সোমবার ২০, নভেম্বর ২০১৭ - ৬, অগ্রাহায়ণ, ১৪২৪ - হিজরী



ডা. আবু শিহাব

বিসিএস (স্বাস্হ্য)

এফসিপিএস (ফাইনাল পার্ট), মেডিসিন

এমডি ফেস-বি (এন্ড্রোক্রাইনোলজি), বিএসএমএমইউ

 

 

 


ডাক্তারদের কষ্ট নিভৃতে কাঁদে

ডাক্তারদের সাফল্যের কথা গুলো কখনোই মিডিয়াতে আসবে না। এগুলো নিভৃতে কাঁদে। ছবিটি আমার মোবাইলে ২০১০ সালে উঠানো।

গাছ থেকে পাতা পাড়তে উঠে হাত পিছলে পড়ে যায় অন্য একটি ডালের উপরে। এক পাশের বগল দিয়ে ঢুকে অন্য পাশের ঘাড় দিয়ে বের হয়ে যায় ডাল। বাঁচার আশা ছেড়েই দিয়েছিল দরিদ্র এই ছেলেটি।

ই এন টি বিভাগে নাইট ডিউটিতে থাকার সময় আমার ভাগ্যে এই রোগীর সফল অস্ত্রপাচারে অংশগ্রহনের সুযোগ হয়েছিল।

প্রায় ১০ জন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক এর সারা রাতের নির্ঘুম পরিশ্রমের পর বেঁচে যায় ছেলেটি।

কোন মিডিয়া এই খবর ছাপায় নি। কারন এতে তাদের কোন মুনাফা নেই। আজ ল্যাপটপ ঘাটতে যেয়ে পুরাতন কিছু ছবির মাঝে চোখে পড়লো ছবিটি।

কিভাবে সম্ভব হয়েছিল এই জটিল অপারেশন টি? কারো কি কোন ধারনা আছে?

আমরা জি এ দিয়ে রোগীকে অজ্ঞান করতে পারিনি কারন ট্রাকিয়া কম্প্রেসড থাকায় ইনটিউবিশন করা সম্ভব হয়নি, ডাল টা ট্রাকিয়ার সামনে থাকায় ট্রাকিওস্টমিও করা যাচ্ছিল না।

সুতরাং লোকাল এনেস্থেশিয়া দিয়েই কাজ করতে হয়েছে আমাদের।

৩ টুকরা করে আমরা ডালটা অপসারন করি। প্রথমে ঘাড়ের বাম দিকের ডাল টুকু কেটে ফেলা হয়। এর পর ভেসেল পালপেট করে করে স্কিন ইনসিসন দিয়ে আমরা গলার সামনের অংশ এক্সপোজ করি। ভয় পাচ্ছিলাম কোন গ্রেট ভেসেল ইনজুরি হয়ে গেলেই শেষ। অনেক বেশি রিস্ক নিয়ে ফেলেছিলাম আমরা। কারণ ঢাকায় আসার মত গাড়ি ভাড়াও ছিল না দরিদ্র এই ছেলেটির। অনেক সময় নিয়ে সাবধানে আমরা গলার সামনের পুরা ডালটুকু এক্সপোজ করে ফেলি এবং ডান দিকের ঘাড় পর্যন্ত ডালের অংশটা কেটে ফেলে দিই। এখন থাকে শুধু বগল থেকে ঘাড় পর্যন্ত অংশটুকু। এক্সিলা তে ইন্সিসন দিয়ে এক্সপোজ করার পর টান দিয়ে বের করে ফেলি ডালটির বাকি অংশটুকু। হা প্রথমে বিশ্বাস না হলেও বেঁচে যায় ছেলেটি।

এই ছিল একজন দরিদ্র ছেলেকে বাঁচানোর জন্য কয়েকজন চিকিৎসক ( কসাই!) এর রাতভর পরিশ্রমের ইতিহাস।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

বার পঠিত



আরো সংবাদ




কিছু মানুষের ভাল না থাকার গল্প

কিছু মানুষের ভাল না থাকার গল্প

১৪ নভেম্বর, ২০১৭ ১২:৫৭

দ্যা ডিসেকশন অব ড্রাকুলা

দ্যা ডিসেকশন অব ড্রাকুলা

১২ নভেম্বর, ২০১৭ ১৭:১৩

একজন ডাক্তার পিলার্দোর কথা

একজন ডাক্তার পিলার্দোর কথা

১২ নভেম্বর, ২০১৭ ১২:৪৭










High blood pressure redefined for first time in 14 years: 130 is the new high

১৯ নভেম্বর, ২০১৭ ১৯:৪৬


New global commitment to end tuberculosis

১৯ নভেম্বর, ২০১৭ ১৯:৩১


























জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর