ডা. শরীফ উদ্দিন

ডা. শরীফ উদ্দিন

রেসিডেন্ট, বিএসএমএমইউ

 

 


২৪ এপ্রিল, ২০১৭ ০১:১৩ পিএম

ডাক্তারদের ভাল কাজগুলো মিডিয়ায় আসে না

ডাক্তারদের ভাল কাজগুলো মিডিয়ায় আসে না

জাহিদুর রহমান ভাই একটা চমৎকার কাজ করেছেন। কার্ডিয়াক স্টেন্টের অনৈতিক ব্যবসা বন্ধে আন্দোলনটা সম্ভবত তিনিই শুরু করেছিলেন এবং শেষ পর্যন্ত লেগে আছেন।উনার অক্লান্ত প্রচেষ্টার ফল কিছুটা হলেও হৃদরোগীরা পাওয়া শুরু করেছেন। ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর থেকে কার্ডিয়াক স্টেন্টগুলোর দাম ঠিক করে দেওয়া হয়েছে। এই কাজটা শুরু করার কথা ছিলো আমাদের আমলা চালিত ঔষধ প্রশাসনের এবং এ বিষয়ে ভুমিকা রাখার কথা ছিলো নাগরিক সমাজের, আমাদের মিডিয়ার। একজন ডাক্তার হার্টের স্টেন্টগুলোর দাম নির্ধারন করে দেওয়ার জন্য এভাবে লড়ে যাচ্ছেন, এ খবর আমাদের প্রথম সারির মিডিয়াগুলোয় আসেনি, সম্ভবত আসবেওনা।

আশির দশকে জাতীয় ঔষধ নীতি প্রণয়নের সময় ঔষধ যাতে সাধারন মানুষের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে থাকে, সেজন্য যে দুইজন মানুষ ভুমিকা রেখেছিলেন, তারাও ডাক্তার। জাতীয় অধ্যাপক ডা. নুরুল ইসলাম এবং ডা.জাফরুল্লাহ চৌধুরী। ঔষধ প্রশাসনের কুম্ভকর্ণের নিদ্রায় সেই দাম কতটুকু নিয়ন্ত্রণে আছে, তা এখন প্রশ্ন সাপেক্ষ। শিশু হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. হানিফ দিনের পর দিন পরিশ্রম করে ভেজাল প্যারাসিটামল তৈরিকারি রিড ফার্মার বিরুদ্ধে প্রমাণ দাড় করালেন। আশা নিয়ে ঝাপসা হয়ে আসা চোখে অপেক্ষায় থাকেন, ফুলের কুঁড়ির মতো অকালে ঝরে যাওয়া বাচ্চাগুলোর হত্যার বিচার হবে। ঔষধ প্রশাসনের সার্বিক গাফিলতি আর তদন্তে দুর্বলতায় ভেজাল প্যারাসিটামল প্রস্তুতকারী কোম্পানির সবাই খালাস পেয়ে বের হয়ে যায়। হার্টের স্টেন্টগুলোর দাম নির্ধারণ সংক্রান্ত আন্দোলন কিংবা এ সংক্রান্ত সাম্প্রতিক পদক্ষেপগুলোও যেনো এভাবে বিফল না হয়ে যায়, এ ব্যপারে আমাদের নাগরিক সমাজ বা মিডিয়া সচেতন থাকুক, এ কামনা করি।

সরকারি হাসপাতালে ডাক্তার নাই, ডাক্তাররা ট্যাক্সের টাকায় পড়ে এতো এতো টাকা ভিজিট নেয়, ডাক্তাররা কমিশন খায়- এই ক্লিশে হয়ে যাওয়া অভিযোগগুলো না করে আমাদের আমলারা যদি স্বাস্থ্য খাতের অব্যবস্থাপনা দূর করায় মনোযোগী হয়, তাহলেই কল্যাণ।

আমরা ডাক্তাররা চাইলেই সব পারিনা। আমাদের সাথে সাথে সরকারের আমলা, মিডিয়া এবং মন্ত্রণালয় একসাথে কাজ করলে এও সমস্যাগুলো দূর হবে। আমরা ডাক্তাররা কায়মনোবাক্যে চাই, সব কমিশনপ্রথা শাস্তির আওতায় আসুক, স্বাস্থ্য খাতে যাবতীয় দালালী বন্ধ হোক।

 

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত