০৯ নভেম্বর, ২০১৭ ১০:২৯ এএম

সঠিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা না থাকায় হুমকির মুখে জনস্বাস্থ্য

সঠিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা না থাকায় হুমকির মুখে জনস্বাস্থ্য

ক্রমবর্ধমান নগরায়নের ফলে সঠিক উপায়ে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বর্তমানে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। এজন্য সঠিক উপায়ে বর্জ্য ব্যবস্থাপনার অভাবে দেশের পরিবেশ ও জনস্বাস্থ্য হুমকির সম্মুখীন বলে অভিযোগ করেছেন পরিবেশবাদীরা। এ কারণে বর্জ্য অপসারণে নিয়োজিত কর্মী ও নগরবাসীদের স্বাস্থ্য ঝুঁকিও ক্রমাগত বেড়ে চলেছে বলে মনে করেন তারা। পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা) ও গ্রামবাংলা উন্নয়ন কমিটির যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভায় পরিবেশবাদীরা এসব কথা বলেন।

‘বাংলাদেশের পৌর বর্জ্য সম্পদ ব্যবস্থাপনার আইনি কাঠামো ও বর্জ্যজীবীদের জীবন’ শীর্ষক একটি আলোচনা সভায় বক্তরা আরও বলেন, ইতোমধ্যে পরিবেশ অধিদফতর কর্তৃক সঠিকভাবে বর্জ্য ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যে একটি খসড়া বিধিমালা প্রণয়নের কাজ চলছে। আর এমন প্রেক্ষাপটে বর্জ্য ব্যবস্থাপনার বর্তমান আইনি কাঠামো ও খসড়া বিধিমালা বিষয়ে সুশীল সমাজসহ বিভিন্ন পেশার নাগরিকদের সুনির্দিষ্ট ও সুুচিন্তিত মতামত প্রয়োজন বলে তারা অভিমত ব্যক্ত করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সংসদের পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত স্ট্যান্ডিং কমিটির সভাপতি ড. মোহাম্মদ হাছান মাহমুদ। তিনি তার বক্তব্যে সিটি কর্পোরেশনের বিকেন্দ্রীকরণের লক্ষ্যে যথাযথ ও আশু পদক্ষেপ গ্রহণের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

পবার চেয়ারম্যান আবু নাসের খান বলেন, সিটি কর্পোরেশনের এলাকাভিত্তিক পৌর জৈব বর্জ্যকে বায়োগ্যাস ও জৈবসারে রূপান্তর করার ফলে কৃষিজমির জৈব পদার্থের ঘাটতি পূরণের মাধ্যমে জমির ঊর্বরতা শক্তি বৃদ্ধি করা সম্ভব যা কৃষিজমির পুষ্টির পুনঃচক্রায়ন করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এতে করে নগরের জ্বালানি খাতের খরচও সাশ্রয়ী হবে। সেই সঙ্গে সিটি কর্পোরেশনের আয় বৃদ্ধি, ও বাজেটের সাশ্রয়ী হবে।

আবু নাসের খানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন গ্রামবাংলা উন্নয়ন কমিটির নির্বাহী পরিচালক এ কে এম মাকসুদ। তিনি তার মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনায় বিভিন্ন দেশের ভালো উদাহরণসমূহকে অনুসরণ করার মাধ্যমে ভবিষ্যতে বর্জ্যবিহীন সমাজ গড়ে তোলা সম্ভবপর বলে সুপারিশ করেন। তিনি আইনি কাঠামোতে সুনির্দিষ্টভাবে কী কী থাকা প্রয়োজন সে বিষয়সমূহ গুরুত্বের সঙ্গে তুলে ধরেন।

সভায় অন্যান্য অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পবার সাধারণ সম্পাদক আবদুস সোবহান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. লেনিন চৌধুরী, সহ-সম্পাদক ব্যারিস্টার নিশাত মাহমুদ, গ্রামবাংলা উন্নয়ন কমিটির সহ-সভাপতি ইমতিয়াজ রসুল, পরিচালক খন্দকার রিয়াজ হোসেন, পরিবেশ অধিদফতরের উপপরিচালক আবুল কালাম আজাদ, বাংলাদেশ পরিবেশ সাংবাদিক ফোরামের খায়রুজ্জামান কামাল, বিশিষ্ট সাংবাদিক প্রমুখ।

 

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত