধ্যে তার সকল লিখিত পরীক্ষা শেষ হতে হবে। (বিধি ১৪/২, বিসিএস বিধিমালা ২০১৪)

সে হিসেবে সার্কুলারে উল্লিখিত ফরম ফিলআপের শেষ দিনের মধ্যে কারো যদি লিখিত পরীক্ষা শেষ হয়। ভাইভা, প্র‍্যাক্টিকাল বাকিও থাকে, তবুও সে বিসিএস পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে।

তবে প্রতিষ্ঠান প্রধানের কাছে থেকে একটা লিখিত প্রত্যয়নপত্র নিতে হবে যাতে আপনার লিখিত পরীক্ষা শুরু ও শেষ হওয়ার তারিখ উল্লেখ থাকবে।

২. ভাইভা পরীক্ষার সময় আমার ইন্টার্নশিপ চলবে। তাহলে কি আমি ভাইভা দিতে পারব?

- বর্তমান যে বিধিমালা রয়েছে, সে অনুযায়ী পারবেন।

বিসিএস বিধিমালা ২০১৪ এর তফসিল ১ ক্রমিক ১৪ অনুসারে, বিসিএস স্বাস্থ্য ক্যাডারদের পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার জন্য যে যোগ্যতা উল্লেখ রয়েছে, তাতে আছে এমবিবিএস, বিডিএস বা সমমানের ডিগ্রি (বিএমডিসি স্বীকৃত)।

ইন্টার্নশিপ শেষের বিষয়টা বিধিমালার কোথাও উল্লেখ নেই।

কারণ, বিসিএস একটি দীর্ঘ প্রক্রিয়া। সার্কুলার দেওয়ার পর থেকে যোগদান করতে প্রায় দুই বছরের মত সময় লাগে। ততদিনে যারা ফাইনাল পরীক্ষায় অবতীর্ণ হিসেবেও বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষা দেয়, যোগদানের সময় তাদের ইন্টার্নশিপ শেষ হয়েও প্রায় বছর খানেক পার হয়ে যায়।

তবে, দ্রুত সময়ে জরুরী ভিত্তিতে যদি বিসিএসের মাধ্যমে ডাক্তার নিয়োগ দেওয়া হয়। তবে ইন্টার্নশিপ শেষ হতে হবে কি না, সে বিষয়ে কোন বিধি এখনো তৈরি হয়নি। 

এই বিধি সংশোধন বা ভিন্ন কোন আদেশ জারি না হওয়া পর্যন্ত আগের নিয়মই চলবে।

তবে যাই হোক না কেন, আমি ব্যক্তিগতভাবে চাইব, যাদের আগ্রহ আছে তারা যেন প্রথম থেকে শুরু করে এবং যতদুর পর্যন্ত যেতে পারে, যেতে থাকবে। এর পরেরটা পরের বিষয়।

আমার এক পরিচিত ছেলে আছে। সে ডাক্তার হওয়া সত্ত্বেও বিভিন্ন ব্যাংক নিয়োগ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করত। ব্যাংকের পরীক্ষার সবচেয়ে বড় সুবিধা হল ফি লাগে না। বিনামূল্যে পরীক্ষা দেওয়া হল, নিজেকে যাচাইও করা হল।

বিসিএস হল একটি প্রচেষ্টা। একটু চেষ্টা করলে, সময় দিলে, ডেডিকেটেড হলেই সফল হওয়া সম্ভব।

তাছাড়া বিসিএসে না টিকলেও, বিসিএসের যে সিলেবাস ও প্রস্তুতি, তা যদি কেউ সম্পন্ন করে তাহলে সে অনেক কিছু সম্পর্কে জানতে পারবে, তার আত্মবিশ্বাসও বাড়বে।

নিজেকে সবসময় দেশ ও বিশ্ব সম্পর্কে আপডেট রাখলে যেকোনো পরিবেশ, পরিস্থিতিতে নিজেকে সহজ ও সুন্দরভাবে প্রেজেন্টও করতে পারবেন, যা জীবনের সকল ক্ষেত্রেই চলতে ফিরতে কাজে লাগবে।

এটা মনে রাখবেন, কোন শেখাই বৃথা যায় না। এক সময় না এক সময় কাজে লাগেই। যত বেশি শিখবেন,জানবেন,তত বেশি আত্মবিশ্বাসী হবেন। এই আত্মবিশ্বাসী হওয়াটা অনেক জরুরী।

আর সব সময় ধৈর্যশীল ও বিনয়ী হওয়ার চেষ্টা করবেন। আগ্রাসী মনোভাব বা অহংকারীদের জন্য থাকে ধ্বংস, আর ধৈর্যশীল বিনয়ীদের জন্য সফলতা।

লিখেছেন- Dr. Taraki Hasan Mehedi 
              BCS (Health)

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা
পিতাকে নিয়ে ছেলে সাদি আব্দুল্লাহ’র আবেগঘন লেখা

তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না
জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের সিসিউতে ভয়ানক কয়েক ঘন্টা

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না