ঢাকা      বৃহস্পতিবার ১৭, জানুয়ারী ২০১৯ - ৪, মাঘ, ১৪২৫ - হিজরী



আসিফ শুভ্র

Apollo Hospitals Dhaka For Community

Registrar- Critical Care Department.


আত্মকথা

পিতৃতুল্য দরদী শিক্ষক প্রফেসর ডা. মাহবুব

- ' হ ..... !  তুই ই তো প্রফেসর মাহবুব ! দেখ্ ফয়েজ! গলার tune পাল্টাইয়া মজা লইস না কইলাম ......... ! হারামী কোথাকার ! 

ঘুমাইতে দে আমারে ! মাহবুব স্যারের তো খাইয়া দাইয়া কাম নাই যে আমারে ফোন দিবো ! বদমাইশ ...... !!!! আরেকবার ফোন দিবি তো এক থাবড়ায় ............... ! ' 

- ' আমি প্রফেসর মাহবুব ই বলছি ...... তোমার বন্ধু ফয়েজের নাম্বার থেকে ফোন দিয়েছি ! 

পাঁচ মিনিটের মধ্যে ক্লাসে আসো ! Just within five minutes ! 

লাউড স্পিকারে চলছে প্রফেসর মাহবুব আর সুমনের কথোপকথন ! 

সুমনের আত্মায় আর পানি নাই রে ........ l সুমন কে আমরা close Friend রা ' ফুটা ' নামে ডাকতাম ........, নামটা ফকিরের দেয়া l Faquir Walid Shah Upol এর ডাক নাম ছিলো ফকির l কেনো সুমনকে ফুটা ডাকতাম ইহা পাবলিক প্লেসে কোনোভাবেই বলা যাইবে না ! 

এক দৌড়ে সুমন স্যারের সামনে এসে হাজির ........, হাঁপাচ্ছে ! আমরা তো টেনশানে শেষ .....!

মাহবুব স্যার সার্জারীর জাদরেল অধ্যাপক , ঢাকা মেডিকেল কলেজের সাবেক প্রিন্সিপাল l

পুরো টিউটোরিয়াল ক্লাসে পিন পতন নিরবতা l সুমন মাথা নিচু চুপ করে দাঁড়িয়ে আছে , একটু পরপর তোতলাতে তোতলাতে বলছে - ' স্যা..র মাফ করে দেন্ আমাকে ! ' 

বন্ধু সুমনের জন্য মায়া লাগছে খুব l

স্যার শাস্তি দিলেন ..... কঠিন শাস্তি ! 

- ' প্রতিদিন তোমার ক্লাস পার্সেন্টেজ আমি চেক করবো l যদি absent থাকো ....... আমি তোমাকে ফাইনাল প্রফেশনাল exam এ বসতে দেবো না ! 

আর বেটা ....! তোমার মুখ এতো সুন্দর কেনো ? কি সুন্দর সুন্দর গালি রে !!! বাহ্ ! 

যাই হোক ! মাফ করে দিলাম তোমাকে, কিন্তু খবরদার ! পার্সেন্টেজ কম হলে - no mercy ! '

এই শাস্তি সুমনের জন্য কি যে পেইন ছিলো ! ওর মতো ঘুমকাতুর ছেলেকে প্রতিদিন টিউটোরিয়াল ক্লাস করতে হবে ......  ! '

প্রতিদিন চোখ ডলতে ডলতে সুমন টিউটোরিয়াল ক্লাসে যেতো আর আমরা বন্ধুরা দাঁত কেলিয়ে ওরে ক্ষেপাইতাম l

জ্বী ভাই ..........

এটা একজন প্রফেসরের আর ছাত্রদের জীবনের বাস্তব গল্প l একজন মাটির মানুষের গল্প ............. শিক্ষক ছাত্রের সুসম্পর্কের গল্প l 

আমরা সবাই ই আজ প্রতিষ্ঠিত চিকিৎসক l প্রফেসর মাহবুবের মতো শিক্ষক পাওয়া দু:ষ্কর l একজন ছাত্রকে টিসি দিয়ে দেয়া, শিক্ষাজীবন নষ্ট করে দেয়া শিক্ষকের ক্রেডিট না ...... হতে পারে না l ছাত্র ...... ভুল করবেই l

ঢাকা মেডিকেল কলেজের তিন জন ছাত্র ( হতাশাজনিত কারণে ) ড্রাগ নেবার সময় এই মাহবুব স্যারের হাতেই হাতেনাতে ধরা পড়েছিলেন l স্যার তখন প্রিন্সিপাল l 

একাডেমিক কাউন্সিলে সব শিক্ষক যখন চিৎকার করে বলছিলেন - ' Drug addict boys ! ঢাকা মেডিকেলের কলঙ্ক! টিসি দিয়ে বের করে দেয়া হউক ! '

একমাত্র প্রফেসর মাহবুব সেদিন ভেটো দিয়েছিলেন ........ প্রিন্সিপালের অন্তীম ক্ষমতা প্রয়োগ করেছিলেন, বলেছিলেন - ' টিসি দিয়ে দিলে ওরা আরো হতাশ হয়ে যাবে ........ , প্রত্যেকটা ছাত্রই ক্রীম স্টুডেন্ট ....! এম্নি এম্নি DMC তে টিকে নাই ওরা l আমি ওদের সুযোগ দিতে চাই ......... one and only chance ! ওরা একবার ফেল করেই হতাশ হয়ে গেছে l কারণ জীবনে ফেল জিনিসটার স্বাদ ওরা কোনোদিনই পায়নি l পাশ করলে ওদের এই হতাশা আর থাকবে না , কেটে যাবে l '

কেটে গিয়েছিলো ওদের হতাশা ........, সবাই আজ প্রতিষ্ঠিত l স্যার ওদের তিনজনকে নিয়ে লং ড্রাইভে গিয়েছেন ...... , বয়েসের এতো ব্যবধান হবার পরও রাতবেরাতে ওদের কে সময় দিয়েছেন ......, মোটিভেট করেছেন এবং তিনি শতভাগ সফল হয়েছেন l তিনজনের একজনও আজ সিগারেট ই খান না l 

অনেক দিন বেঁচে থাকুক আমাদের প্রিয় স্যার টা .......... ভালো রাখুক তাঁকে আল্লাহ ll

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


পাঠক কর্নার বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

চার বছর বয়সেই ডিপ্রেশনে আক্রান্ত!

চার বছর বয়সেই ডিপ্রেশনে আক্রান্ত!

ইশরাত জাহান, বয়স বর্তমানে ১৫। তার মা-বাবা থেকে জানা গেল যখন তার…

সরকারী স্বাস্থ্য সেবা এখন জনগণের দোরগোড়ায়

সরকারী স্বাস্থ্য সেবা এখন জনগণের দোরগোড়ায়

আমাদের দেশের জনগনের বড় অংশ বসবাস করেন গ্রামে। সুতরাং গ্রামের মানুষের কথা…

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও আমার কিছু কথা

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও আমার কিছু কথা

ওএসডি মেয়াদ শেষে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে যোগ দান করতে গেলাম সেই ফারুক সাহেবের…

বাঁচতে হলে জানতে হবে, জানতে হলে পড়তে হবে

বাঁচতে হলে জানতে হবে, জানতে হলে পড়তে হবে

"পড়, তোমার প্রভুর নামে যিনি সৃষ্টি করেছেন" -আল কোরআনের প্রথম আদেশ। কোরআনের…

কত রঙের স্বপ্ন দেখি…

কত রঙের স্বপ্ন দেখি…

হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডে শোরগোল পড়েছে। কয়েকজন মানুষ মিলে হৈচৈ করছে। পুরুষের চাইতে…



জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর