২৭ মার্চ, ২০১৮ ০১:৪৫ পিএম

বাংলাদেশের চিকিৎসা নিয়ে অপপ্রচার: একজন আইনজীবীর দৃষ্টিতে

বাংলাদেশের চিকিৎসা নিয়ে অপপ্রচার: একজন আইনজীবীর দৃষ্টিতে

সবসময় বলি এবং এটাই বাস্তব যে জাতি হিসেবে আমরা একেবারেই নিম্নস্তরের। এখানকার সাংবাদিকরাই হলো সকল বিষয়ে বিশেষজ্ঞ। নয়তো চিকিৎসাশাস্ত্র বিষয়ক বিন্দুমাত্র জ্ঞান না রেখে এদেশের চিকিৎসকদের নিয়ে একের পর এক মিথ্যাচার করে যাচ্ছে কিভাবে? 

নাহ, আমিও ডাক্তার নই। তবে এক অসুস্থ এবং পরবর্তীতে একি কারণে মারা যাওয়া সন্তানের পিতা।

এইদেশের সরকারী, বেসরকারী, আধাসরকারী হাসপাতালে দীর্ঘ দুই বছর বাচ্চা নিয়ে ঘুরে যে অভিজ্ঞতা হয়েছে তা একটু বলব। 

চট্রগ্রামের একুশে হাসপাতাল, সার্জিস্কোপ থেকে ইউএসটিসি সবখানেই আমার মেয়ে ভর্তি ছিল। সবচেয়ে ভাল সার্ভিস পেয়েছি ইউএসটিসিতে। 

এছাড়া ঢাকায় হার্ট ফাউন্ডেশন এবং পরবর্তীতে আল হেলালে সার্জারীর পরের দিন সে মারা যায়। অথচ একদিন আগেও ডাক্তার বলেছিলেন ভয় পাবার কিছু নেই। এরকম সার্জারীতে আমরা বেশিরভাগ সফল হই। তবে আমার একটা অভ্যাস হলো যে কোন রোগের বিষয়ে পড়াশোনা করার। 

টেট্রালজি অফ ফ্যালট সার্জারীর মাধ্যমে কারেকশন হয় আবার যে কোন মুহূর্তে কার্ডিয়াক এরেস্টও হতে পারে যা আমার মেয়ের হয়েছিল। সবচেয়ে বড় কথা হায়াত দেয়ার মালিক তো আল্লাহ। এখন আমার কি করার ছিল? এটা মেনে নেয়া নাকি ডাক্তারকে গিয়ে কলার ধরে বলা গতকাল মিথ্যা বলে আমার এতলক্ষ টাকার সার্জারী বিল করলে কেন?

ভাই, একটু কমনসেন্স তো থাকা দরকার। অস্বাভাবিক অবস্থায় থাকা মরা বাচ্চাকে পেট থেকে কেটে বের না করলে মা মরার চান্স থাকে। যে সাবজেক্ট নিয়ে লিখবেন তা নিয়ে একটু গুগলে হলেও সার্চ দিয়ে দেখেন। বিশ্বের বড় বড় ডাক্তারদের আর্টিকেল পাবেন।

আমি তো আমার মেয়ের জন্য ভেন্ট্রিকল, আর্টারী, ভেন্ট্রিকুলার সেপটাল ডিফেক্ট, পালমোনারী স্টেনোসিস সব মূখস্থ করে ফেলেছিলাম। আপনাদের একটি লিখায় যখন দেশের সব মানুষের ভিতর শোরগোল পড়ে যাবে এমন একটি বিষয়ে লিখতে হলে কি ন্যূনতম দায়িত্ববোধ থাকা উচিত নয়?

নাকি পার্শ্ববর্তী কেউ আপনাদের বলে দিয়েছে যে এভাবে লিখুন যাতে রোগীরা কেবল ঐপাড়ের চিকিৎসাতেই সন্তুষ্ট হয় এবং মরার সময়ও যেন চোখেমুখে মহাতৃপ্তি নিয়ে দাদার পানে পটলচেরা নয়নে তাকিয়ে পটল তোলে। 

পাঁচ বছরে গাধার খাঁটুনির পর হয় এমবিবিএস তাও সবাই পাশ করে না। তারপর পেটেভাতে ইন্টার্নের পর, বিনাবেতনে অনাহারী মেডিকেল অফিসার। ততদিনে অন্য বিষয়ের সহপাঠীরা রীতিমত বাচ্চা ফুটানো শুরু করেছে। ভাল খারাপ সবখানে আছে। কিন্তু একটি মহান পেশার বিরুদ্ধে এভাবে প্ল্যানমাফিক রিপোর্টিংয়ের মানে কি? 

আমার লেখাটি যতজনের কাছে পৌছাবে আমি অনুরোধ করব আপনারা আপনাদের দৃষ্টিকোণ থেকে প্রতিটি পেশার সাথে চিকিৎসক পেশাটিকে মিলিয়ে দেখুন। আর চিন্তা করুন এখানে দূর্নীতির সুযোগ কতটা আছে। 

ওহ হ্যাঁ, আমি কিন্তু চিকিৎসক নই, আইনজীবী। আর এই বিষয়ে লিখার জন্য আমাকে কেউ ফি দেয় নাই। 

লিখেছেন: Raheel A Rahman

Lawyer and Ambassador in Bangladesh at theShukran

Studied at University of Chittagong

সিন্ডিকেট মিটিংয়ে প্রস্তাব গৃহীত

ভাতা পাবেন ডিপ্লোমা-এমফিল কোর্সের চিকিৎসকরা

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা উপেক্ষা

অতিরিক্ত বেতন নিচ্ছে একাধিক বেসরকারি মেডিকেল

প্রস্তুতির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

অক্টোবর-নভেম্বরে ২য় ধাপে করোনা সংক্রমণের শঙ্কা

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা
পিতাকে নিয়ে ছেলে সাদি আব্দুল্লাহ’র আবেগঘন লেখা

তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না
জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের সিসিউতে ভয়ানক কয়েক ঘন্টা

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না