সুজাউদ্দিন এফ সোহান

সুজাউদ্দিন এফ সোহান

Studied Bachelor of Dental Surgery at Dhaka Dental College & Hospital (DDCH)


০৮ মে, ২০১৭ ০২:৫৯ পিএম

তিনি এইট পাশ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক !

তিনি এইট পাশ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক !

আমার পাশের যে কালো শার্ট পড়া মানুষটা দেখতে পাচ্ছেন উনি একজন ভুয়া ডাক্তার, কয়েকদিন আগে পুলিশের হাতে ধরা খেয়েছেন।

বিস্তারিত বলি, পড়ে দেখেন; আর হ্যা- সবাই একটু সাবধান থাকবেন এই উচ্চ ডিগ্রিধারী ডাকাত থেকে।

উনার সাথে পরিচয় ফেসবুকে। কক্সবাজার জেলার সকল ডাক্তার আর মেডিকেল স্টুডেন্ট নিয়ে ফেসবুকে একটা গ্রুপ খুলেছিলাম, সেখানে আমাদের মহেশখালীর ডাক্তার শামসুল ইসলাম খান একবার এই ডাক্তারের ফেবু আইডি শেয়ার করেন। এই ডাক্তারের বাড়ি কক্সবাজার, একজন নিউরো মেডিসিন বিশেষজ্ঞ, বিদেশ থেকে বড় ডিগ্রিধারী। আমিও পরিচিত হলাম উনার সাথে। ঢাকা মেডিকেল পড়ুয়া কক্সবাজারেরই আরেক ছোট ভাই রোকন সহ একদিন উনার চেম্বারে যাই। আমরাও কক্সবাজারের ছেলে, ঢাকায় ডাক্তারি পড়ি, উনিও কক্সবাজারের একজন সিনিয়র ডাক্তার- আলাদা একটা টান আছে, সেই সুবাদে উনার সাথে একটু দেখা করতে যাওয়া।

ঘন্টাখানেক উনার সাথে উনার চেম্বারে আড্ডা দিলাম, উনার মেডিকেল লাইফের বিভিন্ন স্মৃতি তুলে ধরলেন। ঢাকা মেডিকেল থেকে পাশ করা ব্রিলিয়ান্ট স্টুডেন্ট, উনার ব্যাচের ফার্স্ট বয়, ভর্তি পরীক্ষায় সারা দেশে প্রথম হওয়া, এক চান্সে FCPS পাশ করা, আর এই অল্প বয়সে এত গুলো ডিগ্রি অর্জন! এত এত গুণাবলি উনার, আড্ডার শেষ পর্যায়ে বলতে গেলে আমি উনার ফ্যান হয়ে গেলাম পুরাই।

চলে আসার আগে বললাম, আপনার সাথে একটা ছবি তুলতে চাই আমি, আপনার এইসব কৃতিত্বের কথা আমাদের কক্সবাজারবাসীকে জানাতে হবে। উনিও আগ্রহ নিয়ে ছবি তুলতে হেল্প করলেন, এ কখেক্ষেত্রে ফটোগ্রাফারের ভুমিকায় ছিল ডিএমসিয়ান ছোট ভাই রোকন, সে নিজেও ছবি তুলেছিল পরে।

উনার চেম্বার থেকে বের হওয়ার পর আমি আর রোকন উনার ব্যাপারে কথা বলতেছিলাম, কেন জানি উনাকে নিয়ে আমাদের দুজনেরই সন্দেহ হলো। সেদিন বাসায় ফিরে আর উনাকে নিয়ে পোস্ট দিলাম না।

কয়েকদিন পর দেখি সেই ডাক্তার শামসুল ইসলাম খান আরেকটা পোস্ট দিলেন এই মানুষটাকে নিয়ে। তিনি বিভিন্ন জায়গায় খোজ খবর নিয়ে জানতে পেরেছেন এই খোরশেদ একজন ভুয়া ডাক্তার, এত এত ডিগ্রি তো দুরের কথা, এমবিবিএসও পাশ করতে পারেনি এই ডাক্তার। শুধু তাই না, মাত্র ক্লাস এইট পাশ করেছেন এবং ঢাকা মেডিকেলে ওয়ার্ড বয় হিসেবে কর্মরত ছিলেন, সেখান থেকে হয়ে গেলেন ঢাকা মেডিকেল থেকে পাশ করা ডাক্তার, রোগী প্রতি ভিজিট নেন ৫০০ থেকে ৮০০ টাকা। পত্রিকাতেও চলে আসলো নিউজ।

এর আগেও উনি একাধিক বার ভুয়া ডাক্তার হিসেবে ধরা খেয়েছেন। আমাদের কক্সবাজারের রামু, ফেনী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম শহর, মাগুরা সহ বিভিন্ন জায়গায় প্র্যাকটিস করেছেন। এক জায়গায় ধরা খেলে অন্য জায়গায় চলে যেতেন এবং আবার প্র্যাকটিস শুরু করতেন।

উনার হাত সম্ভবত অনেক লম্বা, যার দরুন উনি একাধিকবার পুলিশের হাতে আটক হলেও খুব একটা শাস্তি পেতে হয়নি। বরং কয়েকদিন পর আবার বেরিয়ে এসে রোগীদের সাথে ধোকা দেওয়া শুরু করেন।

হয়তো এবারেও বেরিয়ে আসবেন, নতুন কোন এক জেলায় শুরু করতে পারেন এই ভণ্ডামি। তাই সাবধান থাকবেন সবাই, আর এই পোস্টটা বেশি বেশি শেয়ার করবেন কাইন্ডলি, বলা যায়না হয়তো আপনার এলাকাতেই নতুন চেম্বার খুলে বসতে পারেন উনি, উনার জন্য সেটা কোন ব্যাপারই না, অতীত ইতিহাস সেটাই বলে।

সিন্ডিকেট মিটিংয়ে প্রস্তাব গৃহীত

ভাতা পাবেন ডিপ্লোমা-এমফিল কোর্সের চিকিৎসকরা

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা উপেক্ষা

অতিরিক্ত বেতন নিচ্ছে একাধিক বেসরকারি মেডিকেল

প্রস্তুতির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

অক্টোবর-নভেম্বরে ২য় ধাপে করোনা সংক্রমণের শঙ্কা

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা
পিতাকে নিয়ে ছেলে সাদি আব্দুল্লাহ’র আবেগঘন লেখা

তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না
জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের সিসিউতে ভয়ানক কয়েক ঘন্টা

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না