ঢাকা      সোমবার ২২, অক্টোবর ২০১৮ - ৬, কার্তিক, ১৪২৫ - হিজরী



ডা. কামরুল হাসান সোহেল

কার্যকরী সদস্য, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ


হতাশাকে প্রশ্রয় না দিয়ে নিজেকে ভালবাসুন

মেডিক্যাল কলেজে যার চান্স পায় তাদের প্রায় সবাই নিজ নিজ স্কুল, কলেজের শীর্ষ মেধাবী ছাত্রছাত্রী। তাদের একাডেমিক রেজাল্ট সবসময়ই ঈর্ষণীয় থাকে। ফেল বা পরীক্ষায় খারাপ করা তাদের ডিকশনারিতেই থাকেনা।

তারাই মেডিক্যাল কলেজে চান্স পেয়ে মেডিক্যাল সায়েন্স পড়তে গিয়ে এক্সামে (আইটেম, কার্ড, টার্ম ফাইনাল, ইয়ার ফাইনাল, প্রফ) যখন ফেল করে বা এক্সামে খারাপ করে ফেলে তখন চরম বিষন্নতায় ভুগে। তার কাছে নিজেকে অর্থহীন মনে হয়, অপদার্থ মনে হয়, তাকে দিয়ে জীবনেও মেডিক্যালের পড়াশুনা হবেনা, ডাক্তার হওয়া হবেনা, সে এইটার যোগ্যই না এইসব হতাশা গ্রাস করে তাকে।

বিষন্নতা খুবই মারাত্মক ব্যাধি, দীর্ঘদিন বিষন্নতায় ভুগে কেউ কেউ আত্মহননের পথকে বেছে নেয়। যা কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়, এইভাবে একটি জীবনের অবসান কাম্য নয়, একটি স্বপ্নের অপমৃত্যু মেনে নেয়া যায় না।

মেডিক্যাল কলেজগুলোতে সাইকোলজিস্ট নিয়োগ দেয়া উচিৎ। যারা বিষন্নতায় ভুগবে, হতাশায় ভুগবে তাদের সাইকোলজিস্টদের কাছে পাঠানো উচিৎ। সাইকোলজিস্টের কাউন্সেলিং এ হয়তো সে তার বিষণ্ণতা, হতাশা কাটিয়ে উঠতে পারবে। নতুন করে জীবনের লক্ষ্য খুঁজে পাবে, জীবনককে ভালবাসতে শিখবে, নিজেকে ভালবাসতে শিখবে। তাহলে আর অকালে ঝরে যাবেনা একটি তাজা প্রাণ, একটি স্বপ্নের অপমৃত্যু হবে না।

মেডিক্যাল সায়েন্স এ ফেল করা খুবই স্বাভাবিক, এইখানে পাস করাটা নিজের মেধা, শ্রম ও ভাগ্যের উপর নির্ভর করে। তবে মেডিক্যাল সায়েন্সে শেষপর্যন্ত সে ই সফল হয় যে ধৈর্য ধারণ করে, অধ্যবসায়, নিষ্ঠা আর শ্রম দিতে পারে। এইখানে সবাই সফল হয়, কেউ হয়তো কিছুদিন আগে সফল হয়, কারো হয়তো কিছুটা সময় বেশি লাগে। যে লেগে থাকবে সে আজ না হয় কাল সফল হবেই। তাই এক্সামে খারাপ করার কারণে বিষণ্ণতায় ভুগা, হতাশায় ভুগার কোন কারণ নেই। সেই হতাশা থেকে আত্মহত্যা করা খুবই দু:খজনক। তুমি আজ ব্যর্থ হয়েছ কিন্তু কাল তুমি ঠিকই সফল হবে। তাহলে কেন নিজেকে শেষ করে ফেলার মতো সিদ্ধান্ত নেয়া এবং তা করে ফেলা?

মনে রাখতে হবে, "মেঘ দেখে কেউ করিসনে ভয়, আড়ালে তার সূর্য হাসে।" মেডিক্যাল সায়েন্স যত কঠিনই মনে হোক একদিন তুমিও পাস করে যাবে, একজন সম্ভাবনাময় ডাক্তার হবে,হবেই আজ না হয় কাল। তাই বিষণ্ণতা বা হতাশাকে প্রশ্রয় না দিয়ে নিজেকে ভালবাসুন, নিজের স্বপ্ন পূরণের জন্য অধ্যবসায়, নিষ্ঠা ও শ্রম চালিয়ে যাও, সফল একদিন তুমি হবেই।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


সম্পাদকীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিদেশে ডাক্তারি পড়তে গেলে যেসব সমস্যার সম্মুখীন হবেন

বিদেশে ডাক্তারি পড়তে গেলে যেসব সমস্যার সম্মুখীন হবেন

প্রিয় বন্ধুগণ বাংলাদেশের মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা শেষ। অনেকেই সরকারি মেডিকেল কলেজে চান্স পেয়েছেন আর…

গুগলে সার্চ দিয়ে রোগের লক্ষণ জানার আগে যা জানা উচিত

গুগলে সার্চ দিয়ে রোগের লক্ষণ জানার আগে যা জানা উচিত

প্রায় সবার হাতের নাগালে ইন্টারনেটের সুবিধা চলে আসায় আমরা অনেকেই অসুস্থ হলে…

‘অধিকার অর্জন করতে হলে আন্দোলনের পথে হাঁটো’

‘অধিকার অর্জন করতে হলে আন্দোলনের পথে হাঁটো’

৭ অক্টোবর চিকিৎসক সম্মিলনীতে সরকার প্রধান বুঝিয়ে দিলেন– ‘অধিকার অর্জন করতে হলে…

শব্দযুদ্ধ?

শব্দযুদ্ধ?

ভদ্র মোরা, শান্ত বড়ো, পোষ-মানা এ প্রাণ বোতাম-আঁটা জামার নীচে শান্তিতে শয়ান।" …

আরো সংবাদ














জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর