২৪ জুন, ২০১৭ ০২:৫৭ পিএম

অস্ট্রেলিয়ায় খাদ্য নষ্টের বিরুদ্ধে লড়াই

অস্ট্রেলিয়ায় খাদ্য নষ্টের বিরুদ্ধে লড়াই

প্রতিবছর অস্ট্রেলিয়ায় খাবার নষ্ট হয় প্রায় দেড় হাজার কোটি ডলারের। এই অপব্যয় কমাতে উদ্যোগী হয়েছে দেশটির সরকার।

এ কাজে সরকারকে সহযোগিতা করতে সম্প্রতি চালু হয়েছে খাবার পুনর্ব্যবহারকারী সুপারমার্কেট। সিডনির এ প্রতিষ্ঠানটি পরিচালনা করে খাদ্য সংরক্ষণকারী প্রতিষ্ঠান ওজহার্ভেস্ট।

সাধারণ সুপারমার্কেট, বিমান সংস্থা এবং অন্য সরবরাহকারীদের ফেলে দেওয়া মেয়াদোত্তীর্ণ খাবার সংগ্রহ করে প্রতিষ্ঠানটি তা বিনা মূল্যে দুস্থদের মধ্যে বিতরণ করে। খাবারের অপব্যবহার অস্ট্রেলিয়ার একটি বড় সংকট। প্রায় আড়াই কোটি মানুষের এই দেশে ক্রেতারা প্রতিবছর তাদের কেনা খাবারের অন্তত ২০ শতাংশ ফেলে দেয়। ফলে প্রতিবছর অস্ট্রেলিয়ার খাবার বর্জ্য দাঁড়ায় ৪০ লাখ টনেরও বেশি।

পরিবেশমন্ত্রী জোশ ফ্রিডেনবার্গ গত এপ্রিলে বলেন, ‘সমৃদ্ধ, আধুনিক অস্ট্রেলিয়ায় আমরা বছরে ছয় কোটি লোককে খাওয়ানোর মতো খাদ্য উৎপাদন করি। অথচ প্রতি মাসে ছয় লাখেরও বেশি লোক এ ধরনের দাতব্য প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে খাদ্য সাহায্য নেয়। এদের এক-তৃতীয়াংশই শিশু। ’ খাবার নষ্ট হওয়া অন্তত অর্ধেক কমাতে কাজ শুরু করেছে দেশটির সরকার। ২০৩০ সালের মধ্যে লক্ষ্যে পৌঁছতে চায় তারা। আর এ কারণেই ব্যক্তি খাত এবং বেসরকারি অলাভজনক সংস্থাকে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে উৎসাহিত করা হচ্ছে। জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা জানিয়েছে, বিশ্বজুড়ে প্রতিবছর এক ট্রিলিয়ন ডলার মূল্যের ১৩০ বিলিয়ন টন খাবার নষ্ট হয়।

সূত্র : কালের কন্ঠ

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত