১১ জুন, ২০১৭ ০২:২৬ পিএম
মানববন্ধনে ঘোষণা

শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে কাজ না হলে কঠোর আন্দোলনে যাবে বিএমএ

শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে কাজ না হলে কঠোর আন্দোলনে যাবে বিএমএ

ইলিয়াস হোসেন: 

নিরাপদ কর্মস্থলের দাবিতে চলমান শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে কাজ না হলে আগামীতে কঠোর আন্দোলনের ডাক দেবে বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ)। রোববার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে বিএমএ আয়োজিত চিকিৎসকদের মানববন্ধন কর্মসূচিতে এ ঘোষণা দিয়েছেন সংগঠনের নেতারা। দুপুর ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত চলমান মানববন্ধনে বিএমএ সভাপতি ও সাবেক এমপি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, মহাসচিব ডা. মোঃ ইহতেশামুল হক চৌধুরী দুলাল, বিএসএমএমইউ’র ভিসি অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান, প্রো-ভিসি অধ্যাপক ডা. শারফুদ্দিন আহমেদ, প্রো-ভিসি অধ্যাপক ডা. শহিদুল্লাহ শিকদার, বিএমএ নেতা ডা. জামাল উদ্দিন খলিফা, ডা. জামাল উদ্দিন চৌধুরী, বিএমএ’র দপ্তর সম্পাদক ডা. মোহা: শেখ শহীদ উল্লাহ, ডা. শফিকুর রহমানসহ চিকিৎসকদের শীর্ষ নেতারা বক্তৃতা করেন।

বিএমএ সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন বলেন, চিকিৎসক ও চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানের ওপর হামলাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সরকারকে অনেক সুযোগ দিয়েছে বিএমএ। সরকারের সংশ্লিষ্ট মহল জানেন, চিকিৎসকরা স্যায্য দাবিতে আন্দোলন করছেন। কিন্তু স্বাস্থ্য ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় আমাদের শান্তিপূর্ণ আহ্বানে সাড়া দিচ্ছেন না। আগামী ৩ জুলাই বিএমএ’র জেলা নেতাদের সম্মেলন থেকে কঠোর কর্মসূচি দেয়ার হুঁশিয়ারী দেন তিনি। বিএমএ সভাপতি দৃঢ়তার সাথে বলেন, ৭০ হাজার চিকিৎসকের কর্মস্থল অনিরাপদ রেখে দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থা সুন্দরভাবে চলতে পারে না। 

বিএমএ মহাসচিব ডা. ইহতেশামুল হক চৌধুরী বলেন, বেতন-ভাতা বাড়ানোর দাবিতে চিকিৎসকরা রাজপথে আসেন নাই। এটা মান-মর্যাদা রক্ষার আন্দোলন। নিরাপদ কর্মস্থল আমাদের প্রাণের দাবি। তিনি অবিলম্বে চিকিৎসকদের ন্যায্য দাবি মেনে নিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে সরকারের কাছে জোর দাবি জানান।

আর যদি একজন চিকিৎসকের ওপর হামলা হয়, তাহলে ঐ প্রতিষ্ঠানের কোন চিকিৎসক চিকিৎসা কার্যক্রমে অংশ নেবে না। হাসপাতাল ভাংচুর হলে তার প্রতিকার হবে। চিকিৎসকের ওপর হামলা ও হাসপাতাল ভাংচুরকারীর চিকিৎসা এদেশে হবে না বলে সাফ জানিয়ে দেন বিএমএ মহাসচিব।

যেসব চিকিৎসক নেতা পেছন থেকে আন্দোলন বিরোধী কাজ করছেন, তারা চিকিৎসকদের রোষ থেকে নিজেদের রক্ষা করতে পারবেন না বলে হুঁশিয়ার করে দেন তিনি। 

আগামী ১৮ই জুন সকাল ৮টা থেকে ১৯শে জুন সকাল ৮টা পর্যন্ত সারাদেশে প্রাইভেট প্র্যাকটিস বন্ধ রাখতে চিকিৎসকদের প্রতি আহ্বান জানান বিমিএ মহাসচিব। 

  

করোনা ও বার্ধক্যজনিত অসুস্থতা

এক দিনে চিরবিদায় পাঁচ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক

এক বছর প্রয়োগ হবে সেনা সদস্যদের দেহে

চীনে করোনার প্রথম ভ্যাকসিন অনুমোদন

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত