২৪ এপ্রিল, ২০১৭ ১১:৩১ এএম

বর্জ্য প্রক্রিয়াজাত কেন্দ্র স্থাপন করা হচ্ছে যশোরে

বর্জ্য প্রক্রিয়াজাত কেন্দ্র স্থাপন করা হচ্ছে যশোরে

দেশের প্রথম বর্জ্য প্রক্রিয়াজাত কেন্দ্র স্থাপন করা হচ্ছে যশোরে। এ কেন্দ্রে আবর্জনা প্রক্রিয়া করে উৎপাদন করা হবে বায়োগ্যাস, বিদ্যুত ও জৈবসার। ইতোমধ্যে প্রকল্পের ৫০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে।

যশোর পৌরসভার এমন উদ্যোগে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন দীর্ঘদিন দুর্গন্ধের মধ্যে বসবাস করা এলাকাবাসী। পৌর কর্তৃপক্ষ বলছে, পরিচ্ছন্ন নগর গড়তেই এ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

যশোর পৌরসভার ব্যবস্থাপনায় শহরতলীর ঝুমঝুমপুর আবর্জনা কেন্দ্রে স্থাপন করা হচ্ছে বর্জ্য প্রক্রিয়াজাত কেন্দ্র। সরকার ও এডিবির আর্থিক সহযোগিতায় সিটি রিজিয়ন ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্টের আওতায় এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। ২০ বছরের এ প্রকল্পে প্রতিদিন ৪৫ টন আবর্জনা প্রক্রিয়াজাত করার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

তবে শুরুতে এ কেন্দ্র প্রতিদিন ২৫ থেকে ৩০ টন বর্জ্য প্রক্রিয়াজাত করে বায়োগ্যাস, জৈবসার ও বিদ্যুত উৎপাদন করবে। প্রকল্প এলাকায় বায়োগ্যাস ও সার বাণিজ্যিকভাবে বিক্রি করা হবে। এছাড়া উৎপাদিত বিদ্যুত প্রকল্প এলাকায় আলোকিত করা ছাড়াও বিভিন্ন প্লান্টে ব্যবহার করা হবে।

যশোর পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী এসএম শরীফ হাসান বলেন, ‘এখানে বর্জ্য প্রক্রিয়াজাত করে বায়োগ্যাস, জৈবসার ও বিদ্যুত উৎপাদন করা হবে।’

প্রকল্পের কাজে জড়িত যশোর পৌরসভার উপ-সহকারী প্রকৌশলী লিটন হোসেন জানালেন, ইতোমধ্যে ৫০ শতাংশ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। পৌরসভার এ উদ্যোগে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন দীর্ঘদিন দুর্গন্ধের মধ্যে বসবাস করা এলাকাবাসী।

যশোরকে পরিচ্ছন্ন নগর হিসেবে গড়ে তুলতেই এ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানালেন যশোর পৌরসভার মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার। প্রকল্পটি সচল রাখতে আবর্জনা সংগ্রহে পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে ৯০টি কন্টেনার ডাস্টবিন ব্যবহার করা হবে। এছাড়াও চৌগাছা, অভয়নগর ও ঝিকরগাছা পৌরসভা থেকে প্রতিদিন বর্জ্য সংগ্রহ করা হবে।

সূত্র: জনকণ্ঠ

 

স্বাস্থ্য খাতের সংস্কার প্রতিবেদনে সুপারিশ

রোগী থেকে সরাসরি টাকা গ্রহণ নয়, চিকিৎসক হবেন বেতনভুক্ত কর্মচারী

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত