ঢাকা বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ৭ কার্তিক ১৪২৬,    আপডেট ১ ঘন্টা আগে
১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১৫:২৭

মানব সম্পদ উন্নয়ন সূচক : ১৩০টি দেশের মধ্যে ১১১তম বাংলাদেশ

মানব সম্পদ উন্নয়ন সূচক : ১৩০টি দেশের মধ্যে ১১১তম বাংলাদেশ

ওয়ার্ল্ড ইকনমিক ফোরাম প্রতিবছরের মতো এবারো ‘গ্লোবাল হিউম্যন ক্যাপিটাল রিপোর্ট-১০১৭ প্রকাশ করেছে’। সেখানে ১৩০টি দেশের মধ্যে এই সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান এ বছর নেমে এসেছে ১১১তম অবস্থানে। ২০১৬ তে বাংলাদেশ ছিলো ১০৪তম। দুই বছর আগে ২০১৫ সালেও ৯৯তম অবস্থানে ছিলো বাংলাদেশ।

বুধবার প্রকাশিত এই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, শিক্ষা খাতে দুর্বলতার কারণে বাংলাদেশ মানব সম্পদ উন্নয়নের সূচকে ক্রমান্বয়ে পিছিয়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে প্রাথমিক শিক্ষার মান খুবই দুর্বল। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর তুলনায় আপাতদৃষ্টিতে শিক্ষার মান ভালো মনে হলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক পর্যায়ে শিক্ষা অনেক নিম্নমানের। খুব স্বল্প বিষয়ে এ ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞ তৈরি হচ্ছে। তাছাড়া কর্মসংস্থান উপযোগী শিক্ষা ব্যবস্থার মধ্যে বড় ফারাক রয়েছে। সূচকে বাংলাদেশের চেয়ে ভালো অবস্থানে রয়েছে শ্রীলঙ্কা, ভারত ও নেপাল। বাংলাদেশ থেকে পিছিয়ে রয়েছে শুধু পাকিস্তান। সূচকে ভারত ১০৩তম অবস্থানে। দক্ষিণ এশিয়ায় সবচেয়ে ভালো অবস্থানে রয়েছে শ্রীলংকা ৭০তম। এছাড়া নেপাল রয়েছে ৯৮তম অবস্থানে। বাংলাদেশের চেয়ে পিছিয়ে রয়েছে পাকিস্তান ১২৫তম অবস্থানে।

মূলত জনসংখ্যার সঙ্গে সাক্ষরতার হার, প্রাথমিক, মাধ্যমিক, উচ্চশিক্ষাসহ কারিগরি শিক্ষার বর্তমান অবস্থার বিভিন্ন দিক ছাড়াও কর্মসংস্থান উপযোগী শিক্ষা ব্যবস্থা এবং দক্ষতার বিষয়গুলো বিবেচনায় নিয়ে এই সূচক তৈরি করা হয়েছে। একটি দেশের মানব সম্পদের পরিস্থিতি নিয়ে নীতি নির্ধারকদের ধারণা দেওয়া এবং অন্যান্য দেশের সঙ্গে নিজেদের অবস্থা তুলনা করতে এই সূচক সাহায্য করবে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে গত এক প্রজন্ম ধরে ভারতে শিক্ষা ব্যবস্থার অনেক উন্নতি হয়েছে। তবে জনসংখ্যা বিবেচনায় পাকিস্তান ও বাংলাদেশের শিক্ষা ও দক্ষতা পরিস্থিতি অনেক নিচে রয়েছে। দু’দেশেরই কর্মসংস্থানে নারী-পুরুষ ব্যবধান অনেক বেশি। ভারত এক্ষেত্রে শিক্ষার মানে অনেক এগিয়ে রয়েছে।

 

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত