ডা. বাহারুল আলম

ডা. বাহারুল আলম

প্রখ্যাত পেশাজীবী নেতা


২০ নভেম্বর, ২০১৭ ০১:২৭ পিএম

ভারতীয় চিকিৎসকদের প্রতিবাদ ইস্পাত কঠিন ও ক্ষুরধার

ভারতীয় চিকিৎসকদের প্রতিবাদ ইস্পাত কঠিন ও ক্ষুরধার

আমাদের মত একই রাজনৈতিক, প্রশাসনিক প্রতিকূল অবস্থার মধ্যেও ভারতীয় চিকিৎসকদের প্রতিবাদ ইস্পাত কঠিন ও ক্ষুরধার। তারা আন্দোলনের প্রয়োজনে জরুরি বিভাগ সহ বহির্বিভাগ, আন্তঃবিভাগ, অপারেশন- মুহূর্তেই বন্ধ করে দেয়।

চিকিৎসকের অধিকার, মর্যাদা ও নিরাপত্তার বিষয়ে ভারতের কিংবদন্তী চিকিৎসক ডা. দেবী শেঠী-র কর্ণাটকের আন্দোলনরত চিকিৎসকদের সাথে একাত্মতা ঘোষণা, স্বীয় মালিকানাধীন নারায়না হাসপাতাল সম্পূর্ণ বন্ধ রাখা, রাজপথে অংশগ্রহণ ও বক্তব্য প্রদানের জন্য তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা, কৃতজ্ঞতা, শুভেচ্ছা ও ভালবাসা।

ভারতের কর্ণাটকে নাগরিকদের যে অংশ চিকিৎসক তারাই প্রতিবাদীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে। বাংলাদেশের নাগরিকদের যে অংশ চিকিৎসক প্রায় একই ধরনের স্বাস্থ্য আইনের বিরুদ্ধে ভারতীয় চিকিৎসকদের মত প্রতিবাদী হতে দেখা যায়নি। কর্ণাটকের চিকিৎসকরা যে প্রতিবাদের ঐক্য গড়ে তুলেছেন- তা অসাধারণ ও প্রশংসনীয়। এ নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলন চিকিৎসকদের জন্য প্রয়োজন ও অত্যন্ত স্বাভাবিক।

অতীতেও ভারতীয় চিকিৎসকদের রাষ্ট্র ও রাজ্যের অধিকার, মর্যাদা বিরোধী আইন প্রণয়নের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে দেখা গেছে। তাদের আন্দোলনের প্রধানতম বৈশিষ্ট্য ইস্পাত কঠিন ঐক্য ও দৃঢ়তা। আন্দোলন চলাকালীন সময়ে বিভেদ, ভিন্নমত ও বিভ্রান্ত হতে দেখা যায় না। আমাদের মত একই রাজনৈতিক, প্রশাসনিক প্রতিকূল অবস্থার মধ্যেও তাদের প্রতিবাদ থাকে ক্ষুরধার। জরুরি অজরুরি, বহির্বিভাগ, আন্তঃবিভাগ, অপারেশন আন্দোলনের প্রয়োজনে মুহূর্তেই বন্ধ করে দেয়।

ওদেশের সরকার (রাষ্ট্র ও রাজ্য) চিকিৎসকদের আন্দোলনের মুখে সদা তটস্থ ও চাপে থাকে। নাগরিকদের পক্ষে চিকিৎসক সংগঠন সরকার ও তার প্রশাসনের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়। মাত্র ক’দিন পূর্বে দিল্লীর পরিবেশ বিপর্যয়ে জনগণের পক্ষে ইন্ডিয়ান মেডিকেল এসোসিয়েশন তাদের সরকারকে হুঁশিয়ার করে দিয়েছে। অপরদিকে আমাদের দেশের চিকিৎসক সংগঠনকে জনস্বার্থে কখনই সরকারকে হুশিয়ার করতে দেখা যায় না।

আমরাই কেবল পারি না মানবিকতার নানা অজুহাতে। তাই বাংলাদেশের চিকিৎসকরা ভুক্তভোগী, লাঞ্ছিত, বঞ্চিত ও অধিকারহীন। আমাদের দেশের দেবী শেঠী-রা রাষ্ট্রের তোষামোদি, পদলেহী বিধায় তরুণরা আন্দোলনে উৎসাহ, আস্থা ও ভরসা পায় না।

বাংলাদেশের চিকিৎসকদের কর্ণাটকের চিকিৎসকদের কাছ থেকে অনেক শিক্ষণীয় আছে। তার একটি- “চিকিৎসা দুর্ঘটনা কোন ফৌজদারি (criminal ) অপরাধ নয় এবং চিকিৎসকরা ফৌজদারি আসামিও নয়”। 

উগান্ডার চিকিৎসকরাও বেতনের দাবীতে আন্দোলনের যে ঐক্যের উদাহরণ সৃষ্টি করেছে , সেখান থেকেও আমরা অনুপ্রাণিত হতে পারি। বাংলাদেশের চিকিৎসকদের আন্দোলন বিশ্বের বিভিন্ন দেশের চিকিৎসকদের অধিকার আন্দোলনের তুলনায় একেবারেই তলানিতে অবস্থান করছে।

 

সিন্ডিকেট মিটিংয়ে প্রস্তাব গৃহীত

ভাতা পাবেন ডিপ্লোমা-এমফিল কোর্সের চিকিৎসকরা

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা উপেক্ষা

অতিরিক্ত বেতন নিচ্ছে একাধিক বেসরকারি মেডিকেল

প্রস্তুতির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

অক্টোবর-নভেম্বরে ২য় ধাপে করোনা সংক্রমণের শঙ্কা

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত