ঢাকা      শনিবার ১৫, ডিসেম্বর ২০১৮ - ৩০, অগ্রাহায়ণ, ১৪২৫ - হিজরী



ডা. সাদ সুলতান

এফসিপিএস ফাইনাল পার্ট (ইএনটি)


ইএনটি পার্ট ওয়ান পাশের আদ্যোপান্ত

বর্তমানে ইএনটি সার্জারির ক্ষেত্রে এক নব বিপ্লব সাধিত হয়েছে। ইএনটি মানে আজ শুধু টনসিলেকটমি ও সেপ্টোপ্লাস্টি নয় বরং ইএনটি আজ ফেস (FESS), মাইক্রো ইয়ার সার্জারি, হেড নেক সার্জারি, লেজার সার্জারি, স্কাল বেস সার্জারিসহ নানা সৃজনশীলতায় মুখর।

এফসিপিএস ইএনটি পার্ট ওয়ান একটু টেকনিক্যাল। তবে পরিশ্রমের সাথে সামান্য কৌশলের সংযোগ ঘটালেই সাফল্য সুনিশ্চিত।

এফসিপিএস পার্ট ওয়ান পরীক্ষায় ৩টা পেপার থাকে। পরপর ৩ দিনে ৩টা পরীক্ষা দিতে হয়। এই আর্টিকেলে আমি পেপারভিত্তিক প্রস্তুতির খুঁটিনাটি তুলে ধরার চেষ্টা করবো।

 

পেপার ওয়ানঃ

প্রথম পেপারে অ্যানাটমি ও বায়োস্ট্যাট থাকে। হাতে পর্যাপ্ত সময় থাকলে Dutta Head Neck ও Snell এর Neuroanatomy পড়া উচিত। তবে কার্যকরী পদক্ষেপ হিসেবে বলব BD Chaurasia থেকে Head Neck এবং Brain & Eyeballটা পড়ে ফেলা। ভলিউম থ্রিতে দুটি টপিক একই সাথে থাকায় এটি সব সময় সাথেও রাখা যায়। নিয়মিত Netter এর অ্যাটলাস দেখতে ভুল করা যাবে না। এতে Conception হবে ঝকঝকে তকতকে। বিগত সালের প্রশ্নগুলো আজিজে পাওয়া যায়। অবশ্যই এবং অবশ্যই সেগুলো Solve করতে হবে। এছাড়া Embryology’র জন্য Langman এর Head Neck চ্যাপ্টার অথবা Dutta’s Embryology পড়ে ফেলতে হবে।

Thorax ও Superior Extremity’র জন্য বিগত সালের প্রশ্নগুলো সলভ করাই যথেষ্ট। Basic Histology’র যে কোন Writer এর গাইড পড়লেই হবে। এছাড়া Dhingra ও Synopsis এর Chapter এর শুরুর Anatomy টুকু পড়ে ফেললে এগিয়ে যাবেন অনেকদূর। Biostatistics এর জন্য বিগত সালের প্রশ্নের Topic গুলো পড়াই যথেষ্ট।

 

পেপার টুঃ

এই পেপারেই ফেল এর সম্ভাবনা বেশি। এক্ষেত্রে Synopsis বইটির অধ্যায়ভিত্তিক Physiology অংশের একটা অক্ষরও বাদ দেয়া যাবে না। Dhingra’র অধ্যায় ভিত্তিক Physiology, দিলীপ স্যারের দাগানো বই কিংবা Genesis এর শিট যেকোন একটি পড়লেই চলবে। তবে CVS, Respiratory, Endocrine, Nervous System এই চার সিস্টেম সবার আগে আয়ত্তে আনতে হবে। এছাড়া Roddie পুরোটা না পারলেও Special Sense করতে হবে ঝাড়া মুখস্ত।

এছাড়া এ পেপারে আছে Pharmacology। Basic GP(General Pharma), Anaesthesia, Antihistanine ও Antibiotic অধ্যায়গুলো বেশ গুরুত্বপূর্ণ।

বিগত বছরের প্রশ্নগুলো সলভ না করে পরীক্ষার হলে যাওয়া ঠিক হবে না।

 

পেপার থ্রীঃ

দুদিন পরীক্ষা দেবার পর পরীক্ষার্থীরা একটু ক্লান্ত থাকে। তাই আগে থেকেই এই পেপারের প্রস্তুতি নিতে হবে।

General Patho ও Microbiology’র জন্য দিলীপ স্যারের বই/Genesis এর শিট পর্যাপ্ত। Microbiology’র যে সব Organism ঘাড়ের উপরে Infection করে শুধু সেগুলো পড়লেই হবে।

Systemic pathology’র জন্য Dhingra’র কমন ডিজিজ গুলো আগে দেখে ফেলতে হবে। Synopsis দেখলে আরও ভালো।

বিগত পরীক্ষার প্রশ্ন গুলো সলভ করে ফেলতে হবে আগে আগে।

 

এভাবেই একজন বিলাসী ডাক্তার, নাক কান গলা বিভাগের একজন বিশেষজ্ঞ হবার ক্ষেত্রে এগিয়ে যেতে পারেন। পরিকল্পিত, নিয়মিত ও ব্যাপক অধ্যয়নই এক্ষেত্রে সাফল্যের চাবিকাঠি। কোন শর্টকাটের চিন্তা না করে এখনই মূল বইপত্র পড়া শুরু করতে হবে। সবার সাফল্যময় জীবন কামনা করছি।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


আরো সংবাদ














জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর