ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬,    আপডেট ৫২ মিনিট আগে
ডা. শিরীন সাবিহা তন্বী

ডা. শিরীন সাবিহা তন্বী

মেডিকেল অফিসার, রেডিওলোজি এন্ড ইমেজিং ডিপার্টমেন্ট,

শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, বরিশাল।


১৫ জুন, ২০১৭ ১১:৪৪

মনে রেখেছি তো ? 

মনে রেখেছি তো ? 

আঠের জুন! কেন্দ্রীয় বিএমএ (বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন কর্তৃক সেন্ট্রাল হাসপাতালে ক্যান্সারের রোগীর মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসী কর্তৃক চিকিৎসকদের উপর বর্বর হামলা এবং সারাদেশে চিকিৎসকদের উপর সংগঠিত সকল হামলার বিরুদ্ধে মাসব্যাপী বিভিন্ন ধরনের বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ কর্মসূচীর এবারের কর্মসূচী ১৮ জুন, ২০১৭, রোজ রবিবার বাংলাদেশের সকল চিকিৎসকদের সকল ধরনের প্রাইভেট প্রাকটিস বন্ধ থাকবে।

উক্ত সময়ে বিএমএ’র সকল শাখার নেতৃবৃন্দ কেন্দ্রের নির্দেশে সুষ্ঠুভাবে এই কর্মসূচী পালনে মাঠে থাকবে। একই সাথে থাকবে ছোট বড় সব সংবাদ কর্মীগন। এই কর্মসূচীকে অগ্রাহ্য করে যারা গোপনে প্রাকটিস করবেন- ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে আলট্রাসনোগ্রাম, প্যাথলজি রিপোর্ট করা, চেম্বারে রোগী দেখা, গোপনে অপারেশন করা এই সব ই নিষিদ্ধ। সবাইকে বিশেষভাবে মনে রাখতে হবে। কেবলমাত্র ইমার্জেন্সী স্বাস্থ্যসেবা চালু রাখতে সরকারী হাসপাতাল যথারিতী খোলা থাকবে এবং যথাযথ চিকিৎসা দেবে। বেসরকারী ক্লিনিক এবং হাসপাতালে ডিউটি ডাক্তার উপস্থিত থেকে পূর্বে ভর্তিকৃত রোগীদের যথাযথ ফলো আপ দিবেন। কিন্তু ঐদিন নতুন কোন রোগী ভর্তি নেবেন না।

আর দেশের সকল জনসাধারনের জন্য এইটুকুই বলার আছে। এই লড়াই আমাদের ডাক্তারদের নিরাপত্তার লড়াই। সম্মান পুনুরূদ্বারের লড়াই। আমরা দেশের সকল চিকিৎসক আমাদের প্রাণের সংগঠন, বিএমএ’র এই কর্মসূচী সফল করি। এমন কিছু না করি, যাতে নিজের কাছে নিজের সহকর্মীদের কাছে লজ্জিত হতে হয়।

 

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত