ঢাকা      রবিবার ১৮, অগাস্ট ২০১৯ - ৩, ভাদ্র, ১৪২৬ - হিজরী

হাঁচির মাধ্যমে বেরিয়ে এসেছে ৩০ - ৩৫ টি জীবন্ত পোকা

বরিশালের কৃষানী হনুফা বেগম হাঁচি দিলেই নাক থেকে পোকা বেড়িয়ে আসছে জীবন্ত পোকা। গত কয়েক দিনে হাঁচির সাথে তার নাক সাথে অন্তত ৩০ থেকে ৩৫ টি জীবন্ত পোকা বের হয়েছে। এমনকি তার চোখ থেকে পানি ঝড়ছে অনবরত। 

বরিশালের মুলাদী উপজেলার নাজিরপুর গ্রামের ঘটনা এটি। অসুস্থ হনুফাকে বরিশাল নগরীর ব্রাউন্ড কম্পাউন্ডের রয়েল সিটি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। নাক-কান-গলা বিশেষজ্ঞ ডা. খান আব্দুর রউফের তত্ত্ববধানে চিকিৎসা চলছে তার।

চিকিৎসাধীন হনুফা বেগম জানান, তিনি ক্ষেতে কৃষিকাজ করেন। গত কিছু দিন ধরে তার মাথায় ব্যথা অনুভব করেন এবং চোখ থেকে অনবরত পানি পড়তে শুরু করে। মাঝে মধ্যে ওষুধ খেয়ে মাথা ব্যাথা নিবারণের চেষ্টা করতেন। গত ২১ ফেব্রুয়ারি আকস্মিক তার নাক থেকে রক্ত পড়তে শুরু করে।

এতে তার মাথা ব্যাথা আরো বেড়ে গেলে তিনি জেলার গৌরনদীর একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে ভর্তি হন। সেখান থেকে তাকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দেখানোর পরামর্শ দেয়া হয়। ২৩ ফেব্রুয়ারি তার নাক থেকে রক্ত পড়া বেড়ে গেলে ওইদিনই তিনি নগরীর রয়েল সিটি হাসপাতালে ইএনটি বিশেষজ্ঞ ডা. খান আব্দুর রউফের তত্ত্বাবধানে ভর্তি হন।

চিকিৎসক জানিয়েছেন, হনুফার মাথার মধ্যে বাসা বেঁধেছে পোকা। এ কারণে হঁচির সাথে তার নাক থেকে পোকা বের হচ্ছে। চোখ দিয়ে ঝড়ছে পানি।

ইএনটি বিশেষজ্ঞ ডা. খান আব্দুর রউফ জানান, এই রোগের নাম ‘ম্যাগোট ইন দ্যা নোজ এন্ড প্যারানাজাল এয়ার সাইনাস’। তিনি বলেন, নাক, চোখ এবং কপালের অভ্যন্তরে একাংশে ফাঁকা জায়গা থাকে। কোনভাবে পোকা সেখানে প্রবেশ করতে পারলে খালি স্থানে তারা বাসা বাঁধে এবং ডিম পাড়ে। এরপর ওই ডিম থেকে বাচ্চা হয়। হনুফার ক্ষেত্রেও এমনটা হয়েছে বলে তারা পরীক্ষা-নীরিক্ষায় বুঝতে পেরেছেন।

চিকিৎসক বলেন, অচেতন অবস্থায় হনুফার নাকের ভেতর পোকা প্রবেশ করে- নাক, চোখ ও কপালের খালি স্থানে বাসা বেঁধেছে। সেখানে ডিম দেয়ায়, সেই ডিম থেকে অনেক বাচ্চা হয়েছে। দীর্ঘ সময় ধরে পোকাটি বাসা বাধলেও হনুফা ও তার পরিবার বিষয়টি বুঝতে পারেন নি।

এ কারণে তার মাথা ব্যথা এবং চোখ দিয়ে অনবরত পানি ঝড়ছে। সিটিস্ক্যান করে তার মাথার মধ্যে পোকার বাসাটি নির্নয় করে ওই বাসা ওষুধের মাধ্যমে ধ্বংস করা হবে। এতে হনুফা সুস্থ-স্বাভাবিক হয়ে উঠেবে বলে আশা করছেন তিনি।

চিকিৎসক ডা. রউফ বলেন, মাথার ভেতর কীভাবে পোকা ঢুকেছে, সে বিষয়ে হনুফা কিছু বলতে পারছে না।

তবে চিকিৎসকের ধারণা, কৃষানী হনুফা কৃষি কাজের ফাঁকে কখনো কোন গাছের নীচে ঘুমিয়ে পড়লে অচেতন অবস্থায় তার নাক কিংবা কান দিয়ে পোকা প্রবেশ করে খালি স্থানে বাসা বেঁধেছে। এ ধরনের সম্যসা এড়াতে কোন গাছের নীচে বেশিক্ষণ না থাকার অনুরোধ করেছেন ইএনটি বিশেষজ্ঞ খান আব্দুর রউফ।

রয়েল সিটি হাসপাতাল কর্তপক্ষ জানায়, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি চিকিৎসক খান আব্দুর রউফ এক ধরনের যন্ত্র ব্যবহার করেন তার নাকের মধ্যে। এরপর তিনি হাঁচি দেয়ার সাথে সাথে তার নাক থেকে ১৫ থেকে ২০টি জীবন্ত পোকা বের হয়ে আসে। গত সোমবারও তার হাঁচির সাথে নাক দিয়ে আরো ১০ থেকে ১২টি পোকা বের হয়। এতে তার মাথা ব্যথা অনেকটা কমে যায়।

সৌজন্যে:বিডিমর্নিং.কম

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

ঢাকা ন্যাশনাল মেডিকেলের ডা. নাঈম আর নেই

ঢাকা ন্যাশনাল মেডিকেলের ডা. নাঈম আর নেই

মেডিভয়েস রিপোর্ট: ঢাকা ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজের ফিজিওলজি বিভাগের অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর ডা. মোহাম্মদ…

ডা. রেজাউল ইসলাম রেজা আর নেই

ডা. রেজাউল ইসলাম রেজা আর নেই

মেডিভয়েস রিপোর্ট: শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজের অপথালমোলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক…

চিকিৎসকদের জন্য বিদেশে উচ্চ শিক্ষার ব্যবস্থা করা হবে: প্রধানমন্ত্রী

চিকিৎসকদের জন্য বিদেশে উচ্চ শিক্ষার ব্যবস্থা করা হবে: প্রধানমন্ত্রী

মেডিভয়েস ডেস্ক: দেশের চিকিৎসা সেবাকে এগিয়ে নিতে সরকার সবধরনের উদ্যোগ নেবে বলে…

ফার্মেসি ব্যবসায়ীর পছন্দের ওষুধ না লেখায় চিকিৎসক লাঞ্ছিত

ফার্মেসি ব্যবসায়ীর পছন্দের ওষুধ না লেখায় চিকিৎসক লাঞ্ছিত

মেডিভয়েস রিপোর্ট: কর্মক্ষেত্রে চিকিৎসক লাঞ্ছিত যেন স্বাভাবিক বিষয়ে পরিণত হয়েছে। প্রতিনিয়তই হামলার…

ডেঙ্গু প্রতিরোধে রাজধানীতে এসে ডেঙ্গুতেই প্রাণ গেল স্বাস্থ্য সহকারীর

ডেঙ্গু প্রতিরোধে রাজধানীতে এসে ডেঙ্গুতেই প্রাণ গেল স্বাস্থ্য সহকারীর

মেডিভয়েস রিপোর্ট: ডেঙ্গু প্রতিরোধে সরকারি আদেশে ঢাকা এসে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন…

চট্টগ্রাম ন্যাশনাল হসপিটালের ডা. মুহাম্মদ রফিক আর নেই

চট্টগ্রাম ন্যাশনাল হসপিটালের ডা. মুহাম্মদ রফিক আর নেই

মেডিভয়েস রিপোর্ট: প্রিয়জনদের সাথে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন করা হলো না ডা.…

আরো সংবাদ














জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর