ডা. তানজিয়া নাহার তিনা

ডা. তানজিয়া নাহার তিনা

চর্ম ও যৌনরোগ বিশেষজ্ঞ, বাংলাদেশ স্কিন সেন্টার


২০ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১১:৪৮ পিএম

যত্নে থাকুক শিশুর ত্বক

যত্নে থাকুক শিশুর ত্বক

কুয়াশাচ্ছন্ন সকাল-বিকাল নিয়ে চলে এসেছে শীতকাল। তাই আবহাওয়া এখন ঠান্ডা। বইছে শীতের শুষ্ক হাওয়া। এই সময় বড়দের পাশাপাশি শিশুদের ত্বকেও দেখা দেয় শুষ্কতা। তাই সমস্যা এড়াতে শিশুকে ঝরঝরে রাখতে প্রয়োজন একটু বাড়তি যত্ন। যেহেতু আবহাওয়া শুষ্ক তাই শিশুর ত্বকও হয়ে পড়ে শুষ্ক এবং রুক্ষ। তবে শুষ্কতার ভয়ে ঘন ঘন লোশন বা তেল ব্যবহার করা উচিত নয়। এতে করে ত্বকের যে স্বাভাবিক ছিদ্রগুলো রয়েছে তা সঠিকভাবে কাজ করতে পারে না। এতে আশঙ্কা থাকে সংক্রমণের। তাই একটি নির্দিষ্ট সময় পরপর ময়েশ্চারাইজার লাগাতে হবে। কারণ, ত্বকের শুষ্কতা চুলকানিসহ নানা চর্মরোগের জন্ম দেয়। শিশুদের ত্বকের যত্নে অলিভ অয়েল কিংবা ভ্যাসলিন লাগানো যেতে পারে। বেছে নিতে পারেন কোনো ভালো মানের বেবি লোশন।

 

সাধারণত শীতে গোসলে গরম পানি ব্যবহার করা হয়। তবে সেই পানি যেন বেশি গরম না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। মৃদু গরম পানিতে শিশুকে গোসল করাতে হবে। গোসলের পরপরই ময়েশ্চারাইজার লাগানো খুব জরুরি। গোসলের জন্য গ্লিসারিনযুক্ত সাবান বা বেবি ক্লিনজার ব্যবহার করা ভালো।

 

শীতে পোশাকের দিকে বিশেষ লক্ষ্য রাখতে হবে। ভারী শীতের কাপড় পড়ানোর আগে সুতি হালকা কোন পোশাক পড়ানো ভালো। এতে শিশুর ঘেমে সর্দি-কাশি হওয়ার আশঙ্কা থাকে না এবং শিশু থাকে স্বস্তিতে। শীতে বাইরের যত্নের পাশাপাশি শিশুকে পুষ্টিকর মৌসুমি শাক-সবজি ও ফল খাওয়াতে হবে। প্রচুর পানি পান করাতে হবে। এতে ত্বকের আর্দ্রতা বজায় থাকবে। তবে অনেকেই শিশুদের ত্বকের যত্নে সরিষার তেল ব্যবহার করে থাকেন, যা একদম ঠিক নয়। সরিষার তেল ত্বকের জন্য অস্বস্তিকর হতে পারে। তাই এই তেল ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে হবে। এই শীতে সুস্থ ও সুন্দর থাকুক আপনার শিশু।

সূত্র: ইত্তেফাক

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে