আরণ্যক রিদোয়ান

আরণ্যক রিদোয়ান

৫৪ তম এমবিবিএস, সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ। 


০৯ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১০:৫০ এএম

অ্যাডাম রেইনার : একজন বামনের দানব হওয়ার গল্প

অ্যাডাম রেইনার : একজন বামনের দানব হওয়ার গল্প

"Acromegaly" এবং "Dwarfism" মেডিকেল সেক্টরে অতি পরিচিত দুটি শব্দ। সহজভাষায় দুটি রোগ একে অন্যের সম্পূর্ণ বিপরীত তবে আমাদের আজকের গল্প এমন একজন কে নিয়ে যিনি মেডিকেল ইতিহাসে একমাত্র ব্যক্তি হিসেবে “giant” এবং “dwarf” দুটি উপাধি ই পেয়েছেন।

অ্যাডাম রেইনার (Adam Rainer):

তিনি ১৮৯৯ সালে অস্ট্রিয়ায় গ্রাজে জন্মগ্রহণ করেন। বাবা মা এবং সৎ ভাই নিয়ে এডামের পরিবারের অন্য সকল সদস্যই ছিলেন স্বাভাবিক উচ্চতার মানুষ, অ্যাডাম এর যখন ১৮ বছর বয়স তিনি সেনাবাহিনীতে যোগদানের আবেদন করেন। স্বভাবতই মেডিকেল টেষ্টে সম্মুখীন হতে হয় তাকে। মেডিকেল টেষ্টের রিপোর্টে ছিল এডাম সেনাবাহিনী তে যোগদানের জন্য অতিরিক্ত খাটো। শারীরিক ভাবে সম্পূর্ণ সুস্থ হওয়া সত্ত্বেও কেবল উচ্চতার জন্য সেনাবাহিনীতে যোগদান করতে পারেননি অ্যাডাম। এ সময় তার উচ্চতা পরিমাপ করা হয় মাত্র ১২২.৫ সেমি.(৪ ফুট. ২৫ ইঞ্চি) Dwarfism এর সঙ্গানুযায়ী ১৪৭ সেমি. (৪ ফুট ১০ ইঞ্চি) এর কম উচ্চতা বিশিষ্ট পূর্ণবয়স্ক মানুষকে Dwarfism এ আক্রান্ত ধরা হয়। সে হিসেবে অ্যাডামকে ডাক্তার তখন একজন “Dwarf” হিসেবে চিহ্নিত করেন।

১৯২০ সাল অর্থাৎ এডাম এর ২১ বছর পর্যন্ত তিনি আগের মতো ই খাটো এবং শুকনা ছিলেন। এরপরই নাটকীয় কিছু পরিবর্তন আসে তার জীবনে। বেশিরভাগ সাধারণ মানুষেরই যে বয়সে বৃদ্ধি থেমে যাওয়া শুরু করে সে বয়সে অ্যাডাম হঠাৎ করেই খুব বেশি মাত্রায় লম্বা হওয়া শুরু করলেন। মাত্র ১০ বছরের ব্যবধানে এডামের উচ্চতা ৪ ফিট. ২৫ ইঞ্চি থেকে বেড়ে ৭ ফিট ২ ইঞ্চিতে পৌঁছায়। সম্পুর্ণ নতুন এ সমস্যার সম্মুখীন হয়ে প্রথমে ডাক্তারগণ হতবুদ্ধি হয়ে পড়েন। অতিরিক্ত লম্বা হওয়া ছাড়া ও Acromegaly র অন্যান্য উপসর্গ যেমন হাত ও পায়ের পাতা প্রসারিত হওয়া- কপাল উচু এবং বাকা হওয়া ইত্যাদি ও এডামের মাঝে প্রকাশ পায়। এ সময় তার হাত এবং পায়ের পাতার দৈর্ঘ পরিমাপ করা হয় যথাক্রমে ৯.৮ ইঞ্চি এবং ১৩.১ ইঞ্চি।! বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ডাক্তার সিদ্ধান্তে পৌছান যে অ্যাডামের এই Acromegaly' র জন্য দায়ী তার পিটুইটারি গ্রন্থিতে বেড়ে ওঠা টিউমার।

 

স্বাস্থ্যের ক্রমাবনতি :

হঠাৎ লম্বা হওয়া শুরুর কিছুদিন পর থেকেই এডাম এর স্বাস্থ্য ক্রমশ খারাপ হওয়া শুরু করে।১৯২৬ এর দিকে এডামের স্পাইনাল কর্ড প্রকট ভাবে বাকা হওয়া শুরু করে। ডান চোখ কর্মক্ষমতা হারাতে শুরু করে এবং দশ বছরের মধ্যে প্রায় পুরোপুরি নষ্ট হয়ে যায়। এক ই সময়ে অ্যাডাম বাম কানের শ্রবণক্ষমতা হারান। 

১৯৩০ এর ডিসেম্বরে ডা. মেন্ডেল এবং ডা. উইন্ডহোলজ অ্যাডামের পিটুইটারি গ্রন্থি টিউমার এর অপারেশন করেন। যদিও এ অপারেশনে এডামের অস্বাভাবিক বৃদ্ধি থেমে যায় নি বরং তা অল্প মাত্রায় হ্রাস পায়। এ সময় তার স্পাইনাল কর্ডের সমস্যা আরো প্রকট আকার ধারণ করে। 

অ্যাডাম তার জীবনের বাকি সময় গুলো শয্যাশায়ী হয়ে কাটাতে বাধ্য হন। তার উচ্চতা বৃদ্ধি তবু ও থেমে থাকেনি। ১৯৫০ সালে তিনি মারা যাওয়ার সময় উচ্চতা পরিমাপ করা হয়েছিল ৭ ফুট ৮ ইঞ্চি। এখনও পর্যন্ত অ্যাডাম রেইনারের এ বামন থেকে দানব হওয়ার গল্প একেবারেই অনন্য।

তথ্যসূত্র :
https://www.historicmysteries.com/adam-rainer-dwarf-giant/
https://en.m.wikipedia.org/wiki/Adam_Rainer

 

 

সিন্ডিকেট মিটিংয়ে প্রস্তাব গৃহীত

ভাতা পাবেন ডিপ্লোমা-এমফিল কোর্সের চিকিৎসকরা

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা উপেক্ষা

অতিরিক্ত বেতন নিচ্ছে একাধিক বেসরকারি মেডিকেল

প্রস্তুতির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

অক্টোবর-নভেম্বরে ২য় ধাপে করোনা সংক্রমণের শঙ্কা

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত