ডা. মোঃ মাকসুদ উল্যাহ্‌

ডা. মোঃ মাকসুদ উল্যাহ্‌

চিকিৎসক, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল


৩০ অক্টোবর, ২০১৭ ১১:৩৩ এএম

এতসব অসভ্যতা, অপমানের মধ্যে ডাক্তারি করা যায় কিভাবে?

এতসব অসভ্যতা, অপমানের মধ্যে ডাক্তারি করা যায় কিভাবে?

যারা নতুন করে ডাক্তারি পাশ করছো, তারা বিদেশে চলে যাও। সেখানে ডাক্তারি করার উপযুক্ত পরিবেশ আছে। বিদেশে গবেষণারও সুন্দর পরিবেশ আছে। আছে সম্মান ও সম্মানজনক জীবিকা। বিদেশে অনেক বাংলাদেশি ডাক্তার আছে। তাদের বিরুদ্ধে সেদেশের মানুষদের কোনো অভিযোগ নেই। যোগ্যতা, আচার আচরণ, মানবিকতা কোনো দিক থেকেই সেদেশের মানুষদের কোনো অভিযোগ নেই বাংলাদেশি ডাক্তারদের বিরুদ্ধে।

আজ ঢাকা মেডিক্যালে যা ঘটেছে, তারপর এ দেশের মানুষদের জন্য গাধার খাটুনি খাটার কোনো মানে হয় না।

এ দেশের একশো জন লোকের মধ্যে অন্তত ৯৫ জন লোকই অকৃতজ্ঞ। এদেশের প্রশাসন রাজনীতিবিদসহ সবাই ডাক্তারদের সাথে কাপুরুষতা করে। সবাই তাদের নিজেদের দুর্নীতি ঢাকার জন্য ডাক্তারদের দিকে অঙ্গুলি হেলায়।

এদেশে ভবঘুরে লোকেরা ডাক্তারের বিরুদ্ধে মিথ্যা কাহিনী বানিয়ে ফেসবুকে ছেড়ে দিলে বাকিরা তাদেরকে এক ঘন্টায় সেলিব্রেটি বানিয়ে দেয়! এতসব অসভ্যতা, অপমানের মধ্যে ডাক্তারি করা যায় কিভাবে?

এদেশের মানুষেরা ডাক্তারদেরকে তাদের কর্মজীবনে গ্রেড ওয়ান অফিসার হতে দেয় না। এদেশে ইন্টার পাসের পর ছয় বছর শিক্ষাজীবন এবং ইন্টার্নী শেষে সরকারি চাকুরিতে ডাক্তারদেরকে দেয়া হয় ৯ম গ্রেড, আর মেট্রিকের পর চার বছরের কোর্স করা লোকদেরকে দেয়া হয় ১০ ম গ্রেড!

মোটকথা ডাক্তারদেরকে এদেশে দ্বিতীয় শ্রেনীর নাগরিক করে রাখা হয়েছে! এদেশের প্রশাসন যেভাবে অগ্রসর হচ্ছে তাতে এমবিবিএস ডাক্তারেরা ভবিষ্যতে তৃতীয় শ্রেনীর নাগরিকে পরিনত হবে!

তাই নতুন পাস করা এমবিবিএস ডাক্তারেরা হয় বিদেশে গিয়ে সম্মান মর্যাদার সাথে ডাক্তারি করুন, না হয় বিসিএস দিয়ে পররাষ্ট্র, প্রশাসন, পুলিশ ইত্যাদি ক্যাডারে গিয়ে ন্যায় প্রতিষ্ঠায় আত্মনিয়োগ করুন।

 

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত