ডা. আহমাদ হাবিবুর রহিম

ডা. আহমাদ হাবিবুর রহিম

লেখক, কলামিস্ট

বিসিএস (স্বাস্থ্য), রেসিডেন্ট, বিএসএমএমইউ।


১৯ এপ্রিল, ২০১৭ ০৪:৪২ পিএম

সঠিক চিকিৎসা সেবা পেতে হলে...

সঠিক চিকিৎসা সেবা পেতে হলে...

নিজে বা কাছের কোন মানুষ হঠাৎ বেশী অসুস্থ হয়ে গেলে দ্রুত নিকটস্থ স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে বা হাসপাতালে যান। তাৎক্ষনিক জরুরী চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করুন। পরিচিত ডাক্তার আত্মীয় বা বন্ধুকে ফোনে না পেয়ে গালাগালি করে চৌদ্দ গোষ্ঠী উদ্ধার করতে গিয়ে অযথা দেরি করবেন না। এটা বুদ্ধিমত্তার লক্ষণ। প্রাথমিক ঝুঁকি কাটানোর পরে নাহয় পরবর্তী চিকিৎসা কিভাবে করানো যেতে পারে সে ব্যাপারে পরিচিত ডাক্তারদের সাথে আলাপ করে ঠিক করে নিলেন। অযথা চিকিৎসকদের ওপর চাপ সৃষ্টি করবেন না। তাদের সাথে উন্নাসিক আচরণ করে কষ্ট দেবেন না দয়া করে।

নিজ কর্মস্থলের রোগীদেরকে সেবা দেয়া, নিজ কর্মদক্ষতার মানোন্নয়নে অধ্যয়ন করা প্রভৃতি কাজে স্বাভাবিকভাবেই তাদের দিনের বেশিরভাগ সময়েই দারুণ ব্যস্ত থাকতে হয়। কাস্টমার কেয়ার সার্ভিসের কর্মীদের মতো তারা সব সময় ফোন হাতে নিয়ে বসে থাকার সুযোগ পান না। অযথা তাদের ব্যস্ততাকে অহংকার ভেবে ভুল বুঝবেন না। আর চিকিৎসকদের কাছে ফোনে শুধু পরামর্শ চাইতে পারেন; চিকিৎসা নয়। রোগী না দেখে চিকিৎসা দেয়া ঠিক না। এতে চিকিৎসা সঠিক হওয়ার চেয়ে ভুল হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি থাকে। হাতের কাছে নিকটস্থ হাসপাতাল, এম্বুলেন্স প্রভৃতি সার্ভিসের ফোন নাম্বার - ঠিকানা প্রভৃতি রাখুন। পরিবারের সবাইকেই তথ্যগুলো জানিয়ে রাখুন।

সুস্থ্য থাকা অবস্থাতেই কাছের মানসম্পন্ন আস্থাশীল স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানগুলো সম্পর্কে খোঁজ খবর নিয়ে রাখুন। এতে জরুরী প্র‍য়োজনের সময় প্রতারিত হওয়া থেকে বেঁচে যাবেন। পরিবারের আয়ের ভালো একটি অংশ চিকিৎসা ব্যয়ের জন্য খরচ করতে মানসিকভাবে প্রস্তত থাকুন। আমরা যেহেতু মানুষ কখনো না কখনো অসুস্থ আমাদের হতেই হয়। তাই কিছু টাকা অবশ্যই চিকিৎসার জন্য আলাদা করে রাখা উচিত। না হলে যে পরিমান টাকাই আমরা চিকিৎসা খাতে খরচ করি মনে হয় ডাক্তাররা বুক চিড়ে আমাদের টাকাগুলো আমাদের কাছ থেকে নিয়ে গেলো। অথচ বাস্তবতা হলো মোট চিকিৎসা ব্যায়ের দশ শতাংশও চিকিৎসকরা পান না।

ভালো স্বাস্থ্যসেবা পেতে হলে একটু বেশি খরচ করার মানসিকতা আপনার থাকতে হবে। বাংলাদেশেই এখন কর্পোরেট পর্যায়ে বেশ কিছু হাসপাতাল আছে যেখানে টাকা দিলে সঠিক সেবা পাওয়ার নিশ্চয়তাটুকু দেয়া হচ্ছে। যদিও সামগ্রিকভাবে সারা দেশে এ ব্যবস্থাটি এখনও গড়ে ওঠেনি। আবার আরও একটু কম খরচে মধ্যবিত্তদের সেবা দিতেও বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান কাজ করে যাচ্ছে। আর একেবারে কম খরচে সেবা পেতে চাইলে সরকারী হাসপাতালগুলো আপনার জন্য সুন্দর একটা উপায় হতে পারে। বিশেষ করে সরকারী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালগুলো প্রটোকল মেনে সঠিক চিকিৎসা দেয়ার ক্ষেত্রে দারুণ ভুমিকা রাখছে।

সুযোগ সুবিধার বেশ কিছুটা সীমাবদ্ধতা থাকলেও দালাল আর টাউটদের এড়িয়ে চলতে পারলে এ প্রতিষ্ঠানগুলোতে আপনি সঠিক সেবা অনেক কম খরচে পেতে পারেন। সেক্ষেত্রে রোগীর স্বজনদের যথেষ্ট ছোটাছুটি করার ও ঝক্কি সামলানোর কষ্টটুকু করার সদিচ্ছাটুকু রাখতে হবে। স্বাস্থ্যখাতে শৃঙখলা আনতে আপনার আমার সবার সদিচ্ছা ও আন্তরিকতা জরুরী। চিকিৎসক ও হাসপাতাল গুলোর যেমন পেশাদারী আচরণে অভ্যস্ত হওয়া সময়ের দাবী। তেমনি রোগী কিংবা রোগীর স্বজন হিসেবে আপনাকে যথেষ্ট ধৈর্য্যশীল, মার্জিত ও কুশলী হতে হবে।

কথায় আছে, "অশিক্ষিত মানুষ টাকা দিয়ে কুচিকিৎসা কেনে।" কথাটা কিন্তু মোটেও মিথ্যা নয়।

 

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত