১১ মে, ২০১৭ ০৩:৪৯ পিএম

New England Journal of Medicine- চিকিৎসাবিজ্ঞানের একটি স্বর্ণমান

New England Journal of Medicine- চিকিৎসাবিজ্ঞানের একটি স্বর্ণমান

New England Journal of Medicie (NEJM)- চিকিৎসা বিজ্ঞানের সেরা গবেষণাগুলো সহজবোধ্য করে মানুষের কাছে পৌঁছানোর এক অনন্য প্রকাশনা। জার্নালটি বায়োমেডিকেল এবং ক্লিনিকাল প্র্যাকটিসের মূল তথ্যগুলো খুবই প্রাঞ্জল এবং সহজভাবে উপস্থাপন করে যা চিকিৎসার ক্ষেত্রে বেশ দরকারী। 

NEJM এর গবেষণায় চিকিৎসাশাস্ত্রের অনেক জটিল বিষয়গুলো আমাদের কাছে বোধগম্য হয়েছে। বিশেষ করে নতুন পরিচিত বিভিন্ন রোগ এবং চিকিৎসা সম্ভাবনা নিয়ে চুলচেড়া বিশ্লেষণ, এর জনপ্রিয়তাকে অনেক বাড়িয়ে দিয়েছে। NEJM কে চিকিৎসকদের জন্য একটি ক্যারিয়ার সহযোগী তথ্য ভান্ডার হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

বোস্টনের একজন চিকিৎসক পণ্ডিত জন কলিন্স ওয়ারেন ১৮১১ সাল তার সহকর্মী জেমস জ্যাকসনের সাথে জার্নালটি প্রকাশের পরিকল্পনা করেন। তাদের প্রচেষ্টার ফলে ১৮১২ সালে প্রথম এর ত্রৈমাসিক সংস্করণ বের হয়। যার নাম ছিল ÒNew England Journal Of Medicine and the Colateral branch of medicine. এরপর থেকে এর সাপ্তাহিক সংস্করণ বের হয়। ১৯২৮ সালে এসে এর নামকরণ করা হয় New England journal of medicine.

NEJM এর গবেষণাগুলো হয় সম্পূর্ণ বিজ্ঞানভিত্তিক। এতে প্রকাশিত বেশীরভাগ রিপোর্টই ইংল্যান্ডের বাহিরের দেশ থেকে নেওয়া। একটি কঠোর পিয়ার পর্যালোচনা এবং এডিটিং প্রক্রিয়ার মাধ্যমে NEJM তার  গবেষণার পাণ্ডুলিপি এবং রিপোর্টের বৈজ্ঞানিক বিশ্লেষণ করে। আর এ কারনেই বায়োমেডিকেলীও গবেষণা ও ক্লিনিক্যাল মেডিসিন প্র্যাকটিসে NEJM একটি “স্বর্ণমান” হিসেবে খ্যাতি জুড়িয়েছে।

NEJM তার পদচারনার প্রথম থেকেই মানব দেহ, বিভিন্ন রোগের প্রতিকার, এবং মেডিক্যাল সাইন্সের বিভিন্ন সম্ভাবনা নিয়ে গবেষণা এবং এর তথ্যবহুল গুরুত্বপূর্ণ রিপোর্ট প্রকাশ করে আসছে। জার্নালটি ১৮৪৮ সালে  Ether Anesthesia নিয়ে একটি ডকুমেন্টেড পাবলিক ডেমনস্ট্রেশন তৈরি করে Spinal Disk Rapture নিয়ে ১৯৩৪ সালে তৈরি করে সর্বপ্রথম পূর্ণ বিবরনীমুলক পাবলিক ডকুমেন্ট এবং ১৯৪৮ সালে Early child Leukemia চিকিৎসা আবিষ্কার করে প্রথম সফলতা পায়। অতি সাম্প্রতিককালে এটি অওউঝ এবং তার প্রতিকার, হৃদরোগ প্রতিরোধে Cholesterol Lowering agent, Chronic Leukemia Ges এবং Lung Cancer এর প্রতিকার নিয়ে নিবন্ধ প্রকাশ করেছে।

প্রতি সপ্তাহে বিশ্বের ১৭৭ টি দেশের প্রায় ৬০,০০,০০০ জন পাঠক এই জার্নালটি পড়ে থাকেন। সাংবাদিকতায় অভূতপূর্ব মেধার স্বাক্ষর রাখার জন্য ১৯৭৮ সালে প্রথম কোন মেডিক্যাল জার্নাল হিসেবে এটি ‘Polk Award’ পায়। বিশ্বের ১০০ টির ও বেশি নিম্ন আয়ের দেশে এর ফ্রি অনলাইন এক্সেস পাওয়া যাচ্ছে।

লেখক : সুমন মোহাম্মদ (এস.এইচ.এস.এম.সি)
 

(মেডিভয়েস : সংখ্যা ৩, বর্ষ ১, নভেম্বর ২০১৪ তে প্রকাশিত)

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত