১২ অগাস্ট, ২০১৭ ০৯:৫৯ পিএম

চিকুনগুনিয়া

চিকুনগুনিয়া

আমাদের দেশে ইস্যুর কোনো অভাব নাই। চার দিকে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে হরেক কিসিমের ইস্যু। তারই নতুন সংযোজন চিকুনগুনিয়া নামক ব্যাধি। এই চিকুনগুনিয়ার বাহানা দেখিয়ে আমরা একে অন্যকে কত কিছুই না বলে বেড়াচ্ছি!

নির্বাচনে হেরে যাওয়ার পর
হেরে যাওয়া রাজনৈতিক দল বলছে, এ নির্বাচন আমরা মানি না। চিকুনগুনিয়ায় আক্রান্ত থাকায় আমাদের অনেক ভোটার ভোট দিতে আসতে পারেনি। তাই আমরা পুনরায় চিকুনগুনিয়া মুক্ত নির্বাচন চাই।

শাকসবজির আড়তদার
চাষিদের গণহারে চিকুনগুনিয়া হওয়ায় চাষাবাদ বন্ধ। বাজারে মাল কম। তাই মালের দাম চড়া। এ দাম কমার সম্ভাবনা নাই।

প্রেমিককে ছ্যাঁকা দেয়ার জন্য প্রেমিক
দেখো সোনা, অনেক হইছে ভালোবাসাবাসি। তুমি এখন চিকুনগুনিয়ায় আক্রান্ত। তোমার সাথে থেকে আমিও চিকুনগুনিয়ার ভাগিদার হতে চাই না। তাই আমাদের সম্পর্ক আজ এখানেই শেষ!

রাস্তার বেহাল দশা দেখতে এসে সিটি মেয়র
আমার কী দোষ! চিকুনগুনিয়া ছাড়ে না আমায়। এত দিন আমার ছিল। এখন আমার সিটি করপোরেশন কর্মীদের ধরেছে। এ অভিশাপ থেকে মুক্তি পেলে, আমরা রাস্তা মেরামতের কাজ দ্রুত শুরু করে দেবো ইনশাল্লাহ!

সিটিং বাসের ভাড়া বাড়িয়ে কন্ডাক্টর
চার দিকে চিকুনগুনিয়ার মহামারী। তাই গাড়ি কম। ভাড়া ডাবল। ভাড়া দিলে দেন। না দিলে নাইমা গিয়া রোদের মইধ্যে খাড়ায়া থাকেন।

বাংলা সিনেমার ভিলেনকে নায়িকা
নায়িকাকে ধরে এনেছে ভিলেন। নায়িকা বলছে, ছেড়ে দে শয়তান! আমার দেহ পাবি। আমার চিকুনগুনিয়া পাবি। কিন্তু মন পাবি না।

বড়লোক শ্বশুরের উদ্দেশে বাংলা সিনেমার হিরো
চৌধুরী সাহেব, আজ সামান্য চিকুনগুনিয়ায় আক্রান্ত হয়েছি বলে আপনি আপনার মেয়েকে আমার হাতে তুলে দিলেন না। আজ চলে যাচ্ছি। কিন্তু আবার ফিরে আসব। ফিরে আসব চিকুনগুনিয়ামুক্ত কোটিপতি হয়ে। সেদিন আমার হাতে মেয়ে তুলে না দিয়ে যাইবেন কই!

সূত্র: নয়াদিগন্ত

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত